পক্ষপাতিত্বের অভিযোগ

সরানো হল কলকাতা পুলিশ কমিশনারকে

কলকাতার পুলিশ কমিশনার অনুজ শর্মাকে সরিয়ে দিল নির্বাচন কমিশন। তার বদলে কলকাতার পুলিশ কমিশনার হলেন রাজেশ কুমার। একইসঙ্গে রাজ্যের আরও কয়েকজন ইন্ডিয়ান পুলিশ সার্ভিসের (আইপিএস) কর্মকর্তাকে বদলি করার নির্দেশ জারি করেছে নির্বাচন কমিশন।
Anuj Sharma
অনুজ শর্মা। ছবি: কলকাতা পুলিশের টুইটার থেকে নেওয়া

কলকাতার পুলিশ কমিশনার অনুজ শর্মাকে সরিয়ে দিল নির্বাচন কমিশন। তার বদলে কলকাতার পুলিশ কমিশনার হলেন রাজেশ কুমার। একইসঙ্গে রাজ্যের আরও কয়েকজন ইন্ডিয়ান পুলিশ সার্ভিসের (আইপিএস) কর্মকর্তাকে বদলি করার নির্দেশ জারি করেছে নির্বাচন কমিশন।

কমিশনের নোটিশ থেকে জানা গেছে, বিধাননগরের পুলিশ কমিশনার জ্ঞানবন্ত সিংকে সরানো হয়েছে। তার জায়গায় বিধাননগর পুলিশের কমিশনার হিসেবে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে নটরাজন রমেশকে।

কলকাতার পুলিশ কমিশনার ও বিধাননগরের কমিশনারের বিরুদ্ধে পক্ষপাতিত্বের অভিযোগ তুলেছিলেন বিজেপি, সিপিএম এবং কংগ্রেস নেতৃত্ব। সেই সব অভিযোগ খতিয়ে দেখে কমিশন এই ব্যবস্থা নিয়েছে বলে দায়িত্বশীল সূত্র নিশ্চিত করেছে। সূত্র বলছে, সরানো হতে পারে প্রশাসনের বেশ কয়েকজন শীর্ষস্থানীয় কর্মকর্তাকেও।

প্রথম দফার এই নির্দেশনায় সরানো হয়েছে বীরভূমের পুলিশ সুপার ও ডায়মন্ড হারবার পুলিশ জেলার সুপারকেও। বীরভূমের নতুন পুলিশ সুপার হয়েছেন আভান্নু রবীন্দ্রনাথ। আর ডায়মন্ড হারবার পুলিশ জেলার সুপার করা হয়েছে শ্রীহরি পান্ডেকে। যে সকল অফিসারকে পদ থেকে সরানো হল, তাদের নির্বাচনের কোনও কাজের সঙ্গে যুক্ত করা যাবে না বলেও কমিশনের নোটিশে বলা হয়।

কলকাতার পুলিশ কমিশনার হিসাবে মাত্র দেড় মাস আগে দায়িত্ব নিয়েছিলেন অনুজ শর্মা। এর আগে সেখানে ছিলেন রাজীব কুমার। সম্প্রতি রাজীব কুমারের বাড়িতে সিবিআই তল্লাশি চালানোর সময় মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি প্রতিবাদ করেন এবং এর প্রতিবাদে অনশনেও বসেন মমতা। রাজীব কুমারের বিরুদ্ধে সারদা কাণ্ডের ফাইল লোপাটের অভিযোগ তুলে এসেছেন বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলো। সিবিআইয়ের একটি মামলায় তাকে দফায় দফায় জেরাও করা হচ্ছে। সেই বাস্তবতায় মমতার প্রশাসন তাকে সরিয়ে দিয়ে সেখানে অনুজ কুমারকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

কিন্তু, অনুজ কুমারের বিরুদ্ধেও মমতা ঘনিষ্ঠতার অভিযোগ রয়েছে। ওই কর্মকর্তাকেও মমতার অনশন মঞ্চে উপস্থিত হতে দেখা গেছে।

Comments

The Daily Star  | English
Bangladesh yet to benefit from GI-certified products

Bangladesh yet to benefit from GI-certified products

Bangladesh is yet to derive any benefit from the products granted the status of geographical indication (GI) due to a lack of initiatives from stakeholders although the recognition enhances the reputation of goods, builds consumer confidence and brings in higher prices.

6h ago