রুমানা-জাহানারাদের সঠিক পথ দেখাতে এসেছেন দেবিকা

বাংলাদেশের নারী ক্রিকেটারদের মধ্যে আত্মবিশ্বাসের ঘাটতি নেই। তবে কৌশলগত আর দলীয় চেষ্টার অভাব দেখছেন দলের নতুন সহকারি কোচ দেবিকা পালশিখর। খণ্ডকালীন দায়িত্ব নিয়ে সেই ভুলগুলোই শোধরে দিতে চান।
Devika Palshikar
দেবিকা পালশিখর, বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট দলের সহকারি কোচ, ছবি: সংগ্রহ

বাংলাদেশের নারী ক্রিকেটারদের মধ্যে আত্মবিশ্বাসের ঘাটতি নেই। তবে কৌশলগত আর দলীয় চেষ্টার অভাব দেখছেন দলের নতুন সহকারি কোচ দেবিকা পালশিখর। খণ্ডকালীন দায়িত্ব নিয়ে সেই ভুলগুলোই শোধরে দিতে চান।

ভারতীয় নারী ক্রিকেট দলের সাবেক সহকারি কোচ দেবিকা ডিসেম্বর পর্যন্ত দায়িত্ব পেয়েছেন সালমা খাতুন-জাহানারা আলমদের। বুধবার মিরপুরে দলের অনুশীলনে এসে জানিয়েছেন এই দল নিয়ে নিজের ভাবনার কথা, ‘গত ছয় সাত বছর ধরে আমি বাংলাদেশ দলকে দেখেছি। তাদের মধ্যে শক্তি ও আত্মবিশ্বাস আছে। আমার মনে তাদের মধ্যে কিছুটা কৌশলগত ও দলীয় প্রচেষ্টার অভাব আছে।’

গেল কয়েক বছরে নারী ক্রিকেটারদের সাফল্যের গ্রাফ উর্ধ্বমুখী  নয়। নিয়মিত সাফল্য পেতে আরও সময়ের দরকার বলে মনে করেন দেবিকা,

‘আপনি যখন আরো বড় জায়গায় খেলতে যাবেন, আপনাকে মানসিকভাবে আরো শক্ত হতে হবে। গত ছয় সাত বছরে তারা যা করেছে, তা ভালো। তবে আরো উঁচু পর্যায়ে যেতে তাদের আরো সময় দরকার।’

মেয়েদের বোলিং-ফিল্ডিং চলনসই হলেও ভোগাচ্ছে ব্যাটিং। বড় শট খেলতে না পারার দুর্বলতার সঙ্গে ক্রিজে টিকে থাকা নিয়েও আছে প্রশ্ন। নতুন সহকারি কোচের মতে ফিটনেসের উন্নতিতে মিটতে পারে এই সংকট,

‘যদি এমন হয় তারা বল ৩০ গজও পার করতে পারছে না, তার মানে তাদের পাওয়ার হিটিং দক্ষতা প্রয়োজন। এখানেও সেই ফিটনেসের কথা চলে আসে। তাদের ফিটনেস নিয়ে কাজ করতে হবে।’

দেবিকার প্রথম অ্যাসাইনমেন্ট দক্ষিণ আফ্রিকা সফর। ডিসেম্বর পর্যন্ত মেয়েদের আছে আরও অনেক খেলা। তিন বছর ভারতের হয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলা দেবিকা এই সময়ের মধ্যেই উন্নতি আনতে আত্মবিশ্বাসী, ‘উন্নতি যে হবে, সেটা আমি নিশ্চিতভাবেই আশা করতে পারেন। ফলাফলটা নিয়ে আমি মন্তব্য করতে পারবো না। তারা যদি প্রসেস ঠিক রাখে… ফলাফলটা আসলে কারো হাতে নেই।’

 

Comments

The Daily Star  | English
earthquake in Bangladesh

Is Bangladesh prepared for a major earthquake?

A 5.5 magnitude earthquake on the Richter scale rattled Bangladesh on the evening of May 29, sending tremors through major cities.

6h ago