নাটকে অভিনয় করব না বলাতে হুমায়ূন আহমেদ রাগ করেছিলেন: আবুল হায়াত

প্রয়াণ দিবসে হুমায়ূন আহমেদকে নিয়ে কথা বলেছেন একুশে পদকপ্রাপ্ত গুণী অভিনেতা আবুল হায়াত।
আবুল হায়াত
বরেণ্য অভিনয়শিল্পী ও নাট্যকার আবুল হায়াত। ছবি: শেখ মেহেদী মোরশেদ

নন্দিত কথাসাহিত্যিক ও বরেণ্য নির্মাতা হুমায়ূন আহমেদের প্রয়াণ দিবস আজ। তার রচনা ও পরিচালনায় অসংখ্য নাটক, চলচ্চিত্রে  অভিনয় করেছেন আবুল হায়াত। দুজনের মধ্যে পারিবারিক একটা সম্পর্ক ছিল।

প্রয়াণ দিবসে হুমায়ূন আহমেদকে নিয়ে কথা বলেছেন একুশে পদকপ্রাপ্ত গুণী অভিনেতা আবুল হায়াত।

আবুল হায়াত বলেন, 'হুমায়ূন আহমেদের প্রথম লেখা নাটকের নাম ছিল প্রথম প্রহর। নাটকটির প্রযোজক ছিলেন নওয়াজীশ আলী খান। সেই নাটকে আমি অভিনয় করেছিলাম। তখনো তার সঙ্গে আমার পরিচয় ছিল না। ‍শুটিং স্পটে তাকে প্রথম দেখি।'

'দেখতে কিছুটা শুকনা ছিলেন। গায়ের রং ফর্সা। ৩ কন্যা ও স্ত্রীকে নিয়ে সেদিন শুটিং দেখতে এসেছিলেন। প্রথম দিনই লক্ষ্য করি তিনি কথা কম বলেন। খুব প্রয়োজন ছাড়া কথাই বলেন না। শুধুমাত্র নওয়াজীশ আলী খানের সঙ্গে টুকটাক দরকারি কথা বলেন।

'তারও আগে হুমায়ুন আহমেদের নাম শুনি আমি। কেননা, তার লেখা নন্দিত নরকে গল্প অবলম্বনে আল মনসুর একটি নাটকের নাট্যরূপ দিয়েছিলেন। সেখানেও আমি অভিনয় করেছিলাম। তখন তিনি আমেরিকায় পড়ালেখা করতে গেছেন। দেশে তার লেখক হিসেবে নামডাক হয়ে গেছে,' বলেন তিনি।

আবুল হায়াত আরও বলেন, 'তারপর প্রথম প্রহর নাটকে অভিনয় করার পর এক এক করে তার নাটক লেখা বাড়তে লাগল। আমিও অভিনয় করতে লাগলাম। তিনি ধারাবাহিক নাটক লেখা শুরু করলেন। আমিও সেসব নাটকে অভিনয় করতে লাগলাম। একসময় হুমায়ুন আহমেদ আমাকে কেন্দ্র করে চরিত্র লিখতেন। স্ক্রিপ্টের ওপর লিখে দিতেন আমার নাম। ধীরে ধীরে আরো ঘনিষ্ঠতা বাড়তে থাকে। সম্পর্কটা একসময় পারিবারিক হয়ে যায়।'

'অয়োময়, বহুব্রিহী, আজ রবিবার, নক্ষত্রের রাত….জনপ্রিয় ধারাবাহিকগুলোতে আমি অভিনয় করি। আমাকে তিনি খুব পছন্দ করতেন। আমার অভিনয়ও ভালোবাসতেন। আমিও তাকে খুব পছন্দ করতাম। পরে  এসে চলচ্চিত্র নির্মাণে হাত দিলেন। আগুণের পরশমণির মতো মুক্তিযুদ্বের অসাধারণ সিনেমায় আমি অভিনয় করি,' বলেন তিনি।

হুমায়ূন আহমেদের সঙ্গে মনোমালিন্যের কথাও বলেছেন আবুল হায়াত, 'সত্যি কথা বলতে হুমায়ুন আহমেদ ছিলেন অসম্ভব শক্তিমান নাট্যকার, চলচ্চিত্র, লেখক। সবগুলো মাধ্যমেই তার ছিল বিচরণ। দীর্ঘদিন একসঙ্গে কাজ করতে গিয়ে টুকটাক মনোমানিল্য যে হয়নি তা কিন্তু নয়। একবার একটি নাটকে অভিনয় করব না বলে দিয়েছিলাম। তিনি একটু রাগ করেছিলেন। স্ক্রিপ্ট পড়ার পর চরিত্রটি নিয়ে একটু দ্বিধায় ছিলাম। তারপর না করে দিয়েছিলাম।'

'তিনি কিছুটা রাগ করলেন। কিন্তু সেই রাগ বেশিদিন ছিল না। তারপর আবারও একসঙ্গে কাজ করি আমরা। তার প্রয়াণ দিবসে ভালোবাসা রইল। যেখানে আছেন ভালো থাকুন,' আবুল হায়াত বলেন।

Comments

The Daily Star  | English

Personal data up for sale online!

Some government employees are selling citizens’ NID card and phone call details through hundreds of Facebook, Telegram, and WhatsApp groups, the National Telecommunication Monitoring Centre has found.

7h ago