শৃঙ্খলাভঙ্গের দায়ে দেশে ফেরত পাঠানো হলো আফগান পেসারকে

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট সংস্থার (আইসিসি) শৃঙ্খলাবিষয়ক আচরণবিধি ভঙ্গের কারণে বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে গেছেন আফগানিস্তানের পেসার আফতাব আলম। তার পরিবর্তে শেষ দুই ম্যাচের জন্য স্কোয়াডে যুক্ত হয়েছেন সৈয়দ শিরজাদ।
aftab alam
ছবি: রয়টার্স

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট সংস্থার (আইসিসি) শৃঙ্খলাবিষয়ক আচরণবিধি ভঙ্গের কারণে বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে গেছেন আফগানিস্তানের পেসার আফতাব আলম। তার পরিবর্তে শেষ দুই ম্যাচের জন্য স্কোয়াডে যুক্ত হয়েছেন সৈয়দ শিরজাদ।

বৃহস্পতিবার (২৭ জুন) আইসিসির পক্ষ থেকে এক সংক্ষিপ্ত বিবৃতিতে জানানো হয়, ‘বিশেষ পরিস্থিতি’ উদ্ভূত হওয়ায় আফগান দলে এই পরিবর্তন আনা হয়েছে। এরপর এসিবির পক্ষ থেকে আসে ব্যাখ্যা। তবে ঠিক কী কারণে আলমকে বাদ দেওয়া হয়েছে তা খোলাসা করা হয়নি।

সংস্থাটি তাদের বিবৃতিতে জানায়, ‘আইসিসি এবং এসিবির আচরণবিধির নিয়মকানুনগুলো বিবেচনায় রেখে বিশেষ পরিস্থিতিতে আলমকে ইংল্যান্ড থেকে দেশে ফেরত পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এই সিদ্ধান্তের কারণে আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৯-এ তিনি আর খেলতে পারবেন না এবং মাঠের বাইরে অসদাচরণের যে অভিযোগ তার বিরুদ্ধে উঠেছে, সে বিষয়ে তদন্ত চালিয়ে যাবে এসিবি।’

এবারের আসরে তিনটি ম্যাচ খেলে চার উইকেট নিয়েছেন ডানহাতি আলম। তার বদলি হিসেবে ডাক পাওয়া শিরজাদ খেলেছেন মাত্র একটি ওয়ানডে। গেল মার্চে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে অভিষেক হয়েছিল এই বাঁহাতির।

এই নিয়ে দুজন আফগান ক্রিকেটারকে বিশ্বকাপের চলমান আসর থেকে দেশে ফেরত পাঠানো হয়েছে। এর আগে ফিটনেস ঘাটতির কথা উল্লেখ করে স্কোয়াড থেকে ছেঁটে ফেলা হয়েছিল ওপেনার মোহাম্মদ শেহজাদকে। কিন্তু ওই সিদ্ধান্ত নিয়ে উত্তপ্ত হয়ে উঠেছিল পরিস্থিতি। বোর্ডের দিকে অভিযোগের আঙুল তুলে শেহজাদ বলেছিলেন, তাকে জোর করে বাদ দেওয়া হয়েছে। তার কোনো ফিটনেস সমস্যা নেই।

আফগান দলকে নিয়ে বিতর্ক সেখানেই থেমে থাকেনি। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচের আগের দিন ম্যানচেস্টারের একটি রেস্টুরেন্টে মারামারিতেও জড়িয়ে পড়েছিলেন কয়েকজন আফগান ক্রিকেটার। তবে তাদের নাম প্রকাশ করা হয়নি।

বিশ্বকাপে আফগানদের মাঠের পারফরম্যান্সও একেবারে বর্ণহীন। সাত ম্যাচ খেলে সবকটিতেই হেরে পয়েন্ট তালিকায় সবার নিচে অবস্থান করছে দলটি। শেষ দুটি ম্যাচে তারা মুখোমুখি হবে যথাক্রমে পাকিস্তান ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের।

Comments

The Daily Star  | English

Medium of education should be mother language: PM

Prime Minister Sheikh Hasina today said that the medium for education in educational institutions should be everyone's mother tongue.

2h ago