‘দ্য মেদিনীপুর ওরশ স্পেশাল ট্রেন’

রেলপথে বাংলাদেশের সঙ্গে ভারতের সংযোগস্থাপনের জন্য ‘দ্য মৈত্রী এক্সপ্রেস’ সব আলো কেড়ে নিলেও এই দুই দেশের মধ্যে ১৯০২ সাল থেকে অপর একটি ট্রেন এখনও চলাচল করছে, যা হয়তো অনেকে জানেন না।
The Midnapore Urs Special Train
১৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, বাংলাদেশের রাজবাড়ী থেকে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মেদিনীপুরের উদ্দেশ্যে ‘দ্য মেদিনীপুর ওরশ স্পেশাল ট্রেন’ ছেড়ে যায়। বাংলাদেশের সব ধর্মের ওরশ যাত্রীদের নিয়ে ১৯০২ সাল থেকে প্রতিবছর একবার করে ট্রেনটির মেদিনীপুর যাত্রা অব্যাহত রয়েছে। ছবি: খন্দকার আব্দুল মতিন

রেলপথে বাংলাদেশের সঙ্গে ভারতের সংযোগস্থাপনের জন্য ‘দ্য মৈত্রী এক্সপ্রেস’ সব আলো কেড়ে নিলেও এই দুই দেশের মধ্যে ১৯০২ সাল থেকে অপর একটি ট্রেন এখনও চলাচল করছে, যা হয়তো অনেকে জানেন না।

সব ধর্মের প্রায় ২ হাজারেরও অধিক ওরশ যাত্রীকে নিয়ে প্রতিবছর একবার করে বাংলাদেশের রাজবাড়ী থেকে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মেদিনীপুরের উদ্দেশ্যে ‘দ্য মেদিনীপুর ওরশ স্পেশাল ট্রেন’ ছেড়ে যায়। এতে পরিবহনের জন্য প্রত্যেক যাত্রীকে গুণতে হয় ৩ হাজার ৩৫০টাকা করে।

১৫ ফেব্রুয়ারি থেকে এই ট্রেনের যাত্রা শুরু হয় এবং চারদিন পর সেটি পুনরায় গন্তব্যে ফিরে আসে।

পুরো যাত্রাপথের ব্যবস্থাপনা তদারককারী আঞ্জুমান-ই-কাদেরীয়া কমিটির প্রেসিডেন্ট কাজী ইরাদাত আলী জানান, গত ১১৭ বছরে ইতিহাসে মাত্র চারবারের জন্য এই সেবাটি স্থগিত রাখা হয়েছিলো।

১৯৬৫ সালে ভারত-পাকিস্তান যুদ্ধের সময় এই সেবাটি প্রথমবারের মতো স্থগিত হয়ে গিয়েছিল। এর ৪৩ বছর পর ‘দ্য মৈত্রী এক্সপ্রেস’-এর মাধ্যমে পুনরায় ঢাকা-কলকাতা রেল যোগাযোগ চালু হয়।

১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধের সময় দ্বিতীয়বার এবং ১৯৯২ সালে বাবরি মসজিদ ভাঙার সময় তৃতীয়বার এবং ১৯৯৪ সালে ভারতে প্লেগের ব্যাপক প্রাদুর্ভাব দেখা দিলে সবর্শেষবারের মতো এই ট্রেনটির যাত্রা স্থগিত করা হয়েছিলো।

এটিকে কেনো বিশেষ যাত্রা বলা হচ্ছে? এমন প্রশ্নের উত্তরে ইরাদাত আলী দ্য ডেইলি স্টারকে জানান, আব্দুল কাদের জিলানীর বংশধর মেদিনীপুরের বড় হুজুরের ভারত আগমনের দিনটিকে স্মরণ করে অনুষ্ঠিত ওরসে অংশগ্রহণের উদ্দেশ্যে প্রতিবছর বাংলাদেশ থেকে তার ভক্তরা মেদিনীপুর যান।

(সংক্ষেপিত, পুরো রিপোর্ট পড়তে নিচের ইংরেজি লিংকে ক্লিক করুন)

All aboard harmony train

Comments

The Daily Star  | English

Foreign airlines’ $323m stuck in Bangladesh

The amount of foreign airlines’ money stuck in Bangladesh has increased to $323 million from $214 million in less than a year, according to the International Air Transport Association (IATA).

14h ago