রেকর্ড গড়া ম্যাচে আইরিশদের গুঁড়িয়ে দিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ

কাজটা করে দিয়েছিলেন ক্যারিবিয়ান দুই ওপেনারই। বিশ্ব রেকর্ড গড়া জুটিতে চড়েছিলেন রানের পাহাড়ে। ওই পাহাড় টপকাতে নেমে খুঁজেই পাওয়া যায়নি আইরিশদের।
ছবি: ক্রিকেট আয়ারল্যান্ড

কাজটা করে দিয়েছিলেন ক্যারিবিয়ান দুই ওপেনারই। বিশ্ব রেকর্ড গড়া জুটিতে চড়েছিলেন রানের পাহাড়ে। ওই পাহাড় টপকাতে নেমে খুঁজেই পাওয়া যায়নি আইরিশদের।

রোববার ক্লিনটর্ফ ওভালে ত্রিদেশীয় সিরিজের প্রথম ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজ জিতেছে ১৯৬ রানের বিশাল ব্যবধানে। আগে ব্যাট করে দুই ওপেনার শেই হোপ আর জন ক্যাম্পবেলের বিশ্বরেকর্ড গড়া উদ্বোধনী জুটিতেই উইন্ডিজ করে ফেলে ৩৬৫ রান। পরে ৩ উইকেটে  ৩৮১ রান করে আয়ারল্যান্ডকে দেয় পাহাড় ডিঙানোর চ্যালেঞ্জ। সে চ্যালেঞ্জে কখনই ম্যাচে না থেকে ১৮৫ রানে অলআউট হয় আইরিশরা।

আয়ারল্যান্ডকে গুঁড়িয়ে দিতে ৫১ রানে ৪ উইকেট নেন স্পিনার অ্যাশলে নার্স। দুই পেসার কেমার রোচ ২৮ রানে ২ আর শ্যানন গ্যাবব্রিয়েল ৪৪ রানে নেন ৩ উইকেট। আইরিশদের হয়ে কেবল লড়েছেন কেভিন ওব্রায়েন। ৭৭ বলে ৬৮ রান করেন তিনি।

এর আগে পুরোটা সময় তান্ডব চালিয়েছেন হোপ-ক্যাম্পবেল। টস হেরে ব্যাট করতে নেমে ক্যারিবিয়ান দুই ওপেনার শুরুটা করেছিলেন রয়েসয়ে। সময়ের সঙ্গেই দুজনের ব্যাট হয়ে উঠে উত্তাল। ব্যাটিং বান্ধব উইকেটে থিতু হওয়ার পর তাদের আর আটকানোর পথ পায়নি আইরিশরা।

একশ, দুইশো, আড়াইশ করে করে তিনশো ছাড়িয়ে যায় জুটি। তারা ছাড়িয়ে যান গত বছর জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে গড়া পাকিস্তানের ইমাম-উল হক আর ফখর জামানের ৩০৪ রানের জুটিকে। ওয়ানডেতে প্রথমবার দুই ওপেনারই করে ফেলেন দেড়শোর উপর রান। এক সময় মনে হচ্ছিল পুরো ৫০ ওভার ব্যাট করার অনন্য কীর্তিই বোধহয় গড়ে ফেলবেন তারা। তবে ৪৭.১ ওভারে গিয়ে ১৩৭ বলে ১৭৯ করা ক্যাম্পবেলের আউটে ভাঙে জুটি। হোপ ফেরেন ১৫২ বলে ১৭০ রান করে।

মঙ্গলবার পরের ম্যাচে জেসন হোল্ডাররা প্রতিপক্ষ হিসেবে পাচ্ছে বাংলাদেশকে। 

 

Comments

The Daily Star  | English