রামপাল প্রকল্পের নির্মাণ কাজ চলবে: তৌফিক-ই-ইলাহী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের উপদেষ্টা তৌফিক-ই-ইলাহী চৌধুরী বলেন, সরকার ইউনেস্কোর সাম্প্রতিক প্রতিবেদনের ওপর ভিত্তি করেই বিশ্ব ঐতিহ্য সুন্দরবনের কাছে বহুল আলোচিত রামপাল বিদ্যুৎ কেন্দ্রের নির্মাণ কাজ চালিয়ে যাবে।
rampal project
রামপাল বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণ প্রকল্প। ছবি: স্টার ফাইল ফটো

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের উপদেষ্টা তৌফিক-ই-ইলাহী চৌধুরী বলেন, সরকার ইউনেস্কোর সাম্প্রতিক প্রতিবেদনের ওপর ভিত্তি করেই বিশ্ব ঐতিহ্য সুন্দরবনের কাছে বহুল আলোচিত রামপাল বিদ্যুৎ কেন্দ্রের নির্মাণ কাজ চালিয়ে যাবে।

আজ (৩১ জুলাই) রাজধানীর বিদ্যুৎ ভবনে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, “ইউনেস্কোর সাম্প্রতিক প্রতিবেদনে বলা হয় রামপাল বিদ্যুৎ কেন্দ্রের নির্মাণ কাজ চলবে। পরিবেশগত পর্যালোচনার ওপর ভিত্তি করে পরিবেশগত ক্ষতি কমিয়ে আনার ব্যবস্থা করা হবে।”

গতকাল ইউনেস্কোর ওয়েবসাইটে জানানো হয় সুন্দরবনের কাছে কোন বড় ধরণের শিল্প বা অবকাঠামো করা উচিত হবে না।

উল্লেখ্য, এ মাসের প্রথম দিকে পোল্যান্ডে অনুষ্ঠিত ৪১তম বিশ্ব ঐতিহ্য কমিটির বৈঠকে বাংলাদেশকে এর দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে কৌশলগত পরিবেশগত প্রভাব সমীক্ষা (স্ট্র্যাটেজিক এনভায়রনমেন্টাল অ্যাসেসমেন্ট - এসইএ) চালিয়ে এর প্রতিবেদনটি বিশ্ব ঐতিহ্য কেন্দ্রে দ্রুত পৌঁছে দেওয়া কথা বলা হয়।

এদিকে, বৈঠকে অংশ নেওয়া বাংলাদেশ প্রতিনিধি দলের বক্তব্যের সঙ্গে ইউনেস্কোর সিদ্ধান্তে অমিল দেখা যায়।

গত ৯ জুলাই তৌফিক-ই-ইলাহী চৌধুরী বলেন, ইউনেস্কোর অনুরোধ অনুযায়ী বাংলাদেশ এসইএ সমীক্ষা চালাবে এবং একই সঙ্গে সরকার রামপাল বিদ্যুৎ কেন্দ্রের নির্মাণ কাজ চালিয়ে যাবে।

কিন্তু বাস্তবতা হলো, বিদ্যুৎ কেন্দ্রের নির্মাণ শুরু করার আগে ইউনেস্কো সুন্দরবন রক্ষায় এর সুপারিশমালা বাস্তবায়ন করতে বাংলাদেশকে ২০১৮ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত সময় দিয়েছে।

Click here to read the English version of this news

Comments

The Daily Star  | English

Personal data up for sale online!

Some government employees are selling citizens’ NID card and phone call details through hundreds of Facebook, Telegram, and WhatsApp groups, the National Telecommunication Monitoring Centre has found.

7h ago