দ. আফ্রিকার ভয়ডরহীন মানসিকতাকে ভয় পাচ্ছেন হাথুরুসিংহে

বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্ব থেকে এর মধ্যেই বিদায় নিশ্চিত হয়ে গেছে দক্ষিণ আফ্রিকার। এখন শেষ দুটি ম্যাচ কেবল অংশগ্রহণ করার লড়াই। তাই প্রত্যাশার কোন চাপ নেই দলটির। এ অবস্থায় তারা যে কোন কিছুই করতে পারে। ভয়ডরহীন ক্রিকেট খেলে প্রতিপক্ষকে ভরকে দিতে পারে। আর এটাকেই ভয় পাচ্ছেন শ্রীলঙ্কান কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিংহে।
ছবি: আইসিসি

বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্ব থেকে এর মধ্যেই বিদায় নিশ্চিত হয়ে গেছে দক্ষিণ আফ্রিকার। এখন শেষ দুটি ম্যাচ কেবল অংশগ্রহণ করার লড়াই। তাই প্রত্যাশার কোন চাপ নেই দলটির। এ অবস্থায় তারা যে কোন কিছুই করতে পারে। ভয়ডরহীন ক্রিকেট খেলে প্রতিপক্ষকে ভরকে দিতে পারে। আর এটাকেই ভয় পাচ্ছেন শ্রীলঙ্কান কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিংহে।

সাত ম্যাচের পাঁচটিতে হেরে দক্ষিণ আফ্রিকা বিদায় নিলেও দুটি জয় ও বৃষ্টির কল্যাণে দুই পয়েন্ট নিয়ে মোট ৬ পয়েন্ট পেয়ে সপ্তম স্থানে আছে দলটি। আজ জিতলেই তারা উঠে যাবে পঞ্চম স্থানে। কিন্তু প্রোটিয়াদের চাপ না থাকাকেই ভয় পাচ্ছেন হাথুরু, 'যখন আপনার সেমি-ফাইনালে উঠতে না পারার কোন চাপ থাকবে না, তখন আপনি ভয়ডরহীন ক্রিকেট খেলবেন। পাশাপাশি আপনি ঘুরে দাঁড়িয়ে দ্রুত ঘরে ফিরতে চাইবেন।'

দারুণ ছন্দে থাকা ইমরান তাহির একাই কোণঠাসা করে দিতে পারেন শ্রীলঙ্কা। চলতি বিশ্বকাপে দুর্দান্ত খেলতে থাকা এ স্পিনারকে সামলানোর জন্য অবশ্য দলের ফর্মে থাকা ব্যাটসম্যানদের উপর নির্ভর করছেন লঙ্কান কোচ, 'আমার ছেলেরা স্পিন ঠিকঠাক ভাবে খেলে। তাহির বিশ্ব মানের পারফর্মার। আমি দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে আমার কিছু খেলোয়াড়দের উপর তাকিয়ে আছি যেমন অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউজ, কুশল পেরেরা এবং দিমুথ কারুনারাত্নে।'

শেষ ম্যাচে ভালো না খেলতে পারলেও জয় পেয়েছে শ্রীলঙ্কা। তাতে আত্মবিশ্বাস বেড়েছে দলটির। হাথুরুর ভাষায়, 'যদিও আমরা নিজেদের সেরা ক্রিকেট খেলতে পারছি না তারপরও জিতেছি। ব্যাটিং ভালো হয়নি তবে বোলিংয়ে আমরা দারুণ নৈপুণ্য দেখিয়েছি। আমার মনে হয় আমাদের পর্যাপ্ত প্রতিভা আছে। দক্ষিণ আফ্রিকাকে হারানোর জন্য সে খেলোয়াড়দের স্কিলও আছে। আমারা পাওয়ার হিটিংয়ের অনুশীলন করেছি। ভালো দিক হচ্ছে টপ অর্ডার এটা করতে পারছে।'

আগের ম্যাচে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে অবিশ্বাস্য জয় পায় শ্রীলঙ্কা। ব্যাটিং শুরুতে চাপে থাকা দলকে লড়াইয়ের পুঁজি এনে দেন লম্বা সময় ধরে সংগ্রাম করতে থাকা অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউজ। ছন্দের খোঁজে থাকা আরেক ব্যাটসম্যান ধনাঞ্জয়া ডি সিলভাকে নিয়ে দলের হাল ধরেছিলেন। আর জয়ের মূল চাবিকাঠি এটাই ছিল বলে জানান হাথুরু, 'ম্যাথিউজ দারুণ মানসিক দৃঢ়তা দেখিয়েছে সেক্ষেত্রে। সে চাপে ছিল এবং দল ও চাপে ছিল। এবং দেখিয়েছে সে করতে পারে। ডি সিলভা নিজের মতো খেলতে পারছে না যেমনটা আমরা ওকে চিনি। কিন্তু তারপরও সে ম্যাথিউজের সঙ্গে ভালো জুটি গড়েছে। এবং এটাই আমাদের জয়ের চাবিকাঠি ছিল।'

Comments

The Daily Star  | English

Electric vehicles etching their way into domestic automobile industry

The automobile industry of Bangladesh is seeing a notable shift towards electric vehicles (EVs) with BYD Auto Co Ltd, the world’s biggest EV maker, set to launch its Seal model on the domestic market.

8h ago