নতুন ৪ লাখ রোহিঙ্গা বাংলাদেশে: ইউনিসেফ

জাতিসংঘের শিশু বিষয়ক সংস্থা ইউনিসেফ আজ (১৪ সেপ্টেম্বর) জানিয়েছে, মিয়ানমারের সেনা বাহিনীর নির্যাতন থেকে প্রাণ বাঁচাতে গত ২৫ আগস্ট থেকে এখন পর্যন্ত অন্তত চার লাখ রোহিঙ্গা প্রতিবেশী বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে।
rohingya refugees
খাবার ও অন্যান্য ত্রাণ সহযোগিতার আশায় বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গা শরণার্থীরা। ছবি: স্টার

জাতিসংঘের শিশু বিষয়ক সংস্থা ইউনিসেফ আজ (১৪ সেপ্টেম্বর) জানিয়েছে, মিয়ানমারের সেনা বাহিনীর নির্যাতন থেকে প্রাণ বাঁচাতে গত ২৫ আগস্ট থেকে এখন পর্যন্ত অন্তত চার লাখ রোহিঙ্গা প্রতিবেশী বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে।

সংস্থাটির প্রাথমিক হিসেবে দেখা গেছে এসব শরণার্থীদের মধ্যে প্রায় ৬০ শতাংশ শিশু।

এদিকে, কয়েক হাজার রোহিঙ্গা শিশুর জন্যে জরুরি খাবার পানি, পয়ঃনিষ্কাশন ব্যবস্থা এবং স্বাস্থ্য সামগ্রী নিয়ে ইউনিসেফের ট্রাক কক্সবাজারের উদ্দেশ্যে রওনা হয়েছে। আগামী দিনগুলোতে আরও ত্রাণ সাহায্য আসবে বলেও জানানো হয়।

পুরনো আশ্রয় কেন্দ্রগুলো শরণার্থীতে ভরে যাওয়ায় নতুন করে আসা শরণার্থীরা যে যেখানে পাচ্ছেন আশ্রয় নেওয়ার চেষ্টা করছেন।

বাংলাদেশে ইউনিসেফের প্রতিনিধি এদোর্য়াদ বেইগবেদার বলেন, “সবকিছুরই তীব্র সংকট রয়েছে। বিশেষ করে, খাবার, খাবার পানি ও বাসস্থানের তীব্র অভাব রয়েছে। এর ফলে, শিশুরা পানিবাহিত রোগে আক্রান্ত হওয়ার চরম ঝুঁকিতে রয়েছে। এসব চরম দারিদ্রপীড়িত শিশুদের রক্ষা করার দায়িত্ব আমাদের।”

সংস্থাটির ত্রাণ সামগ্রীর মধ্যে রয়েছে সাবান, গুঁড়া সাবান, পানি বহন করার জন্যে জগ ও কলসি, ন্যাপকিন, স্যানিটারি ন্যাপকিন, তোয়ালে এবং স্যান্ডেল।

বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গা শিশুদের জন্যে জরুরী ত্রাণ সামগ্রী পাঠানোর প্রথম ধাপে এই সামগ্রীগুলো পাঠানো হচ্ছে বলে জানান বেইগবেদার।

শরণার্থী শিবিরগুলোতে পানি বিশুদ্ধকরণের কাজে জনস্বাস্থ্য বিভাগকে সহায়তা দিচ্ছে ইউনিসেফ। এছাড়াও, নতুন টিউবওয়েল বসানো এবং পুরনো টিউবওয়েল সংস্কার করতে সহযোগী প্রতিষ্ঠানগুলোর সঙ্গেও কাজ করে যাচ্ছে সংস্থাটি।

আগামী চার মাসে রোহিঙ্গা শিশুদের জন্যে জরুরী সাহায্য হিসেবে ৭.৩ মিলিয়ন ডলারের আবেদন জানিয়েছে ইউনিসেফ।

Comments

The Daily Star  | English
red meat dishes of Bangladesh

Red Meat Roadmap of Bangladesh

Here are some of the most popular and unique red meat dishes that Bangladesh has to offer

3h ago