রোমাঞ্চ জাগিয়েও পারল না ইংল্যান্ড

পেস বান্ধব উইকেটে প্রায় চারশো ছুঁইছুঁই রান তাড়ায় দারুণ শুরু করেছিল ইংল্যান্ড। জমে উঠেছিল ম্যাচ। কিন্তু রোমাঞ্চের আভাসেই সব সার। রেকর্ড গড়ে আর রান তাড়া করা হয়নি ইংল্যান্ডের। ররি বার্নস, জো রুটদের প্রতিরোধ ভেঙে দক্ষিণ আফ্রিকাকে জিতিয়েছেন কাগিসো রাবাদা, আনরিক নরকিয়ারা।
Anrich Nortje
ছবি: এএফপি

পেস বান্ধব উইকেটে প্রায় চারশো ছুঁইছুঁই রান তাড়ায় দারুণ শুরু করেছিল ইংল্যান্ড। জমে উঠেছিল ম্যাচ। কিন্তু রোমাঞ্চের আভাসেই সব সার। রেকর্ড গড়ে আর রান তাড়া করা হয়নি ইংল্যান্ডের। ররি বার্নস, জো রুটদের প্রতিরোধ ভেঙে দক্ষিণ আফ্রিকাকে জিতিয়েছেন কাগিসো রাবাদা, আনরিক নরকিয়ারা।

সেঞ্চুরিয়নে চতুর্থ দিনে ইংল্যান্ডকে ১০৭ রানে হারিয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা। এতে চার টেস্ট ম্যাচের সিরিজে স্বাগতিকরা এগিয়ে গেল ১-০ ব্যবধানে। বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে ৩০ পয়েন্টও অর্জনের খাতায় যোগ হলো প্রোটিয়াদের।   দলকে জেতাতে রাবাদা ১০৭ রানে ৪, নরকিয়া ৫৭ রানে ৩ উইকেট নেন। স্পিনার কেশব মহারাজ পান ৩৭ রানে ২ উইকেট।

৩৭৬ রানের রেকর্ড রান তাড়ায় আগের দিনই ১ উইকেটে ১২১ তুলে ফেলেছিল ইংল্যান্ড। সবচেয়ে যিনি আলো ছড়িয়েছেন সেই বার্নস দিনের শুরুতেই বিদায়। নরকিয়ার বলে ৮৪ রানে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন ইংলিশ ওপেনার।

আরেক অপরাজিত ব্যাটসম্যান জো ডেনলিকে তুলে নেন ডোয়াইন প্রিটোরিয়াস। বেন স্টোকস কাবু হন মহারাজের বলে। ইংল্যান্ডের ভেঙে পড়ার ইঙ্গিত তখনই মিলছিল। প্রতিরোধ গড়েছিলেন অধিনায়ক জো রুট। তাকেও উইকেটের পেছনে ক্যাচ বানান নরকিয়া। জনি বেয়ারস্টো, জস বাটলার, স্যাম কুরান আর স্টুয়ার্ট ব্রডকে আউট করে শেষটা মুড়েছেন রাবাদা।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

দক্ষিণ আফ্রিকা প্রথম ইনিংস: ২৮৪

ইংল্যান্ড প্রথম ইনিংস: ১৮১

দক্ষিণ আফ্রিকা দ্বিতীয় ইনিংস: ২৭২

ইংল্যান্ড দ্বিতীয় ইনিংস: ৪১ ওভারে ১২১/১ (বার্নস ৮৪, সিবলি ২৯, ডেনলি ৩১, রুট ৪৮, স্টোকস ১৪, বেয়ারস্টো ৯, বাটলার ২২, কুরান ৯, আর্চার ৪, ব্রড ৬, অ্যান্ডারসন ০*; রাবাদা ৪/১০৭, ফিল্যান্ডার ০/৩৫, নরকিয়া ৩/৫৬, প্রিটোরিয়াস ১/২৬, মহারাজ ২/৩৭)

ফল: ইংল্যান্ড ১০৭ রানে জয়ী।

ম্যান অব দ্য ম্যাচ: কুইন্টেন ডি কক।

Comments

The Daily Star  | English

93pc jobs on merit, 7pc from quotas

Govt issues circular; some quota reform organisers reject it

3h ago