প্রবাসে
প্রবাসে

কোরিয়ান ভাষায় বঙ্গবন্ধুর ‘অসমাপ্ত আত্মজীবনী’

কোরিয়ান ভাষায় প্রকাশিত হয়েছে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ‘অসমাপ্ত আত্মজীবনী’।
কোরিয়ান ভাষায় প্রকাশিত বঙ্গবন্ধুর ‘অসমাপ্ত আত্মজীবনী’র প্রকাশনা অনুষ্ঠানে অতিথিদের সঙ্গে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত আবিদা ইসলাম (বাম থেকে চতুর্থ)। ছবি: সংগৃহীত

কোরিয়ান ভাষায় প্রকাশিত হয়েছে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ‘অসমাপ্ত আত্মজীবনী’।

বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উদযাপনের অংশ হিসেবে এই উদ্যোগ নিয়েছে দক্ষিণ কোরিয়ায় বাংলাদেশ দূতাবাস।

কোরিয়ান লেখক লি ডং হনের অনুবাদ করা বইটি কোরিয়ান প্রকাশনী সংস্থা মোরাইলের ব্যবস্থাপনায় দেশটির বইয়ের দোকান ও অনলাইন প্ল্যাটফর্মে পাওয়া যাবে।

এর আগে বাংলাদেশ দূতাবাসের উদ্যোগে বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণ এবং ‘বঙ্গবন্ধু: দ্য পিপলস হিরো’ বইটির কোরিয়ান ভাষায় অনুবাদ প্রকাশ করা হয়।

গত বৃহস্পতিবার রাজধানী সিউলের লোটে হোটেলে কোরিয়ান ভাষায় অনুবাদ করা  বঙ্গবন্ধুর ‘অসমাপ্ত আত্মজীবনী’ বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করা হয়।

মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রদূত, কূটনীতিক, কোরিয়ান সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধি, স্বনামধন্য ব্যক্তিবর্গ ও প্রবাসী বাংলাদেশি সংগঠকরা উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে ভিডিও বার্তায় পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুর এই আত্মজীবনীতে রাজনৈতিক দৃষ্টিভঙ্গির পাশাপাশি মানবতাবাদ ও বিশ্ব শান্তির প্রতি তার নিরবচ্ছিন্ন সমর্থন প্রতিফলিত হয়েছে।’

তিনি আশা প্রকাশ করেন যে, ‘অসমাপ্ত আত্মজীবনী’র কোরিয়ান সংস্করণ দক্ষিণ কোরিয়ার বন্ধু ভাবাপন্ন জনগণকে সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালির জীবন, তার সার্বজনীন দৃষ্টিভঙ্গি ও দর্শন এবং বাংলাদেশের সৃষ্টিতে তার অসামান্য অবদান সম্পর্কে জানার এক অনন্য সুযোগ সৃষ্টি করবে।’

বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘরের কিউরেটর মো. নজরুল ইসলাম খান ভিডিও বার্তায় বলেন, ‘অসমাপ্ত আত্মজীবনী’ কেবলমাত্র একটি আত্মজীবনী নয়, এটি বাংলাদেশের রাজনৈতিক, অর্থনৈতিক ও সাংস্কৃতিক ইতিহাসের এক অনবদ্য দলিল।

তিনি আশা প্রকাশ করেন যে, কোরিয়ান সংস্করণ কোরিয়ার জনগণকে দুই দেশের স্বাধীনতা সংগ্রামের অভিন্ন ইতিহাস সম্পর্কে ধারণা লাভ করতে সহায়তা করবে।’

অনুষ্ঠানের বিশেষ অতিথি দক্ষিণ কোরিয়ার জাতীয় সংসদ সদস্য সুল হুন বলেন, ‘আমাদের এখনো একটি অসম্পূর্ণ ইতিহাস রয়েছে তা হলো— দুই কোরিয়ার  শান্তিপূর্ণ পুনর্মিলন। একটি জাতির ঐক্য অর্জনে কি ধরনের আত্মত্যাগ, প্রতিশ্রুতি ও নেতৃত্বের প্রয়োজন হয়, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জীবন ও বাংলাদেশের ইতিহাস থেকে আমাদের রাজনীতিবিদেরা তা জানতে পারবেন, যা তাদের অনুপ্রাণিত করবে।’

কোরিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এশিয়া ও প্রশান্ত ব্যুরোর মহাপরিচালক লি স্যাংগ্রিওল বঙ্গবন্ধুর বলিষ্ঠ, কূটনৈতিক ও ঐন্দ্রজালিক ব্যক্তিত্বের নানাদিক তুলে ধরে বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুর অহিংস দৃষ্টিভঙ্গির বার্তা বিশ্বব্যাপী শান্তিকামী মানুষের বিশেষত কোরিয়ান জনগণের হৃদয়ে অনুরণিত হবে যারা ইতিহাসে এ ধরনের বিভিন্ন ঘটনার সম্মুখীন হয়েছেন।’

দক্ষিণ কোরিয়ায় বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত আবিদা ইসলাম ‘অসমাপ্ত আত্মজীবনী’র আলোকে বঙ্গবন্ধুর ব্যক্তিগত জীবন, তার বর্ণাঢ্য ও ঘটনাবহুল রাজনৈতিক জীবন তুলে ধরেন।

তিনি বলেন, ‘পৃথিবী এখনো যেহেতু নিপীড়িতদের অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য, একটি শান্তি ও ন্যায়পূর্ণ এবং সমৃদ্ধ বিশ্ব গড়ার জন্য লড়াই করছে, সুতরাং বঙ্গবন্ধুর দর্শন আজকের বিশ্বের জন্য এখনো প্রাসঙ্গিক।’

আবিদা ইসলাম আশা প্রকাশ করেন যে, কোরিয়ান পাঠকরা ‘অসমাপ্ত আত্মজীবনী’ থেকে বঙ্গবন্ধুর জীবনী ও বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামের ইতিহাস সম্পর্কে জানতে পারবেন এবং দুই দেশের স্বাধীনতা সংগ্রামের অনুরূপ ইতিহাস ও অভিজ্ঞতা এবং বন্ধুপ্রতীম দুই দেশকে আগামী দিনগুলোতে বন্ধুত্ব ও ভ্রাতৃত্বের একক সূত্রে আবদ্ধ করে রাখবে।’

‘কোরিয়ার মুক্তি সংগ্রামের সঙ্গে বাঙালির স্বাধীনতা সংগ্রামের সাদৃশ্য রয়েছে’ উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন, ‘তাই স্থানীয় পাঠকেরাও এই প্রকাশনার সঙ্গে নিজেদের একাত্ম করতে পারবেন।’

অনুষ্ঠানে বইটির প্রকাশকদের উপস্থিতিতে অনুবাদক লি ডং হনকে তার অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ একটি ক্রেস্ট উপহার দেওয়া হয়। সেসময় অনুবাদ কাজে সহায়তার জন্য ঢাকার আধুনিক ভাষা ইনস্টিটিউটের প্রভাষক শিউলী ফাতেহার অবদানের কথাও স্মরণ করা হয়।

Comments

The Daily Star  | English

Heatwave: DU and JnU classes to be held virtually

DU exams to be held in person; JnU exams postponed till April 25

1h ago