‘ডেঙ্গু’তে সিভিল সার্জনের মৃত্যু

‘ডেঙ্গু’ জ্বরে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন হবিগঞ্জের সিভিল সার্জন ডা. মো. শাহাদত হোসেন হাজরা। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিলো ৫৩ বছর।
civil surgeon died
হবিগঞ্জের সিভিল সার্জন ডা. মো. শাহাদত হোসেন হাজরা। ছবি: সংগৃহীত

‘ডেঙ্গু’ জ্বরে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন হবিগঞ্জের সিভিল সার্জন ডা. মো. শাহাদত হোসেন হাজরা। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিলো ৫৩ বছর।

আজ (২২ জুলাই) ভোরে মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেন সিভিল সার্জন অফিসের প্রশাসনিক কর্মকর্তা মো. শাহ আলম।

এর আগে, গতকাল রাতে রাজধানীর শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

জানা যায়, গত দুইদিন ধরে জ্বরে আক্রান্ত ছিলেন হবিগঞ্জের সিভিল সার্জন ডা. মো. শাহাদত হোসেন হাজরা। গতকাল সকালে কার্যালয়ে এসে দায়িত্ব পালন করেন। পরে তিনি জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে সমন্বয় সভায় অংশ নেন। এক পর্যায়ে অসুস্থবোধ করলে তিনি সেখান থেকে চলে যান।

এরপর তাকে হবিগঞ্জ ২৫০ শয্যার আধুনিক জেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। বিকেলে শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটলে কর্তব্যরত চিকিৎসকরা তাকে ঢাকায় পাঠান। রাত ১১টার দিকে শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

সিলেট বিভাগের পরিচালক (স্বাস্থ) ডা. দেবপদ রায় দ্য ডেইলি স্টার অনলাইনকে বলেন, “গতকাল সকাল ১০টার দিকে হবিগঞ্জের সিভিল সার্জন অফিসের প্রশাসনিক কর্মকর্তা আমাকে জানান যে, সিভিল সার্জন ডা. শাহাদত হোসেন হাজরার শরীর খুব খারাপ, তার জ্বর ও শরীরে ব্যথা। তখন আমি তাকে বললাম ডা. হাজরাকে হবিগঞ্জের ২৫০ শয্যার হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার জন্য। সে সময় প্রশাসনিক কর্মকর্তা আরও জানান যে, ঢাকায় অবস্থানরত ডা. হাজরার স্ত্রী ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়েছেন।”

ডা. দেবপদ রায় বলেন, “সিভিল সার্জন ডা. হাজরা ২৫০ শয্যার হাসপাতালে গেলে তারও ডেঙ্গু হয়েছে বলে ধারণা করে চিকিৎসকরা তাকে ঢাকায় যাওয়ার পরামর্শ দেন। বিকেল পাঁচটার দিকে আমি নিজে ড. হাজরার সঙ্গে কথা বলি এবং তিনিও আমাকে জানান যে, তার জ্বর এবং শরীরে ব্যথা। বসতে পারছেন না, শুতেও সমস্যা হচ্ছে। তখনই তাকে ঢাকায় চলে যাওয়ার কথা বলি। পরবর্তীতে জেনেছি রাত ১০টার দিকে ডা. হাজরা তার ঢাকার বাসায় পৌঁছেছেন।”

“তার ছেলে সূত্রে জেনেছি, বাসায় ফেরার পর ডা. হাজরা বারবার ইনহেলার নিচ্ছিলেন। যদিও তখন তার কাশি বা শ্বাসকষ্ট হচ্ছিলো বলে মনে হয়নি। ঘণ্টাখানেকের মধ্যে শরীর আরও খারাপ হয়ে গেলে, ডা. হাজরা নিজেই তার মেডিকেল পড়ুয়া ছেলেকে বলেন যে তাকে শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যেতে”, যোগ করেন দেবপদ রায়।

শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ডা. উত্তম বড়ুয়া দ্য ডেইলি স্টার অনলাইনকে বলেন, “রাত ১১টার দিকে সিভিল সার্জন ডা. শাহাদত হোসেন হাজরাকে হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। এখানে নিয়ে আসার আগেই তার মৃত্যু হয়েছে বলে জানান কর্তব্যরত চিকিৎসক।”

সিলেট স্বাস্থ্য বিভাগের পরিচালক দেবপদ রায় আরও বলেন, “হবিগঞ্জের ২৫০ শয্যার হাসপাতালের চিকিৎসকদের ধারণা ডা. হাজরা ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়েছিলেন।”

Comments

The Daily Star  | English

Inadequate Fire Safety Measures: 3 out of 4 city markets risky

Three in four markets and shopping arcades in Dhaka city lack proper fire safety measures, according to a Fire Service and Civil Defence inspection report.

6h ago