বিশ্বকাপ দলে থাকার আভাস পাচ্ছেন মোসাদ্দেক

অনেক প্রতিশ্রুতি নিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে পা পড়েছিল মোসাদ্দেক হোসেনের। মিডল অর্ডারে ভরসা হতে পারেন আবার ছয়-সাতে নেমেও করতে পারেন ফিনিশিংয়ের কাজ। এই সামর্থ্যে তার মধ্যে সেরাদের একজন হওয়ারই ইঙ্গিত ছিল। কিন্তু চোখের ইনফেকশন আর ব্যক্তিগত ঝামেলায় আঁধার নামে তার পথচলায়। এশিয়া কাপে দলে ফিরলেও ছিলেন বিবর্ণ। আবারও জাতীয় দলে ফেরার আশা তার অনেকটা মিইয়েই গিয়েছিল। তবে এবার ঘরোয়া ক্রিকেটের ফর্ম আর টিম ম্যানেজমেন্টের হাবভাব টের পেয়ে বিশ্বকাপে বড় আশা দেখছেন তিনি।
Mosaddek Hossain
ছবি: বিসিবি

অনেক প্রতিশ্রুতি নিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে পা পড়েছিল মোসাদ্দেক হোসেনের। মিডল অর্ডারে ভরসা হতে পারেন আবার ছয়-সাতে নেমেও করতে পারেন ফিনিশিংয়ের কাজ। এই সামর্থ্যে তার মধ্যে সেরাদের একজন হওয়ারই ইঙ্গিত ছিল। কিন্তু চোখের ইনফেকশন আর ব্যক্তিগত ঝামেলায় আঁধার নামে তার পথচলায়। এশিয়া কাপে দলে ফিরলেও ছিলেন বিবর্ণ। আবারও জাতীয় দলে ফেরার আশা তার অনেকটা মিইয়েই গিয়েছিল। তবে এবার ঘরোয়া ক্রিকেটের ফর্ম আর টিম ম্যানেজমেন্টের হাবভাব টের পেয়ে বিশ্বকাপে বড় আশা দেখছেন তিনি।

মোসাদ্দেক সর্বশেষ ওয়ানডে খেলেছেন সেই সেপ্টেম্বরে। এশিয়া কাপে ভারতের বিপক্ষে ওই ম্যাচে তার শরীরী ভাষা ছিল ভীষণ দৃষ্টিকটু। ধুঁকে ধুঁকে ৪৩ বল খেলে করতে পেরেছিলেন মাত্র ১২ রান। অনুমিতভাবেই এরপর বাদ পড়েন।

ঘরের মাঠে জিম্বাবুয়ে সিরিজে সাকিব আল হাসান, তামিম ইকবাল না থাকলেও তার ডাক পড়েনি। ডাক পাননি উইন্ডিজ সিরিজ আর নিউজিল্যান্ড সফরেও। এখন বিশ্বকাপের আগে ফের আলোচনায় তার নাম। এই সময়ে নিজেকে প্রমাণ করার জন্য বিপিএলে খুব একটা ঝলক দেখাতে পারেননি। তবে চলমান ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে ব্যাটে-বলে মোসাদ্দেকের কাছ থেকে আসছে জুতসই নৈপুণ্য। এখন পর্যন্ত ৮ ম্যাচে ৪০.৭১ গড়ে করেছেন ২৮৫ রান। অফ স্পিনে ২০.২৮ গড়ে নিয়েছেন ৭ উইকেট।

এতেই বিশ্বকাপ দলে জায়গা পাওয়ার দাবিদার হওয়ার কারণ অবশ্য টিম কম্বিনেশন। ১৫ জনের বিশ্বকাপ দলে বাড়তি একজন ব্যাটিং অলরাউন্ডার নিয়ে গেলে সেখানে নিজেকে দেখার নাকি আভাস দেখছেন তিনি,  ‘এটা আসলে আমার জন্য অনুপ্রেরণাদায়ক (আলোচনায় থাকা), এখন একটা আভাস পাচ্ছি (বিশ্বকাপ দলে থাকার)। তখনই সত্যি হবে যখন এটা পুরোপুরি ঘোষণা করা হবে। ’

 ‘ঘোষণা হলেও আমার কাজ হচ্ছে পারফর্ম করা। আমি প্রিমিয়ার লীগ খেলছি, আমার কাজ হচ্ছে পারফর্ম করে যাওয়া। বাকিটা আল্লাহ ভরসা। আমি নিজেও জানি না কি হবে। তবে এটা খুবই অনুপ্রেরণার বিষয়, উনাদের নজরে আমি আছি।’

এবার প্রিমিয়ার লিগে আবাহনীর অধিনায়কত্ব করছেন মোসাদ্দেক। যে দলে আছেন ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি মর্তুজা। কদিন আগেই যিনি বিশ্বকাপের জন্য মনস্তাত্ত্বিক প্রস্তুতির উপর জোর দিতে বলেছিলেন। মোসাদ্দেকও অধিনায়কত্বের মন বুঝে এখনি সেই তালেই নিজেকে তৈরির চিন্তা করছেন,  ‘আসলে এখানে স্কিলের প্রস্তুতির চেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ মনস্তাত্ত্বিক প্রস্তুতি। আমি যদি মানসিকভাবে ঠিক থাকি... আমার মোটামুটি একটা ধারনা আছে সেখানে (ইংল্যান্ডে) কন্ডিশন কি রকম হবে। আমি ওটার ওপর ফোকাস করেই এখানে কিছু প্র্যাকটিসের চেষ্টা করছি।’

 

Comments

The Daily Star  | English

Inadequate Fire Safety Measures: 3 out of 4 city markets risky

Three in four markets and shopping arcades in Dhaka city lack proper fire safety measures, according to a Fire Service and Civil Defence inspection report.

8h ago