হোয়াইটওয়াশ এড়াতে চ্যালেঞ্জিং লক্ষ্যের সামনে বাংলাদেশ

শুরুতেই উইকেট হারানোর পর জুটি বাঁধলেন অধিনায়ক দিমুথ করুনারত্নে ও কুশল পেরেরা। তাদের তৈরি করে দেওয়া ভিতের ওপর দাঁড়িয়ে হাফসেঞ্চুরি শতরানের জুটি গড়লেন কুশল মেন্ডিস ও অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউস। দুজনেই তুলে নিলেন হাফসেঞ্চুরি। তাতে বাংলাদেশকে চ্যালেঞ্জিং লক্ষ্য ছুঁড়ে দিল শ্রীলঙ্কা।
sri lanka
ছবি: এএফপি

শুরুতেই উইকেট হারানোর পর জুটি বাঁধলেন অধিনায়ক দিমুথ করুনারত্নে ও কুশল পেরেরা। তাদের তৈরি করে দেওয়া ভিতের ওপর দাঁড়িয়ে শতরানের জুটি গড়লেন কুশল মেন্ডিস ও অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউস। দুজনেই তুলে নিলেন হাফসেঞ্চুরি। তাতে বাংলাদেশকে চ্যালেঞ্জিং লক্ষ্য ছুঁড়ে দিল শ্রীলঙ্কা।

বুধবার (৩১ জুলাই) কলম্বোতে সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডেতে টসে হেরে আগে ব্যাটিং করেছে স্বাগতিক শ্রীলঙ্কা। নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ২৯৪ রান তুলেছে দলটি। সিরিজে ২-০ ব্যবধানে পিছিয়ে থাকায় হোয়াইটওয়াশ এড়াতে জয়ের বিকল্প নেই তামিম ইকবালের বাংলাদেশের।

এদিন ৪০ ওভার পর্যন্ত নিয়ন্ত্রিত বোলিং করেছে টাইগাররা। তবে ডেথ ওভারে বোলিং ভালো হয়নি। উইকেট হাতে থাকায় আর থিতু হয়ে যাওয়া ম্যাথিউস ও দাসুন শানাকা ঝড় তোলায় শেষ ১০ ওভারে ১০৬ রান আদায় করে নেয় শ্রীলঙ্কা।

দলীয় ১৩ রানের মাথায় আভিস্কা ফার্নান্দোকে এলবিডাব্লিউয়ের ফাঁদে ফেলেন শফিউল ইসলাম। তার সংগ্রহ ৬ রান। এরপর করুনারত্নে ও পেরেরার ৮৩ রানের জুটি। তাতে তিনশো ছোঁয়া স্কোর গড়ার ভিত পেয়ে যায় লঙ্কানরা। জুটি ভাঙার পর এই দুজনকে অবশ্য অল্প রানের ব্যবধানে ফেরাতে পারেন টাইগার বোলাররা।

করুনারত্নে ৪৬ রান করে হন তাইজুল ইসলামের শিকার। পেরেরার ব্যাট থেকে আসে ৪২ রান। তার উইকেটটি নেন রুবেল হোসেন। দুই ব্যাটসম্যানই উইকেটের পেছনে ক্যাচ দেন মুশফিকুর রহিমের হাতে।

শ্রীলঙ্কার দলীয় একশো রানের মধ্যে ৩ উইকেট তুলে নিতে পারলেও চাপটা ধরে রাখতে ব্যর্থ হয় বাংলাদেশ। চতুর্থ উইকেটে ১০১ রানের জুটি গড়েন মেন্ডিস ও ম্যাথিউস। ফিফটি তুলে নেওয়ার পরপরই অবশ্য মেন্ডিসকে ফেরান সৌম্য সরকার। সীমানার কাছে দুর্দান্ত ক্যাচ ধরেন সাব্বির রহমান।

৪০ ওভার পর্যন্ত ওভারপ্রতি পাঁচের নিচে থাকা লঙ্কানদের রান রেট বাড়ানোর কাজটা করেন এ ম্যাচের একাদশে সুযোগ পাওয়া শানাকা। উইকেটে গিয়ে তেড়েফুঁড়ে মেরে ১৪ বলে ৩০ রান করেন তিনি। লঙ্কান একাদশে সুযোগ পাওয়া আরেক ক্রিকেটার শিহান জয়সুরিয়া খেলেন ৭ বলে ১৩ রানের ক্যামিও ইনিংস। এ দুজনকে আউট করেন ম্যাচে শফিউল।

ইনিংসের শেষ ওভারে ম্যাথিউসকে বিদায় করেন সৌম্য। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৮৭ রানের ইনিংস খেলেন এই অভিজ্ঞ তারকা। তাকে আউট করার পরের বলে আকিলা দনঞ্জয়ার উইকেট তুলে নিয়ে হ্যাটট্রিকের সম্ভাবনাও জাগিয়েছিলেন সৌম্য। তবে সেটা হয়নি। বরং খরুচে হয়ে যান তিনি। ওয়ানিদু হাসারাঙ্গা অপরাজিত থাকেন ৫ বলে ১২ রানে।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

শ্রীলঙ্কা: ২৯৪/৮ (৫০ ওভার) (আভিস্কা ৬, করুনারত্নে ৪৬, পেরেরা ৪২, মেন্ডিস ৫৪, ম্যাথিউস ৮৭, শানাকা ৩০, জয়সুরিয়া ১৩, হাসারাঙ্গা ১২*, দনঞ্জয়া ০, রাজিথা ০*; শফিউল ৩/৬৮, রুবেল ১/৫৫, তাইজুল ১/৩৪, মিরাজ ০/৫৯, সৌম্য ৩/৫৬, মাহমুদউল্লাহ ০/২২)।

Comments

The Daily Star  | English

Quota protesters need to move the court, not the govt: PM

Hasina says protesters have to move the court, not the govt to resolve the issue, warns them against destructive activities

50m ago