শীর্ষ খবর

জিহাদের মৃত্যু: ৪ জনের ১০ বছরের কারাদণ্ড

ঢাকার শাহজাহানপুর এলাকায় পরিত্যক্ত পাইপের মধ্যে পড়ে তিন বছরের শিশু জিহাদের মৃত্যুর মামলা চার জনকে ১০ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। দণ্ডপ্রাপ্তদের মধ্যে তিন জন রেলওয়ের প্রকৌশলী। ২০১৪ সালের ২৬ ডিসেম্বর ৬০০ ফুট গভীর পাইপে পড়ে মারা যায় জিহাদ।
জিহাদের মৃত্যু মামলায় রেলওয়ের তিন প্রকৌশলীসহ চার জনের ১০ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। ২৭ ডিসেম্বর ২০১৪ পাইপ থেকে জিহাদের নিথর দেহ উদ্ধার করে স্বেচ্ছাসেবকরা। ছবি: স্টার

ঢাকার শাহজাহানপুর এলাকায় পরিত্যক্ত পাইপের মধ্যে পড়ে তিন বছরের শিশু জিহাদের মৃত্যুর মামলা চার জনকে ১০ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। দণ্ডপ্রাপ্তদের মধ্যে তিন জন রেলওয়ের প্রকৌশলী। ২০১৪ সালের ২৬ ডিসেম্বর ৬০০ ফুট গভীর পাইপে পড়ে মারা যায় জিহাদ।

সজাপ্রাপ্তরা হলেন, এসআর হাউজের সত্ত্বাধিকারী আব্দুস সালাম ওরফে শফিকুল ইসলাম, রেলওয়ের সিনিয়র সাব-ইঞ্জিনিয়ার জাহাঙ্গীর আলম, অ্যাসিস্ট্যান্ট ইঞ্জিনিয়ার জাফর আহমেদ ও নাসিরউদ্দিন।

এদের প্রত্যেককে দুই লাখ টাকা করে জরিমানা ও অনাদায়ে আরও দুই বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

স্বেচ্ছাসেবকদের তৈরি করা একটি যন্ত্র দিয়ে জিহাদকে উদ্ধারের চেষ্টা করেন দমকল কর্মীরা। ছবি: রাশেদ সুমন
আদালতে অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় দুই জন অ্যাসিস্ট্যান্ট ইঞ্জিনিয়ারকে মামলা থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। অভিযুক্তদের উপস্থিতিতে আজ ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৫ এর বিচারক মো আক্তারুজ্জামান এই রায় প্রদান করেন।

২০১৪ সালের ২৬ ডিসেম্বর জিহাদ শাহজাহানপুর রেলওয়ে কলোনিতে বন্ধুদের সঙ্গে খেলতে গিয়ে ১৭ ইঞ্চি ব্যাসের একটি পরিত্যক্ত পানির পাইপে পড়ে প্রাণ হারায় জিহাদ। এক দল স্বেচ্ছাসেবক পাইপের ভেতর থেকে তার মৃতদেহ উদ্ধার করে।

গত বছর ৪ অক্টোবর এই একই আদালতে রেলওয়ের পাঁচ জন প্রকৌশলীসহ ছয় জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করা হয়। সাজা ঘোষণার আগ পর্যন্ত তারা জামিনে ছিলেন।

Click here to read the English version of this news

Comments