রিভিউ নিয়ে ঈদ আজ

ইদ না ঈদ। এই বানান নিয়ে বিতর্ক বেশ কিছুদিন যাবত চলে আসছিলো।আমি ঈদ নিয়েই খুশি। কিন্তু, গতকাল (৪ জুন) ঈদের চাঁদ দেখা নিয়ে তৈরি হয়েছিলো ধুম্রজাল। সন্ধ্যায় ধর্ম প্রতিমন্ত্রী ও জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভাপতি শেখ মো. আবদুল্লাহ সাংবাদিকদের জানিয়েছেন ১৪৪০ হিজরি সনের শাওয়াল মাসের চাঁদ দেশের কোথাও দেখা যায়নি। আগামী বৃহস্পতিবার (৫ জুন) সারাদেশে পবিত্র ঈদুল ফিতর উদযাপিত হবে।
ছবি: সংগৃহীত

ইদ না ঈদ। এই বানান নিয়ে বিতর্ক বেশ কিছুদিন যাবত চলে আসছিলো।আমি ঈদ নিয়েই খুশি। কিন্তু, গতকাল (৪ জুন) ঈদের চাঁদ দেখা নিয়ে তৈরি হয়েছিলো ধুম্রজাল। সন্ধ্যায় ধর্ম প্রতিমন্ত্রী ও জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভাপতি শেখ মো. আবদুল্লাহ সাংবাদিকদের জানিয়েছেন ১৪৪০ হিজরি সনের শাওয়াল মাসের চাঁদ দেশের কোথাও দেখা যায়নি। আগামী বৃহস্পতিবার (৫ জুন) সারাদেশে পবিত্র ঈদুল ফিতর উদযাপিত হবে।

সবাই মোটামুটি প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন পরের দিনের রোজার জন্য। এরই মধ্য আমাকে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের একজন ফোনে জানালেন অপেক্ষা করেন চমক আসছে। বললেন, ঈদের ঘোষণা আসবে শাঘ্রই।

রাত এগারোটায় চাঁদ দেখা কিন্তু বাংলাদেশে নতুন নয়। মনে পড়ে এর আগে একবার রাত এগারোটায় ঈদের চাঁদ উঠেছিলো। ১৯৯৯ সালে উঠেছিলো দক্ষিণবঙ্গে, ২০১৯ সালে উঠলো উত্তরবঙ্গে।

সব সম্ভবের দেশ প্রিয় বাংলাদেশ। তাই ঘোষণার দুই আড়াই ঘণ্টা পর ঘোষণা আসে চাঁদ দেখা গেছে তাই ঈদ বুধবার। কুড়িগ্রাম, লালমনিরহাটে চাঁদ দেখা গেছে তাই ঈদ হবে বুধবার। সন্ধ্যায় যে চাঁদ দেখা গেলো না তবে তা রাতে দেখা গেলো?

প্রশ্ন উঠেছে সম্বন্বয়হীনতার। কেনো এই সমন্বয়হীনতা। চাঁদ দেখা নিয়ে এর আগেও বিভ্রান্তি হয়েছিলো। পরে তা আদালত পর্যন্ত গড়ায়। দেশ যখন ডিজিটাল বাংলাদেশ, যখন বিজ্ঞানের জয়জয়কার, মহাকাশে আমাদের নিজস্ব স্যাটেলাইট তখন চাঁদ দেখা নিয়ে আমাদের সক্ষমতা দেখিয়ে দিয়ে কতোটা এগুলো বাংলাদেশ।

মানুষ বিভিন্নভাবে ট্রল করছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। একজন লিখেছেন- চাঁদ দেখা কমিটির লোকজন সম্ভবত মান্নাদের ভক্ত এবং তাদের প্রিয় গান,

“চাঁদ দেখতে গিয়ে আমি তোমায় দেখে ফেলেছি

কোন জোছনায় বেশি আলো এই দোটানায় পড়েছি।”

আবার কেউ কেউ লিখেছেন- আকাশেতে লক্ষ তারা চাঁদ কিন্তু একটাইরে।

তবে সবচেয়ে ভয়াবহ যেটা, সেটা হলো অবিশ্বাস। আমার পরিচিত একজন বলছেন, “বড় বড় ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান মিলে (ঈদের) তারিখ পরিবর্তন করে দিয়েছে অধিক মুনাফার আশায়। পরে ভারতসহ আশেপাশের সকল দেশে কাল ঈদ হওয়ায় আমাদের ঈদের দিনও পরিবর্তন করা হয়েছে।”

হয়তো তার এই বক্তব্য ধারণাপ্রসূত। কিন্তু, সমাজে যে অবিশ্বাস ও আস্থাহীনতা রয়েছে তা অস্বীকার করি কিভাবে?

বিশ্বকাপ চলছে, সবাই বিশ্বকাপে মাতোয়ারা। তাই অনেকে বলছেন- রিভিউ নিয়ে ঈদ হলো আজ (বুধবার), আগামীকালের (বৃহস্পতিবার) পরিবর্তে।

Comments

The Daily Star  | English

Shehbaz Sharif voted in as Pakistan's prime minister for second time

Newly sworn-in lawmakers in Pakistan's National Assembly elected Sharif by 201 votes to 92, three weeks after national elections marred by widespread allegations of rigging

1h ago