উত্তর কোরিয়ার সাথে আলোচনায় বসতে চায় যুক্তরাষ্ট্র

উত্তর কোরিয়ার সাথে আলোচনার টেবিলে বসার ব্যাপারে আগ্রহ প্রকাশ করেছে যুক্তরাষ্ট্র। মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী রেক্স টিলারসনকে বরাত দিয়ে যুক্তরাষ্ট্র সরকারের এই অবস্থানের কথা জানিয়েছে সিএনএন। তবে এই আলোচনার শর্ত থাকে যে, উত্তর কোরিয়াকে তার পারমাণবিক অস্ত্র কর্মসূচি পরিত্যাগ করতে হবে।
উত্তর কোরিয়ার রাজধানী পিয়ংইয়ংয়ে দেশটির প্রতিষ্ঠাতা রাষ্ট্রপতি কিম ইল সাং ও সাবেক রাষ্ট্রপতি কিম জং ইল-এর ২২ মিটার উঁচু ব্রোঞ্জ মূর্তি

উত্তর কোরিয়ার সাথে আলোচনার টেবিলে বসার ব্যাপারে আগ্রহ প্রকাশ করেছে যুক্তরাষ্ট্র। মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী রেক্স টিলারসনকে বরাত দিয়ে যুক্তরাষ্ট্র সরকারের এই অবস্থানের কথা জানিয়েছে সিএনএন। তবে এই আলোচনার শর্ত থাকে যে, উত্তর কোরিয়াকে তার পারমাণবিক অস্ত্র কর্মসূচি পরিত্যাগ করতে হবে।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সংবাদ সম্মেলনে টিলারসন বলেন, উত্তর কোরিয়ায় ক্ষমতা পরিবর্তন ঘটানোর বা ৩৮ ডিগ্রি অক্ষরেখার (দুই কোরিয়াকে বিভক্তকারী রেখা) উত্তরে সেনা পাঠানোর কোন আগ্রহ নেই যুক্তরাষ্ট্রের।

উত্তর কোরিয়ার সাম্প্রতিক দুই দফায় আন্তমহাদেশীয় ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা নিয়েও যুক্তরাষ্ট্র সরকারের উদ্বেগের কথা এসেছে সংবাদ সম্মেলনে। টিলারসনের ভাষায়, এই ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা কোনভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়।

ব্রিফিং রুমে হঠাৎ উপস্থিত হয়ে টিলারসন বলেন, “আমরা ক্ষমতার পরিবর্তন ঘটাতে চাই না। কোরিয়া পুনঃএকত্রিকরণ প্রক্রিয়াকে গতিশীল করারও কোন আগ্রহ নেই আমাদের। কোন ছুতা বের করে ৩৮ ডিগ্রি অক্ষরেখার উত্তরে সেনা পাঠানোর ইচ্ছাও নেই আমাদের।”

সবাইকে অবাক করে আলোচনায় আগ্রহের কথা জানালেও প্রয়োজন হলে সামরিক শক্তি প্রয়োগে যুক্তরাষ্ট্র যে পিছপা হবে না সেই ইঙ্গিতও দিয়েছেন টিলারসন। তিনি বলেন, আমরা আপনাদের শত্রু নই বা আমাদের দিক থেকে বিপন্ন বোধ করার কোন কারণ নেই। কিন্তু আপনাদের দিক থেকে যে বিপদ রয়েছে তা গ্রহণযোগ্য নয়। আমরা এর জবাব দেব।”

এর পরই সরাসরি উত্তর কোরিয়াকে সম্বোধন করে টিলারসন আলোচনায় বসায় আগ্রহ প্রকাশ করেন। আর আলোচনার মাধ্যমে সমস্যা সমাধান না হলে এর বিকল্প হিসেবে যুক্তরাষ্ট্র যে ব্যবস্থা নিবে তা আকর্ষণীয় হবে না বলেও স্পষ্ট জানিয়েছেন তিনি।

Click here to read the English version of this news

Comments

The Daily Star  | English

12th national elections: 731 of 2,716 nominations rejected

Nomination papers rejected mainly for three reasons, says EC joint secretary

1h ago