ওভারথ্রোর বাড়তি চার রান নিতে চাননি স্টোকস: অ্যান্ডারসন

বিশ্বকাপের শ্বাসরুদ্ধকর ফাইনালে ওভারথ্রোর কারণে বাড়তি চার রান যুক্ত হয়েছিল ইংল্যান্ডের স্কোরে। ওই রানগুলোর গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা ছিল ম্যাচের ভাগ্য গড়ে দেওয়ার ক্ষেত্রে। যা নিয়ে বিতর্ক, আলোচনা, সমালোচনা এখনও চলছে।
ben stokes
ছবি: এএফপি

বিশ্বকাপের শ্বাসরুদ্ধকর ফাইনালের শেষ ওভারে ওভারথ্রোর কারণে বাড়তি চার রান যুক্ত হয়েছিল ইংল্যান্ডের স্কোরে। ওই রানগুলোর গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা ছিল ম্যাচের ভাগ্য গড়ে দেওয়ার ক্ষেত্রে। যা নিয়ে বিতর্ক, আলোচনা, সমালোচনা এখনও চলছে।

ওভারথ্রোতে বাউন্ডারি হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে দুহাত উঁচু করে ক্ষমা চাওয়ার ভঙ্গি করেছিলেন বেন স্টোকস। ম্যাচ শেষে জানিয়েছিলেন, নিউজিল্যান্ড অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসনের কাছে সারাজীবনই হয়তো ক্ষমা চেয়ে যাবেন তিনি। ক্রিকেটীয় রীতির প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে মাঠে থাকাকালে আরও একটা কাজ স্টোকস করেছিলেন, যে বিষয়ে অবশ্য কোনো কিছুই জানাননি তিনি। সে তথ্য উন্মোচন করেছেন স্টোকসের টেস্ট দলের সতীর্থ জেমস অ্যান্ডারসন।

বুধবার (১৭ জুলাই) আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের কাছে ইংলিশ গতি তারকা অ্যান্ডারসন জানান, ‘ক্রিকেটীয় রীতি অনুসারে, যখন স্টাম্প লক্ষ্য করে বল ছোঁড়া হয় এবং তা আপনার গায়ে লেগে মাঠের ফাঁকা জায়গায় চলে যায়, তখন আপনি রান নেবেন না।’

‘কিন্তু বল বাউন্ডারিতে চলে গেলে, নিয়ম হলো এটা চার এবং আপনার কিছু করার থাকে না।’

‘মাইকেল ভন (সাবেক ইংলিশ অধিনায়ক) ম্যাচ শেষে বেন স্টোকসের সঙ্গে কথা বলেছিলেন। তার কাছ থেকে আমি জানতে পেরেছি যে, স্টোকস আম্পায়ারদের কাছে গিয়ে বলেছিলেন, “আপনারা কি বাড়তি চার ফিরিয়ে নিতে পারেন? আমরা এটা চাই না”।’

‘কিন্তু নিয়মে আছে, এটা চার আর এভাবেই তা লেখা রয়েছে।’

উল্লেখ্য, গেল রবিবার লর্ডসে ঘটে আলোচিত ওভারথ্রোর ঘটনাটি। সীমানা থেকে মার্টিন গাপটিলের থ্রো স্টাম্পের দিকে ছুটে আসছিল। তখন রানআউট ঠেকাতে ও দ্বিতীয় রান পূরণ করতে ডাইভ দেন স্টোকস। কিন্তু বল তার ব্যাটে লেগে দিক পরিবর্তন করে থার্ডম্যান দিয়ে চলে যায় সীমানার বাইরে।

আরও পড়ুন:

ওভারথ্রোতে ইংল্যান্ডের কত রান পাওয়া উচিত ছিল, ৬ না ৫?

সেই ৬ রান দেওয়াকে টাফেলও বলছেন ভুল সিদ্ধান্ত

Comments

The Daily Star  | English

UN rights chief urges probe on Bangladesh protest 'crackdown'

The UN rights chief called Thursday on Bangladesh to urgently disclose the details of last week's crackdown on protests amid accounts of "horrific violence", calling for "an impartial, independent and transparent investigation"

44m ago