‘ভালো হয়ে যান’ নারায়ণগঞ্জের নেতাদের উদ্দেশে ওবায়দুল কাদের

দীর্ঘ আড়াই দশক পর আয়োজিত হয়েছে নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন। 
দীর্ঘ আড়াই দশক পর আয়োজিত হয়েছে নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন। ছবি: সংগৃহীত

দীর্ঘ আড়াই দশক পর আয়োজিত হয়েছে নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন। 

সম্মেলনে আগের কমিটির সভাপতি আব্দুল হাই ও সাধারণ সম্পাদক আবু হাসনাত মো. শহীদ বাদল পুনরায় তাদের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদে বহাল ঘোষণা করেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। 

এসময় পদবাণিজ্য না করে ত্যাগী নেতা-কর্মীদের দিয়ে পূর্ণাঙ্গ কমিটি কেন্দ্রে পাঠানোর নির্দেশ দেন তিনি।

তিনি বলেন, 'আগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে বহাল করা হলো। আপনারা ঢাকা যাবেন, নেত্রী পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে দেখবেন কমিটি, তারপর আমাকে অনুমোদন দেওয়ার নির্দেশ দেবেন। এবার কিন্তু তদন্ত করে খোঁজখবর নেবো। পয়সা খেয়ে যারা কমিটি করে তারা তলে তলে আওয়ামী লীগের সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করে। এই ধরনের নেতা দলে দরকার নেই।'

'মাথা নাড়ছেন অনেকেই। কে কী করেন জানি। আর করবেন না। ভালো হয়ে যান। নিজেদের সংশোধন করুন। শেখ হাসিনা, শেখ রেহানার মতো সৎ হতে চেষ্টা করুন,' বলেন তিনি। 

নেতাকর্মীদের উদ্দেশে ওবায়দুল কাদের আরও বলেন, 'ক্ষমতাই বিএনপির লক্ষ্য। অর্থপাচারই তাদের লক্ষ্য। আওয়ামী লীগ সে দল নয়। আওয়ামী লীগ বঙ্গবন্ধুর আদর্শে বলিয়ান একটি দল। তৃণমূলের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ একটা দল। ত্যাগী নেতা-কর্মীদের সাথে প্রতারণা করবেন না।' 

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী আরও বলেছেন, 'বিএনপির বিরুদ্ধে খেলা হবে। রাজপথে মোকাবিলা হবে। আসল মোকাবিলা হবে ডিসেম্বরে।সামনে কঠিন দিন আসছে। ভোট চুরি, জালিয়াতি, দুর্নীতি, লুটপাটের বিরুদ্ধে খেলা হবে। ভুয়া ভোটার তালিকা, নারী নির্যাতন, গুম, খুনের বিরুদ্ধে খেলা হবে। কাপুরুষের মতো আর রাজনীতি করবে না বলে মুচলেকা দিয়ে লন্ডনে পাড়ি জমিয়েছে। কে সে? হাওয়া ভবনের সেই যুবরাজ। খেলা হবে হাওয়া ভবনের সেই লুটপাটের বিরুদ্ধে।'

বিরোধী দলগুলোর নির্বাচনকালীন তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবির প্রসঙ্গে ক্ষমতাসীন দলের এই নেতা বলেন, 'তত্ত্বাবধায়ক সরকারের কথা ভুলে যান। এইটা উচ্চ আদালত বাদ দিয়েছে। আমাদের কী? দুনিয়ার কোনো দেশে তত্ত্বাবধায়ক সরকার নেই। অন্য যেকোনো দেশে যে পদ্ধতিতে ইলেকশন হয়, আমাদের সংবিধানেও সেভাবে ইলেকশনের কথা বলা আছে। নিরপেক্ষ নির্বাচন কমিশনের অধীনে নির্বাচন হবে। সরকার কোনো হস্তক্ষেপ করবে না। সব ধরনের সহযোগিতা করবে।'

জনসভায় লোকসমাগমের প্রসঙ্গ টেনে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলামের উদ্দেশে ওবায়দুল কাদের বলেন, 'আপনারা লক্ষ লোকের জনসভার কথা বলেন। আরে লক্ষ লোক আমাদেরই। লক্ষ লোক আপনাদের সাথে নেই। এই লক্ষ লোক নিয়ে অ্যাকশন হবে, খেলা হবে। ডিসেম্বরে বিজয়ের মাস। ডিসেম্বরে জনতার সমুদ্রের গর্জনধ্বনি শুনতে পারবেন। ফখরুল সাহেব, কান পেতে শুনতে থাকুন।'

বৈশ্বিক সংকটের জন্য সরকার দায়ী নয় উল্লেখ করে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী বলেন, 'বৈশ্বিক সংকটের জন্য দায়ী করবেন না। আমরাও আপনাদের কষ্ট দেখে কষ্টে আছি। কারণ এর আগে বিদ্যুৎ বা গ্যাসের ঘাটতি ছিল না। জিনিসপত্রের দামের উর্ধ্বগতি আগে ছিল না। এই সংকট বৈশ্বিক সংকট। শেখ হাসিনার ঘুম নাই। সারারাত তিনি জেগে থাকেন। তার বোন শেখ রেহানা লন্ডন শহরে বাসে চেপে যাতায়াত করেন। বড়বোনের পাশে সহযোদ্ধা ছোটবোনেরও ঘুম নাই। ঘুম নাই আপনাদের জন্য, জনগণের জন্য।'

এই মুহুর্তে বাংলাদেশে শেখ হাসিনার চেয়ে যোগ্য, ভালো ও সৎ মানুষ নেই বলেও মন্তব্য করেন ওবায়দুল কাদের।

অনুষ্ঠানে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী ও নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য একেএম শামীম ওসমানকে একসঙ্গে দেখে স্বস্তি প্রকাশ করেন ওবায়দুল কাদের। 

তিনি বলেন, 'শামীম ফাইটার পলিটিশিয়ান। তার সঙ্গে নারায়ণগঞ্জে পরপর ২ বার নির্বাচিত জনমানুষের মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভী। এই সভায় দুজন এসেছেন, একই মঞ্চে দেখছি তাদের। একই মঞ্চে শামীম ও আইভীসহ সবাই বসে আছি। নারায়ণগঞ্জের শক্তি এরাই। সামনে কঠিন দিন আসছে। মোকাবেলা করতে হবে।'

এর আগে বেলা ৩টায় জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন করে পায়রা উড়িয়ে সম্মেলনের উদ্বোধন করেন কৃষিমন্ত্রী ও দলের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য আব্দুর রাজ্জাক।

জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল হাইয়ের সভাপতিত্ব ও সাধারণ সম্পাদক আবু হাসনাত মো. শহীদ বাদলের সঞ্চালনায় আরও উপস্থিত ছিলেন বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী (বীর প্রতীক), কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম, আইন বিষয়ক সম্পাদক নজিবুল্লাহ হিরু, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক মৃণাল কান্তি দাস, মহিলা বিষয়ক সম্পাদক মেহের আফরোজ চুমকি, বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন, কার্যকরী সদস্য রিয়াজুল কবির কাওসার, শাহাবউদ্দিন ফরাজী, নারায়ণগঞ্জ-২ আসনের সংসদ সদস্য নজরুল ইসলাম বাবু, নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেনসহ আরও অনেকে।

Comments

The Daily Star  | English

FBI confirms 'assassination attempt' on Donald Trump

As the shots rang out, Trump grabbed his right ear with his right hand, then brought his hand down to look at it before dropping to his knees behind the podium before Secret Service agents swarmed and covered him

1h ago