উইম্বলডনে নিষিদ্ধ রাশিয়া, বেলারুশ

রাশিয়া ও বেলারুশের টেনিস খেলোয়াড়রা এ বছরের উইম্বলডনে অংশ নিতে পারবেন না।
২০১৮ সালের উইম্বলডন প্রতিযোগিতার দৃশ্য। ফাইল ছবি: রয়টার্স

রাশিয়া ও বেলারুশের টেনিস খেলোয়াড়রা এ বছরের উইম্বলডনে অংশ নিতে পারবেন না।

প্রতিযোগিতার নিয়ন্ত্রক অল ইংল্যান্ড লন টেনিস অ্যান্ড ক্রিকেট ক্লাবের (এইএলটিসির) বরাত দিয়ে আল জাজিরা জানিয়েছে, ইউক্রেনে মস্কোর আগ্রাসনের কারণে এ সিদ্ধান্ত।

ফলে বর্তমান ইউএস ওপেন চ্যাম্পিয়ন এবং অ্যাসোসিয়েশন অব টেনিস প্রফেশনালস (এটিপি) র‍্যাংকিং এ বিশ্বের শীর্ষ স্থানে থাকা দানিল মেদভেদেভ, পুরুষদের মধ্যে ৮ নং র‍্যাংকিংধারী আন্দ্রেই রুবলেভ, ২০২১ এর সেমিফাইনালে খেলা ও নারীদের ডব্লিউটিএ র‍্যাংকিং এ চতুর্থ অবস্থানে থাকা আরিনা সাবালেঙ্কা, বেলারুশের নাগরিক, দুই বারের অস্ট্রেলীয় ওপেন জয়ী সাবেক শীর্ষ নারী তারকা ভিক্টোরিয়া আজারেঙ্কা এবং গত বছরের ফ্রেঞ্চ ওপেনের রানার্স আপ আনাসতিসিয়া পাভলিউচেঙ্কোভা এবারের উইম্বলডনের আসরে অংশ নিতে পারছেন না।

এইএলটিসির চেয়ারম্যান আয়ান হেউইট বুধবার দেওয়া এক বক্তব্যে বলেন, 'আমরা স্বীকার করি, এই সিদ্ধান্ত কিছু মানুষকে ব্যক্তিগতভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে এবং দুর্ভাগ্যজনকভাবে, তারা রুশ নেতাদেরর কার্যক্রমের কারণে দুর্ভোগের শিকার হচ্ছেন।'

টেনিস সংস্থা আরও জানায়, এ সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে তারা 'সতর্কতার সঙ্গে' যুক্তরাজ্যের আইনি কাঠামোর মধ্যে পড়ে এরকম অন্যান্য বিকল্প উদ্যোগের কথা বিবেচনা করেছে।

টেনিসের শীর্ষ ৪ 'গ্র্যান্ড স্ল্যাম' প্রতিযোগিতার মধ্যে সবচেয়ে বেশি মর্যাদাপূর্ণ প্রতিযোগিতা উইম্বলডন এ বছর ২৭ জুন থেকে ১০ জুলাই পর্যন্ত চলবে।

রুশ কর্মকর্তারা নিষেধাজ্ঞার সংবাদে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন এবং জানিয়েছেন এ সিদ্ধান্ত গ্রহণযোগ্য নয়।

ক্রেমলিনের মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভ সাংবাদিকদের বলেন, 'আবারও তারা ক্রীড়াবিদদের রাজনৈতিক পক্ষপাত ও চক্রান্তের শিকার বানালেন।'

২৪ ফেব্রুয়ারির আগ্রাসনের পর থেকে রাশিয়া ও বেলারুশকে বিভিন্ন আন্তর্জাতিক টেনিস প্রতিযোগিতা থেকে নিষিদ্ধ করা হচ্ছে। তবে এই দুই দেশের খেলোয়াড়দেরকে আন্তর্জাতিক ট্যুরে বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় অংশ নেওয়ার অনুমতি দেওয়া হয়েছে, কিন্তু সেখানে তারা দেশের নাম বা পতাকা বহন করতে পারবেন না।

মে মাসে শুরু হতে যাওয়া ফ্রেঞ্চ ওপেনে এখনো রাশিয়া ও বেলারুশের খেলোয়াড়রা অংশ নিতে পারছেন।

রুশ টেনিস ফেডারেশনের প্রেসিডেন্ট শামিল তারপিশেভ বলেন, 'আমার মতে এই সিদ্ধান্ত ভুল, তবে আমরা এ ক্ষেত্রে কোনো কিছু পরিবর্তন করতে পারবো না।'

'(রুশ) টেনিস ফেডারেশনের যা যা করণীয়, তা তারা ইতোমধ্যে করেছে', যোগ করেন তিনি।

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর এবারই প্রথম উইম্বলডন থেকে ক্রীড়াবিদদের নিষিদ্ধ করা হলো। সে সময় জার্মানি ও জাপানের খেলোয়াড়দের নিষিদ্ধ করা হয়েছিল।

বুধবারের ঘোষণার আগে ইউক্রেনের টেনিস খেলোয়াড় এলিনা সভিতলিনা ও মার্টা কস্তিউক বিবৃতির মাধ্যমে সব আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতা থেকে রাশিয়া ও বেলারুশের ক্রীড়াবিদদের ঢালাওভাবে নিষিদ্ধ করার দাবি জানান।

যুক্তরাজ্যের ক্রীড়ামন্ত্রী নাইজেল হাডলস্টন গত মাসে জানান, তিনি একজন 'রুশ ক্রীড়াবিদকে রুশ পতাকা ঝুলিয়ে' লন্ডনে উইম্বলডন জিততে দেখলে স্বস্তি পাবেন না।

Comments

The Daily Star  | English

44 lives lost to Bailey Road blaze

33 died at DMCH, 10 at the burn institute, and one at Central Police Hospital

8h ago