ভারতীয় দর্শকদের ‘লোভ’ সংবরণ করার অনুরোধ নিশামের

দল ফাইনালে খেলবে এমন আত্মবিশ্বাস নিয়ে ভারতীয় দর্শকদের অনেকেই আগেভাগে কিনে রেখেছিলেন ফাইনালের টিকিট। নিউজিল্যান্ডের কাছে বিরাট কোহলিরা হেরে যাওয়ায় তাদের সে পরিকল্পনা ভেস্তে গেছে। নিজেদের দল ফাইনালে না থাকায় ভারতীয় দর্শকরা টিকিট কালোবাজারি করছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। এমন পরিস্থিতিতে নিউজিল্যান্ডের ক্রিকেটার জিমি নিশাম তাদেরকে ‘লোভ’ সংবরণ করতে অনুরোধ করেছেন।
jimmy neesham
ছবি: এএফপি

দল ফাইনালে খেলবে এমন আত্মবিশ্বাস নিয়ে ভারতীয় দর্শকদের অনেকেই আগেভাগে কিনে রেখেছিলেন ফাইনালের টিকিট। নিউজিল্যান্ডের কাছে বিরাট কোহলিরা হেরে যাওয়ায় তাদের সে পরিকল্পনা ভেস্তে গেছে। নিজেদের দল ফাইনালে না থাকায় ভারতীয় দর্শকরা টিকিট কালোবাজারি করছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। এমন পরিস্থিতিতে নিউজিল্যান্ডের ক্রিকেটার জিমি নিশাম তাদেরকে ‘লোভ’ সংবরণ করতে অনুরোধ করেছেন।

টিকিট কেনার পরও কোনো দর্শক খেলা দেখতে আগ্রহী না হলে বা ফেরত দিতে চাইলে তার জন্য রি-সেল ব্যবস্থা রেখেছে আইসিসি। সংস্থাটির অফিসিয়াল প্লাটফর্মে টিকিট পুনরায় বিক্রি করা যাবে। টিকিট হাতবদলের এটাই বৈধ উপায়। কিন্তু বেশি লাভের আশায় অনেকেই দ্বারস্থ হচ্ছেন আইসিসির অনুমোদনহীন বিভিন্ন অনলাইন ওয়েবসাইট বা প্লাটফর্মের। সেখানে হাঁকানো হচ্ছে চড়া দাম। এমনকি স্টাবহাব নামের একটি ওয়েবসাইটে কম্পটন স্ট্যান্ডের দুটি টিকিটের প্রতিটির দাম চাওয়া হচ্ছে নির্ধারিত মূল্যের ৫০ গুণ! যা বাংলাদেশি মুদ্রায় ১৭ লাখ ৬০ হাজার টাকারও বেশি।

ভারতের সেমিফাইনাল থেকে বাদ পড়ার পাশাপাশি স্বাগতিক ইংল্যান্ডের ফাইনালে জায়গা করে নেওয়াটাও কালোবাজারে আকাশ ছোঁয়া মূল্যে টিকিট বিক্রির অন্যতম কারণ। এতদিন খুব বেশি উন্মাদনা না দেখালেও ইয়ন মরগানরা ফাইনালে উঠে যাওয়ায় বিশ্বকাপ নিয়ে আগ্রহ বেড়েছে দেশটির মানুষের। তার সঙ্গে মিলিয়ে বেড়েছে টিকিটের চাহিদাও।

এ নিয়ে শনিবার (১৩ জুলাই) সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটারে কিউই অলরাউন্ডার নিশাম লিখেছেন, ‘প্রিয় ভারতীয় ক্রিকেট ভক্তরা, যদি আপনারা ফাইনালে আসতে না চান, তবে দয়া করে আইসিসির অফিসিয়াল প্লাটফর্ম ব্যবহার করে টিকিট পুনরায় বিক্রি করুন। আমি জানি, বিশাল পরিমাণে লাভের সুযোগ রয়েছে আর সেটা অত্যন্ত লোভনীয়। কিন্তু দয়া করে ধনীদের নয়, সত্যিকারের ক্রিকেট ভক্তদের খেলা দেখার সুযোগ করে দিন।’

Comments

The Daily Star  | English

Consumers brace for price shocks

Consumers are bracing for multiple price shocks ahead of Ramadan that usually marks a period of high household spending.

11h ago