লিবিয়া উপকূলে নৌকাডুবি, ১৫০ অভিবাসীর মৃত্যুর আশঙ্কা

ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিয়ে ইউরোপ যাওয়ার পথে গতকাল (২৫ জুলাই) লিবিয়া উপকূলে অভিবাসীবোঝাই একটি নৌকা ডুবে গেছে। এতে নারী ও শিশুসহ ১৫০ জন অভিবাসী নিহত হয়েছেন বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।
Boat capsize
ছবি: এপি

ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিয়ে ইউরোপ যাওয়ার পথে গতকাল (২৫ জুলাই) লিবিয়া উপকূলে অভিবাসীবোঝাই একটি নৌকা ডুবে গেছে। এতে নারী ও শিশুসহ ১৫০ জন অভিবাসী নিহত হয়েছেন বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

লিবিয়ার কোস্ট গার্ড ও জাতিসংঘের শরণার্থীবিষয়ক সংস্থা (ইউএনএইচসিআর) এ তথ্য জানিয়েছে।

লিবিয়ার কোস্ট গার্ডের মুখপাত্র আইয়ুব গাসিম বলেন, লিবিয়ার রাজধানী ত্রিপোলি থেকে প্রায় ১২০ কিলোমিটার পূর্বের আল খোমস বন্দর থেকে অভিবাসীদের নিয়ে যাত্রা শুরু করে নৌকাটি। লিবিয়া উপকূলে প্রায় তিনশ অভিবাসী নিয়ে নৌকাটি ডুবে যায়। এরপর কোস্ট গার্ডের সদস্যরা অন্তত ১৩৭ জনকে জীবিত অবস্থায় উদ্ধার করে লিবিয়ায় ফেরত পাঠায়। একজনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। বাকিরা নিখোঁজ রয়েছেন।

এদিকে, জাতিসংঘের শরণার্থী সংস্থার মুখপাত্র চার্লি ইয়াক্সলে বলেন, এ পর্যন্ত ১৪৭ জনকে উদ্ধার করা হয়েছে। এখনও নারী ও শিশুসহ প্রায় ১৫০ জন অভিবাসী নিখোঁজ রয়েছেন। তারা সাগরের পানিতে ডুবে মারা গেছেন বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

আন্তর্জাতিক উদ্ধার কমিটি বলছে, এই ট্রাজেডি লিবিয়া থেকে উদ্ভূত মানবিক সঙ্কট এবং ভূমধ্যসাগরে অনুসন্ধান ও উদ্ধার অভিযানের জরুরি প্রয়োজনের বিষয়টি তুলে ধরছে।

জাতিসংঘের শরণার্থীবিষয়ক হাইকমিশনার ফিলিপ্পো গ্র্যান্ডি বলেন, চলতি বছরে এটাই ভূমধ্যসাগরে সংঘটিত সবচেয়ে ভয়াবহ দুর্ঘটনা।

এর আগে গত মে মাসে লিবিয়া থেকে ইউরোপগামী একটি নৌকা ডুবে অন্তত ৬৫ জন অভিবাসীর মৃত্যু হয়।

জাতিসংঘের শরণার্থী সংস্থা জানায়, এ বছরের প্রথম চারমাসে ভূমধ্যসাগরের একই রুটে প্রায় ১৬৪ জন অভিবাসীর মৃত্যু হয়েছে।

Comments

The Daily Star  | English

Broadband internet restored in selected areas

Broadband internet connections were restored on a limited scale yesterday after 5 days of complete countrywide blackout amid the violence over quota protest

3h ago