ভারতীয় দলে ফের চোটের হানা, ছিটকে গেলেন শঙ্কর

ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ভারতীয় একাদশে ছিলেন না বিজয় শঙ্কর। টসের সময় দলটির অধিনায়ক বিরাট কোহলি জানিয়েছিলেন, পায়ে চোট পেয়েছেন এই পেস অলরাউন্ডার। ওই চোটের ভয়াবহতা এতটাই বেশি যে, বিশ্বকাপ থেকেই ছিটকে গেলেন শঙ্কর।
vijay shankar
ছবি: রয়টার্স

ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ভারতীয় একাদশে ছিলেন না বিজয় শঙ্কর। টসের সময় দলটির অধিনায়ক বিরাট কোহলি জানিয়েছিলেন, পায়ে চোট পেয়েছেন এই পেস অলরাউন্ডার। ওই চোটের ভয়াবহতা এতটাই বেশি যে, বিশ্বকাপ থেকেই ছিটকে গেছেন শঙ্কর। এর আগে হাতে চোট পাওয়ায় বিশ্বকাপ শেষ হয়ে যায় শিখর ধাওয়ানের।

ইংলিশদের বিপক্ষে ম্যাচের আগে অনুশীলনে জাসপ্রিত বুমরাহর একটি ডেলিভারি শঙ্করের পায়ে লেগেছিল। পরে জানা গেছে, হাড় সরে না গেলেও তার বাম পায়ের আঙুলে চিড় ধরা পড়েছে। সেরে উঠতে সময় লাগবে প্রায় তিন সপ্তাহ। তার মানে চলমান আসরে আর মাঠে নামার সম্ভাবনা নেই তার।

মূলত চার নম্বর পজিশনে ব্যাটিংয়ের জন্য ভারতের বিশ্বকাপ স্কোয়াডে যুক্ত হয়েছিলেন শঙ্কর। তাকে জায়গা করে দিতে গিয়ে বাদ পড়েছিলেন আম্বাতি রাইডু। তবে বিশ্বকাপের আগে প্রস্তুতি ম্যাচে এই পজিশনে লোকেশ রাহুল ভালো খেলায় মূল একাদশের বাইরে থাকা নিশ্চিত হয়ে যায় শঙ্করের।

২৮ বছর বয়সী শঙ্করের কপাল খোলে ওপেনার ধাওয়ান চোটে পড়লে। রাহুলকে ওপেনিং করতে পাঠায় ভারতীয় টিম ম্যানেজমেন্ট। চার নম্বরে খেলার সুযোগ পান শঙ্কর। তিন ম্যাচ খেললেও নজর কাড়তে পারেননি তিনি। সবমিলিয়ে করেন ৫৮ রান। এক ম্যাচে বোলিং করে নেন ২ উইকেট।

শঙ্করের বদলি হিসেবে দলে ডাক পাচ্ছেন মায়াঙ্ক আগারওয়াল। এই পরিবর্তনের ব্যাপারে আইসিসির টেকনিক্যাল কমিটির কাছে অনুমোদন চেয়েছে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (বিসিসিআই)। খুব শিগগিরই তা পাওয়া যাবে বলে আশা করছে সংস্থাটি।

মায়াঙ্ক ভারতের জার্সিতে দুটি টেস্ট খেলেছেন। তবে এখনও ওয়ানডে অভিষেক হয়নি ২৮ বছর বয়সী এই ডানহাতি ব্যাটসম্যানের। ঘরোয়া ক্রিকেটে তার পরিসংখ্যান ঈর্ষনীয়। ২০১২ সালে লিস্ট ‘এ’ ক্রিকেটে অভিষেকের পর ৭৫ ম্যাচে ৪৮.৭১ গড়ে ৩ হাজার ৬০৫ রান করেছেন তিনি।

Comments

The Daily Star  | English

International Mother Language Day: Languages we may lose soon

Mang Pru Marma, 78, from Kranchipara of Bandarban’s Alikadam upazila, is among the last seven speakers, all of whom are elderly, of Rengmitcha language.

9h ago