সর্বোচ্চ রান সাইফের, উইকেট রেজার

ঢাকা প্রিমিয়ার ক্রিকেট লিগে এবারই প্রথম দুই ব্যাটসম্যান ছাড়িয়েছেন আড়ইশ রানের ঘর। এর আগে গড়া লিটন দাসের সাড়ে সাতশ রানের রেকর্ড ডিঙিয়েছেন তিনজন। এদের মধ্যে ৮১৪ রান করে সবার উপরে প্রাইম দোলেশ্বরের সাইফ হাসান। সবচেয়ে বেশি উইকেটপ্রাপ্তিতেও আছেন দোলেশ্বরের আরেক ক্রিকেট। অভিজ্ঞ ফরহাদ রেজা নিয়েছেন সর্বাধিক ৩৮ উইকেট।
Saif Hasan
সেঞ্চুরির পর সাইফ হাসান। ফাইল ছবি: ফিরোজ আহমেদ

ঢাকা প্রিমিয়ার ক্রিকেট লিগে এবারই প্রথম দুই ব্যাটসম্যান ছাড়িয়েছেন আড়ইশ রানের ঘর। এর আগে গড়া লিটন দাসের সাড়ে সাতশ রানের রেকর্ড ডিঙিয়েছেন তিনজন। এদের মধ্যে  ৮১৪ রান করে সবার উপরে প্রাইম দোলেশ্বরের সাইফ হাসান। সবচেয়ে বেশি উইকেটপ্রাপ্তিতেও আছেন দোলেশ্বরের আরেক ক্রিকেট। অভিজ্ঞ ফরহাদ রেজা নিয়েছেন সর্বাধিক ৩৮ উইকেট।

মঙ্গলবার শেষ হয়েছে এবারের প্রিমিয়ার লিগ। এতে টানা দ্বিতীয়বারের মতো শিরোপা জিতেছে আবাহনী লিমিটেড। তবে সেরা পাঁচ উইকেট শিকারিদের মধ্যে নেই আবাহনীর কেউ। সবচেয়ে বেশি রান করা সেরা পাঁচ ব্যাটসম্যানের মধ্যে আছেন কেবল জহুরুল ইসলাম।

প্রাইম দোলেশ্বরের হয়ে ১৬ ম্যাচের সবগুলো খেলে ৬২.৬১ গড়ে ৮১৪ রান করে এক নম্বরে তরুণ সাইফ। সমান ম্যাচে লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জের হয়ে ৫৩.৮০ গড়ে মোহাম্মদ নাঈম করেছেন ৮০৭ রান। গড় কম হলেও স্ট্রাইক রেটে সাইফ থেকে এগিয়ে নাঈম। ৭৯.৩৩ স্ট্রাইকরেটে সাইফ রান তুললে ৯৪.৩৮ স্ট্রাইক রেটে আগ্রাসী মেজাজে রান উঠিয়েছেন নাঈম।

অভিজ্ঞ রকিবুল হাসানের স্ট্রাইকরেটও চোখ ধাঁধানো। ১৬ ম্যাচে ৯৬.০৬ স্ট্রাইকরেট আর ৬০.০৭ গড়ে ৭৮১ রান করেছেন রকিবুল।

এই তিনজনেই ছাড়িয়ে গেছেন লিটন দাসের আগের রেকর্ডকে। ‘লিস্ট-এ’ মর্যাদা পাওয়ার পর ২০১৭ সালে এক মৌসুমের ১৪ ম্যাচে আবাহনীর হয়ে ৭৫২ রান সর্বোচ্চ রানের রেকর্ড গড়েছিলেন লিটন। এবার সেই রেকর্ড কব্জায় গেল সাইফের।

সর্বোচ্চ রানে সেরা পাঁচে বাকি দুজন আবাহনীর জহুরুল ইসলাম ও ব্রাদার্সের ফজলে মাহমুদ রাব্বি। ১৫ ম্যাচে ৭৩৫ রান করেছেন জহুরুল। ১৩ ম্যাচে ৬০৩ রান ফজলে রাব্বির।

সর্বোচ্চ উইকেট ফরহাদ রেজার

বরাবরই ঘরোয়া ক্রিকেটে নৈপুণ্য দেখিয়ে আসা ফরহাদ রেজা এবার নিজেকে এনেছেন নতুন আলোয়। মিডিয়াম পেস বল করে ১৬ ম্যাচে তিনি নিয়েছেন ৩৮ উইকেট। ঈর্ষনীয় ১৬.৩৯ গড়ে ৩৮ উইকেট পেতে ওভারপ্রতি তিনি দিয়েছেন ৪.৫৩ রান করে।

 তার ৩৮ উইকেটের কাছাকাছিও যেতে পারেননি আর কেউ। এক ম্যাচ কম খেলে মোহাম্মদ শহীদ ২১.০৩ গড়ে নিয়েছেন ২৭ উইকেট। বিশ্বকাপ দলে থাকা পেসার মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন ১৩ ম্যাচে খেলেই ১৯.৮৪ গড়ে ২৫ উইকেট নিয়ে আছেন তিন নম্বরে।

সেরা পাঁচে বাকি দুই নাম একটু চমক জাগানিয়া। এবারই প্রিমিয়ার লিগে উঠে আবার অবনমন হয়ে যাওয়া বিকেএসপির বাঁহাতি স্পিনার হাসান মুরাদ স্পিনারদের মধ্যে নিয়েছেন সবচেয়ে বেশি উইকেট। ১৩ ম্যাচে ২২.১৮ গড়ে ২২ শিকার তার।

সেরা পাঁচের অপর নাম খেলাঘর সমাজ কল্যাণ সমিতির রবিউল হক। ১১ ম্যাচ খেলেই ২২.৭২ গড়ে ২২ উইকেট নিয়েছেন এই পেসার।

Comments

The Daily Star  | English

Step up efforts to prevent fire incidents: health minister

“Rajuk and the Public Works Ministry must adopt a proactive stance to ensure such a tragedy is never repeated," said Samanta Lal Sen

1h ago