জহুরুলের ব্যাটে আবাহনীর কাছে পাত্তাই পেল না মোহামেডান

রকিবুল হাসান, ইরফান শুক্কুরের ফিফটিতে মাঝারি সংগ্রহ পেয়েছিল মোহামেডান। আবাহনীর শক্তিশালী ব্যাটিং লাইনআপ ওই রান তুলেছে অনায়াসে। দলকে জেতাতে সবচেয়ে বড় অবদান ওপেনার জহুরুল ইসলাম অমির।
Jahurul Islam
ফাইল ছবি: ফিরোজ আহমেদ

রকিবুল হাসান, ইরফান শুক্কুরের ফিফটিতে মাঝারি সংগ্রহ পেয়েছিল মোহামেডান। আবাহনীর শক্তিশালী ব্যাটিং লাইনআপ ওই রান তুলেছে অনায়াসে। দলকে জেতাতে সবচেয়ে বড় অবদান ওপেনার জহুরুল ইসলাম অমির। 

আবাহনী-মোহামেডান ম্যাচ নিয়ে উত্তাপ অনেক আগেই নিভে গেছে। দর্শকদের আগ্রহ কমলেও মাঠের লড়াইয়ে তাও হতো উত্তেজনা। কিন্তু গেলবারের মতো এবারও মাঠের লড়াইও হয়েছে একপেশে। সোমবার মিরপুর শেরে বাংলা ক্রিকেট স্টেডিয়ামে মোহামেডানের করা ২৪৮ রান ১৫ বল হাতে রেখে  ৬ উইকেটে জিতেছে আবাহনী।

এই নিয়ে ছয় ম্যাচের মধ্যেই পাঁচটাই জিতে শীর্ষে রইল আবাহনী। আর মোহামেডান দেখল টানা তিন হার।  

২৪৯ রানের লক্ষ্যে নেমে দুই ওপেনার জহুরুল আর সৌম্য সরকার দলকে পাইয়ে দেন দারুণ শুরু। ২০তম ওভারে দলের ১০৫ রানে গিয়ে ভাঙে সে জুটি। ৫৪ বলে ৫ চার আর ১ ছক্কায় ৪৩ করা সৌম্যকে বোল্ড করে ফেরান শাহাদাত হোসেন।

ভারতীয় ওয়াসিম জাফরকে নিয়ে এরপর দ্বিতীয় উইকেটে ৬৯ রানে আরেক জুটিতে মোহামেডানের সম্ভাবনা একদম মিইয়ে দেন জহুরুল। ৩৮ রান করা জাফরকে শফিউল আউট করলেও জহুরুল এগুচ্ছিলেন সেঞ্চুরির দিকে। ১৩১ বলে ঠান্ডা মাথায় খেলা তার ৯৬ রানের ইনিংস শেষ হয়েছে শাহাদাতের বলে বোল্ড হয়ে। 

সকালে টসে জিতে মোহামেডানকে ব্যাট করতে পাঠায় আবাহনী। এই ম্যাচ দিয়েই নিউজিল্যান্ড সফর পরে মাঠে ফেরা লিটন দাস আব্দুল মজিদকে নিয়ে সাবধানী শুরু করেন। উঁচুনিচু বাউন্স আর মন্থর উইকেটে বেশ জড়োসড়ো হয়ে থাকেন তারা। ১৩তম ওভারে গিয়ে ভাঙে তাদের ৪০ রানের উদ্বোধনী জুটি। নাজমুল ইসলাম অপুর বলে ২৭ রান করে ফেরেন লিটন।

আরেক ওপেনার মজিদ আরও কিছুক্ষণ টিকলেও তিনি ছিলেন বেশ শ্লথ। তৃতীয় উইকেটে মোহামেডান প্রায় পায় শুক্কুর আর রকিবুলের ব্যাটে। দুজনেই দলকে টেনে নিয়ে যাচ্ছিলেন লড়াইয়ের দিকে। ৫৭ রান করা শুক্কুরকে বোল্ড করে ৬৮ রানের সে জুটি ভাঙেন মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন। ফিফটির পর থামেন রকিবুলও। 

শেষ দিকে চতুরঙ্গ ডি সিলভা ২৪ বলে ৩২ আর সোহাগ গাজী ২০ বলে ২৭ করলে আড়াইশ কাছে যেতে পারে মোহামেডান। এই দুজনের আউটের পর আট নম্বরে ব্যাট করার সুযোগ পাওয়া আশরাফুল কার্যকর স্লগ করতে পারেননি। মোহামেডানও পারেনি আর বেশি আগাতে। 

সংক্ষিপ্ত স্কোর: 

মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব:
৫০ ওভারে ২৪৮/৭ (লিটন ২৭, ,মজিদ ২৬, শুক্কুর ৫৭, রকিবুল ৫১, নাদীফ ৭, চতুরঙ্গ ৩২, সোহাগ ২৭, আশরাফুল ৪*, আলাউদ্দিন ২*  ; মাশরাফি ০/৫১, সাইফুদ্দিন ৩/৩১, রুবেল ০/৭১, নাজমুল ৩/২৯, সৌম্য ০/১০, মোসাদ্দেক ১/২৭, সানজামুল ০/২৩)

আবাহনী লিমিটেড:  ৪৭.৩ ওভারে ২৫৪/৪  (জহুরুল ৯৬, সৌম্য ৪৩, জাফর ৩৮, শান্ত ১৬, মোসাদ্দেক ১৮* , সাব্বির ২১*; শফিউল ১/৫৪ , আশরাফুল ০/২১, সোহাগ ০/৫১, শাহাদাত ২/৫৯, চতুরঙ্গ ১/২৭, আলাউদ্দিন ০/২৭, মজিদ ০/৭)

ফল: আবাহনী লিমিটেড ৬ উইকেটে জয়ী। 

ম্যান অব দ্য ম্যাচ: জহুরুল ইসলাম অমি। 

Comments

The Daily Star  | English

Foreign airlines’ $323m stuck in Bangladesh

The amount of foreign airlines’ money stuck in Bangladesh has increased to $323 million from $214 million in less than a year, according to the International Air Transport Association (IATA).

11h ago