রূপগঞ্জকে হারিয়ে লিগ জমিয়ে দিল শেখ জামাল

বর্তমান চ্যাম্পিয়ন আবাহনীর চেয়ে ৪ পয়েন্ট এগিয়ে গিয়েছিল লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জ। তাই শিরোপা অনেক কাছেই মনে হচ্ছিল দলটির জন্য। কিন্তু এদিন শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাবের কাছে হেরে গেছে তারা। ফলে শিরোপা স্বপ্ন অনেকটাই কঠিন হয়ে উঠল তাদের জন্য। রূপগঞ্জকে ৬ উইকেটে হারিয়েছে নুরুল হাসান সোহানের দল।
ফাইল ছবি

বর্তমান চ্যাম্পিয়ন আবাহনীর চেয়ে ৪ পয়েন্ট এগিয়ে গিয়েছিল লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জ। তাই শিরোপা অনেক কাছেই মনে হচ্ছিল দলটির জন্য। কিন্তু এদিন শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাবের কাছে হেরে গেছে তারা। ফলে শিরোপা স্বপ্ন অনেকটাই কঠিন হয়ে উঠল তাদের জন্য। রূপগঞ্জকে ৬ উইকেটে হারিয়েছে নুরুল হাসান সোহানের দল।

ফতুল্লার খান সাহেব ওসমান আলি স্টেডিয়ামে এদিন বোলারদের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে বড় লক্ষ্য দিতে পারেনি রূপগঞ্জ। অথচ টস জিতে ব্যাট করতে নেমেছিল দলটি। মোহাম্মদ নাঈম ছাড়া আর কন ব্যাটসম্যানই দায়িত্ব নিতে পারেননি। উইকেটে সেট হয়েও ইনিংস লম্বা করতে পারেননি মিডল অর্ডারের কোন ব্যাটসম্যান। ফলে ৪৯.৩ ওভারে সবকটি উইকেট হারিয়ে ১৭১ রান সংগ্রহ করতে পারে তালিকার শীর্ষে থাকা দলটি।

দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৫৮ রান করেন মোহাম্মদ নাঈম। ১১২ বল মোকাবেলা ২টি চারের সাহায্যে এ রান করেন তিনি। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২৩ রান করেন ভারতীয় রিক্রুট রিশি ধাওয়ান। দারুণ বোলিং করে ৩১ রানের খরচায় ৪টি উইকেট নেন সৈয়দ খালেদ আহমেদ। তাইজুল নেন ২টি উইকেট।

জবাবে শুরুটা ভালো হয়নি শেখ জামালের। দলীয় ৪৩ রানেই টপ অর্ডারের ৩টি উইকেট হারিয়ে চাপে পরে তারা। চতুর্থ উইকেটে অধিনায়ক নুরুল হাসান সোহানের সঙ্গে ৫১ রানের জুটি গড়েন ওপেনার ইলিয়াস সানি। এরপর দ্রুত এ দুই উইকেট হারালেও তানবির হায়দারের দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে শেষ পর্যন্ত জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ে দলটি।

দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৫৮ রানের ইনিংস খেলেন ইলিয়াস। ৯৯ বলে ৪টি চার ও ১তি ছক্কায় এ রান করেন তিনি। ৫৩ বলে অপরাজিত ৪৩ রান করেন তানবির। এছাড়া অধিনায়ক সোহানের ব্যাট থেকে আসে ২৯ রান। রূপগঞ্জের পক্ষে ২৭ রানের খরচায় ৩টি উইকেট পান নাবিল সামাদ। এছাড়া রিশি ধাওয়ান পান ২টি উইকেট।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জ: ৪৯.৩ ওভারে ১৭১ (মারুফ ২, মোহাম্মদ নাঈম ৫৮, মুমিনুল ১৫, নাফীস ১০, নাঈম ইসলাম ১৯, ধাওয়ান ২৩, জাকের ১৭, মুক্তার ১৫, শহীদ ১, শুভাশিস ৪, নাবিল ০; খালেদ ৪/৩১, নাসির ১/১৬, এনামুল ১/৩৩, মুনাবিরা ০/১৪, ইলিয়াস ১/২৭, শাকিল ১/৩৩, তাইজুল ২/১৬)।

শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব: ৪৮.৩ ওভারে ১৭২/৬ (ইমতিয়াজ ৫, ইলিয়াস ৫৮, মুনাবিরা ২, নাসির ৪, সোহান ২৯, তানবির ৪৩*, জিয়াউর ১০, তাইজুল ১৩*; শুভাশিস ০/৩৯, নাবিল ৩/২৭, শহীদ ১/২৬, নাঈম ইসলাম ০/২৫, মুমিনুল ০/১৮, ধাওয়ান ২/৩৩)।

ফলাফল: শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব ৪ উইকেটে জয়ী।

ম্যান অব দ্য ম্যাচ: ইলিয়াস সানি (শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব)।  

Comments

The Daily Star  | English
Prime Minister Sheikh Hasina

Clamp down on illegal hoarding during Ramadan, PM tells DCs

Prime Minister Sheikh Hasina today asked field-level administration to take stern action against illegal hoarders and ensure smooth supply of essentials to consumers during the upcoming month of Ramadan

18m ago