অর্থ কেলেঙ্কারির তদন্তে গোয়েন্দাদের জেরার মুখে প্রসেনজিৎ

ভারতের আলোচিত অর্থ কেলেঙ্কারির ঘটনা সারদা-রোজভ্যালি কাণ্ডে এবার নাম জড়িয়ে পড়েছে দুই বাংলার জনপ্রিয় অভিনেতা প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়ের।
prosenjit
অভিনেতা প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়। ছবি: সংগৃহীত

ভারতের আলোচিত অর্থ কেলেঙ্কারির ঘটনা সারদা-রোজভ্যালি কাণ্ডে এবার নাম জড়িয়ে পড়েছে দুই বাংলার জনপ্রিয় অভিনেতা প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়ের।

গতকাল (৯ জুলাই) প্রসেনজিৎকে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা এনফোর্সম্যান্ট ডিরেক্টরেট বা ইডির তরফ থেকে চিঠি পাঠানো হয়। আগামী ১৯ জুলাই জেরার মুখে বসতে যাচ্ছেন বাংলা চলচ্চিত্রের এই সময়ের কিংবদন্তি অভিনেতা।

গতকাল প্রায় সারাদিন ধরে তথ্যটি নিয়ে বিভ্রান্তি থাকলেও রাতে আনুষ্ঠানিকভাবে এ কথা স্বীকার করেছেন অভিনেতা নিজেই।

কলকাতা থেকে প্রায় আড়াইশো কিলোমিটার দূরে বীরভূম জেলায় একটি অনুষ্ঠানে উপস্থিত ওই অভিনেতা স্থানীয় সাংবাদিকদের কাছে গোয়েন্দাদের জেরার জন্য ডাকা চিঠি পাওয়ার কথা স্বীকার করেন। তবে বলেছেন, ওই চিঠি তার সংস্থাকে দেওয়া হয়েছে। তাকে নয়।

ইডি সূত্রের খবর, আগামী ১৯ জুলাই প্রখ্যাত ওই অভিনেতাকে কলকাতার সল্টলেকে অবস্থিত ইডির অফিসে হাজিরা দিতে বলা হয়েছে।

এ বিষয়ে প্রসেনজিৎ বলেন, দেশের নাগরিক হিসেবে যেকোনো তদন্তের মুখোমুখি হতে প্রস্তুত তিনি। তদন্তকারী সংস্থার সঙ্গে সবধরনের সহযোগিতা করার কথাও বলেন তিনি।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে রোজভ্যালি গ্রুপের কর্ণধার গৌতম কুণ্ডুর ব্যক্তিগত সুসম্পর্ক ছিলো। সেই কারণে ওই সংস্থার বহু অনুষ্ঠানের ওই অভিনেতাকে দেখা গিয়েছে।

রোজভ্যালি সংস্থাটির নামে প্রায় আড়াই হাজার কোটি টাকার আর্থিক প্রতারণার অভিযোগ রয়েছে। অভিযোগ, মানুষের কাছ থেকে বিভিন্ন রকম প্রকল্পে বিনিয়োগের জন্য বন্ড বিক্রি করে এই অর্থ সংগ্রহ করে সংস্থাটি। সেই সংস্থার সঙ্গে প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়ের আর্থিক কোনো সম্পর্ক ছিলো কী না সেটাই তদন্তকারী সংস্থা তদন্ত করে দেখবে।

শুধু প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় একা নন, ইতোমধ্যে গোয়েন্দারা অভিনেত্রী শতাব্দী রায়, প্রখ্যাত চিত্রশিল্পী শোভা প্রসন্নসহ বহু বিশিষ্টজনককে ডেকে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করেছে। সবার বিরুদ্ধেই বেআইনি অর্থ লগ্নিকারী কোনো না কোনো সংস্থার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগ রয়েছে।

Comments

The Daily Star  | English
market price monitoring during Ramadan

Govt working to stabilise 'volatile market': minister

Industries Minister Nurul Majid Mahmud Humayun today, acknowledging instability, said the government is working to bring stability in the market during the upcoming Holy Ramadan.

14m ago