খেলা

ঐতিহ্যের ঘণ্টায় শুরু হবে সিলেটের অভিজাত পথচলা

চারপাশে চা বাগান, উঁচুনিচু টিলা। সবুজের সমারোহের মাঝেই নয়নাভিরাম মাঠ। আছে ব্রিটিশ স্থাপত্যের আদলে তৈরি করা দৃষ্টিনন্দন ভবন, গ্রিন গ্যালারি। সব মিলিয়ে সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ঢুকলেই যে কারো চোখ জুড়িয়ে যায়। দেশের বাদবাকি ভেন্যুর চেয়ে সিলেট যেন একটু আলাদা। অষ্টম টেস্ট ভেন্যু হিসেবে অভিষেকও একটু আলাদা ছাপ রাখতে নেওয়া হয়েছে বিশেষ উদ্যোগ। লর্ডসের ঐতিহ্যবাহী ‘দ্য ফাইভ মিনিট বেল’ বাজিয়ে শুরু হবে সিলেটের অভিষেক টেস্ট।
The Five Minute Bell
সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বসানো হয়েছে 'দ্য ফাইভ মিনিট বেল' বা টেস্টের ঘন্টা। ছবি: ফিরোজ আহমেদ

চারপাশে চা বাগান, উঁচুনিচু টিলা। সবুজের সমারোহের মাঝেই নয়নাভিরাম মাঠ। আছে ব্রিটিশ স্থাপত্যের আদলে তৈরি করা দৃষ্টিনন্দন ভবন, গ্রিন গ্যালারি। সব মিলিয়ে সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ঢুকলেই যে কারো চোখ জুড়িয়ে যায়। দেশের বাদবাকি ভেন্যুর চেয়ে সিলেট যেন একটু আলাদা। অষ্টম টেস্ট ভেন্যু হিসেবে অভিষেকও একটু আলাদা ছাপ রাখতে নেওয়া হয়েছে বিশেষ উদ্যোগ। লর্ডসের ঐতিহ্যবাহী ‘দ্য ফাইভ মিনিট বেল’ বাজিয়ে শুরু হবে সিলেটের অভিষেক টেস্ট।

বুধবার স্থানীয় একটি হোটেলে বিসিবি পরিচালক শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল তুলে ধরেন আয়োজনের বিস্তারিত। এরমধ্যে সবচেয়ে আকর্ষণীয় হিসেবে থাকছে ‘দ্য ফাইভ মিনিট বেল’।

২০০৭ সালে সর্বপ্রথম ক্রিকেটের তীর্থস্থান লর্ডসে শুরু হয় ঘন্টা বাজিয়ে টেস্ট শুরুর ঐতিহ্য। ‘দ্য ফাইভ মিনিট বেল’ নামে পরিচিত এই ঘন্টা প্রতিদিন খেলা শুরুর পাঁচ মিনিট আগে বাজানো হয়। এরপর থেকে লর্ডসে প্রথা মেনেই টেস্ট শুরু আগে বাজানো হচ্ছে এই ঘন্টা। আর তা বাজানো সম্মান পেয়েছেন বিভিন্ন দেশের সাবেক নামকরা ক্রিকেটাররা। ২০১২ সালে অবশ্য অন্য খেলা থেকে এই বেল বাজানোর সম্মান দেওয়া হয় স্প্রিন্টার ইয়োহান ব্লেককে। 

২০১৬ সালে কলকাতার ইডেন গার্ডেনেও সেই ঐতিহ্য ধরে ঘন্টা বাজিয়ে টেস্ট শুরুর উদ্যোগ নেন ক্রিকেট অ্যাসোশিয়েশন অব বেঙ্গলের প্রধান সৌরভ গাঙ্গুলী।  লর্ডস ও ইডেনের মতো আভিজাত্যের এই ঘন্টা তাই বাজবে সিলেটেও। 

বিসিবি পরিচালক শফিউল আলম নাদেল জানেন ঐতিহ্যের কাছে ফিরতেই তাদের এমন আয়োজন, ‘টেস্ট ক্রিকেটের জন্য ঐতিহ্য হলো একটা বেল রাখা হয়। এখন অনেক জায়গায় ইলেক্ট্রনিক্স বেলও রাখা হয়। বা অন্যভাবেও ব্যবস্থা করা হয়। তো আমরা চিরায়ত ঐতিহ্যের কাছেই ফিরে যেতে চাই। সেকারণেই আমরা একটা বেল স্থাপন করব। যেটা আমরা ঢাকা থেকে নিয়ে এসেছি। যে বেল বাজানোর মধ্য দিয়ে টেস্ট ম্যাচটির ম্যাচ রেফারি তার খেলার প্রক্রিয়া শুরু করবেন।’

কেবল ঘন্টাই নয়। সিলেটের অভিষেক টেস্ট ঘিরে থাকছে আরও অনেক কিছু। বিশেষ মুদ্রা দিয়ে টস করবেন দুদলের অধিনায়ক। বের করা হচ্ছে ‘গ্লিম্পস অব সিলেট’ নামে একটি প্রকাশনাও। টেস্ট শুরুর দিন সকালেই যার মোড়ক উন্মোচন করবেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান। সিলেট বিভাগ থেকে বাংলাদেশের হয়ে টেস্ট খেলা সাবেক ক্রিকেটারদের আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে অভিষেক টেস্টের দিন। তাদের হাতে তুলে দেওয়া হবে সম্মাননা স্মারক। এছাড়াও অংশ নেওয়া দুদলকে দেওয়া হবে স্মারক উপহার। স্মারক উপহার পাবেন ম্যাচ কাভার করতে আসা সাংবাদিকরাও।

 

Comments

The Daily Star  | English

Personal data up for sale online!

Some government employees are selling citizens’ NID card and phone call details through hundreds of Facebook, Telegram, and WhatsApp groups, the National Telecommunication Monitoring Centre has found.

7h ago