‘কোহলি দেশে ফিরে যান, নটরাজন থেকে যান নেট বোলার হিসেবে’

সুনীল গাভাস্কারের অভিযোগ, বৈষম্যমূলক আচরণের শিকার হচ্ছেন অনেক ভারতীয় ক্রিকেটার।
Ajinka Rahane &Virat Kohli
ছবি: রয়টার্স

প্রথমবারের মতো বাবা হতে যাওয়া বিরাট কোহলি ছুটি পেয়েছেন। সন্তান ভূমিষ্ঠ হওয়ার সময় তিনি স্ত্রীর পাশে থাকতে পারবেন। কিন্তু থাঙ্গারাসু নটরাজনের ক্ষেত্রে বিষয়টা একরকম নয়। গত নভেম্বরে বাবা হলেও এখনও প্রথম সন্তানকে দেখতে পারেননি এই পেসার। তাকে অস্ট্রেলিয়ায় থেকে যেতে হয়েছে কেবল নেট বোলার হিসেবে। তাই সুনীল গাভাস্কারের অভিযোগ, বৈষম্যমূলক আচরণের শিকার হচ্ছেন অনেক ভারতীয় ক্রিকেটার। দেশটির কিংবদন্তি সাবেক এই ব্যাটসম্যান টিম ম্যানেজমেন্টকে কাঠগড়ায় তুলেছেন রবিচন্দ্রন অশ্বিনের প্রসঙ্গ টেনেও।

নিজ দেশের গণমাধ্যম হটস্টারে এক কলামে গাভাস্কার লিখেছেন, ভারতীয় দলে দুরকম নীতির প্রয়োগ দেখতে পাওয়া যায়। অফ স্পিনার অশ্বিনকে সেকারণে ভুগতে হচ্ছে।

‘অশ্বিনের বোলিং সামর্থ্য নিয়ে কেবল নির্বোধরাই প্রশ্ন তুলবে। তারপরও অনেক দিন ধরে তাকে ভুগতে হচ্ছে তার স্পষ্টবাদিতা ও টিম মিটিংয়ে মনের কথা সরাসরি বলে ফেলার কারণে। অথচ অধিকাংশই একমত না হলেও মাথা নাড়িয়ে সম্মতি জানায়।’

সুনীল গাভাস্কার
ছবি: এএফপি

‘বিশ্বের যে কোনো দল টেস্টে ৩৫০ উইকেট দখল করা কোনো বোলারকে স্বাগত জানাবে। তার ৪টি টেস্ট সেঞ্চুরির কথা ভুলে গেলেও চলবে না। অথচ একটি ম্যাচে বেশি উইকেট না নিলেই পরের ম্যাচে তাকে নিশ্চিতভাবেই বাইরে বসিয়ে রাখা হয়। প্রতিষ্ঠিত ব্যাটসম্যানদের ক্ষেত্রে যদিও এটা ঘটে না। ব্যর্থ হলেও তারা ম্যাচের পর ম্যাচ সুযোগ পেতেই থাকে। কিন্তু অশ্বিনের ক্ষেত্রে নিয়ম মনে হয় আলাদা।’

কোহলি ও নটরাজনের কথা উল্লেখ করে তিনি যোগ করেছেন, ভারতীয় দলে একেকজনের জন্য একেক নিয়ম চালু রয়েছে। ফলে কেউ কেউ সুবিধা পাচ্ছেন, আবার কেউ কেউ পোহাচ্ছেন দুর্ভোগ।

 T Natarajan
ছবি: রয়টার্স

‘আরেকজন খেলোয়াড়ও দলের নীতি নিয়ে বিস্মিত হতে পারে। কিন্তু দলে নতুন বলে সে উচ্চবাচ্চ্য করতে পারবে না। সে হলো নটরাজন। এই বাঁহাতি ইয়র্কার স্পেশালিস্টের অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজে দারুণ অভিষেক হয়েছে এবং হার্দিক পান্ডিয়া বীরোচিতভাবে তার সঙ্গে ম্যান অব দ্য সিরিজের পুরস্কার ভাগাভাগি করার প্রস্তাবও জানায়। আইপিএলের প্লে অফ চলার সময়ই সে প্রথমবারের বাবা হয়েছে (গত নভেম্বরে)। কিন্তু সংযুক্ত আরব আমিরাত থেকে তাকে সরাসরি অস্ট্রেলিয়ায় নেওয়া হয়েছে। এরপর তার দুর্দান্ত পারফরম্যান্স দেখে তাকে টেস্ট সিরিজের জন্যও রেখে দেওয়া হয়েছে। কিন্তু মূল স্কোয়াডের অংশ হিসেবে নয়, কেবল নেট বোলার হিসেবে। কল্পনা করুন (বিষয়টা)!’

‘একজন ম্যাচ জেতানো বোলার, হোক সে অন্য সংস্করণের, তাকে কেবল নেট বোলার হিসেবে ডাকা হয়েছে। অর্থাৎ সে দেশে ফিরবে সিরিজ শেষে জানুয়ারীর তৃতীয় সপ্তাহে। তখনই কেবল নিজের মেয়েকে সে প্রথমবারের মতো দেখতে পাবে। আর অধিনায়ক কিনা প্রথম টেস্টের পর দেশে ফিরে যাচ্ছে প্রথম সন্তানের জন্মের জন্য। এটাই ভারতীয় ক্রিকেট। ভিন্ন ভিন্ন লোকের জন্য এখানে নিয়মও ভিন্ন। আমার কথা বিশ্বাস না হলে অশ্বিন ও নটরাজনকে জিজ্ঞেস করে দেখুন।’

Comments

The Daily Star  | English

Submarine cable breakdown disrupts Bangladesh internet

It will take at least 2 to 3 days to resume the connection

54m ago