কলকাতায় সড়ক দুর্ঘটনায় ২ বাংলাদেশি নিহত

কলকাতায় সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ হারিয়েছেন দুজন বাংলাদেশি নাগরিক। তাদের নাম কাজী মোহাম্মদ মঈনুল আলম এবং ফারহানা ইসলাম তানিয়া। মইনুলের বাড়ি ঝিনাইদহ জেলায় এবং ফারহানার ঢাকার মোহাম্মদপুরে।
Kalkata Accident
১৭ আগস্ট ২০১৯, কলকাতার শেক্সপিয়ার সরণিতে মর্মান্তিক এই দুর্ঘটনা ঘটে। ছবি: স্টার

কলকাতায় সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ হারিয়েছেন দুজন বাংলাদেশি নাগরিক। তাদের নাম কাজী মোহাম্মদ মঈনুল আলম এবং ফারহানা ইসলাম তানিয়া। মইনুলের বাড়ি ঝিনাইদহ জেলায় এবং ফারহানার ঢাকার মোহাম্মদপুরে।

গতকাল রাত আনুমানিক পৌনে দুইটার দিকে কলকাতার শেক্সপিয়ার সরণিতে মর্মান্তিক এই দুর্ঘটনা ঘটে। এতে আহত হয়েছেন কলকাতার আরও চার জন বাসিন্দা।

শেক্সপিয়ার থানা পুলিশ জানিয়েছে, রাত একটা ৫০ মিনিটের দিকে শেক্সপিয়ার সরণি ক্রসিংয়ের সামনে দুটি প্রাইভেটকারের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে একটি প্রাইভেটকার ছিটকে গিয়ে পাশের ট্রাফিক পয়েন্টে ধাক্কা খায়। বৃষ্টির কারণে সেখানে অপেক্ষা করছিলেন বাংলাদেশের ওই দুজন নাগরিক। গাড়িটি তাদের গায়ে ধাক্কা লাগলে গুরুতর আহত হন তারা। স্থানীয় মানুষ গুরুতর আহত অবস্থায় তাদের উদ্ধার করে কলকাতার পিজি হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানে নেওয়ার পর চিকিৎসকরা তাদের মৃত ঘোষণা করেন।

সিসিটিভি ফুটেজ দেখে এ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে শেক্সপিয়ার থানা পুলিশ। যদিও এখন পর্যন্ত ঘাতক দুই প্রাইভেটকারের মালিক এবং যাত্রীদের কোনো খোঁজ পাওয়া যায়নি।

কলকাতায় এই দুজন বাংলাদেশি নাগরিকের মৃত্যুর ঘটনায় বাংলাদেশের কলকাতার উপহাইকমিশনের পক্ষ থেকে যোগাযোগ শুরু করা হয়েছে।

শেক্সপিয়ার থানা পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, কাজী মোহাম্মদ মঈনুল আলমের (৩৬) বাবার নাম কাজী মো. খলিলুর রহমান। তার বাড়ি ঝিনাইদহের ভুটিয়ার ঘাঁটি পোস্ট অফিস এলাকায়।

ফারহানা ইসলাম তানিয়ার (৩০) বাবার নাম মোহাম্মদ আমিরুল ইসলাম। তার বাড়ির ঠিকানা ১৫-বি লালমাটিয়া, জাকির হোসেন রোড, মোহাম্মদপুর, ঢাকা।

কলকাতায় গতকাল আরও একটি ঘটনায় ছয় বাংলাদেশি আহত হয়েছেন। গতকাল বেলা সাড়ে চারটার দিকে কলকাতার অন্যতম দর্শনীয় স্থান ভিক্টোরিয়া পার্কে বেড়াতে গিয়েছিলেন তারা। তখন ওই এলাকায় তুমুল বজ্রপাতের ঘটনা ঘটে। যদিও আহত বাংলাদেশিদের সবাই স্থানীয় হাসপাতাল থেকে চিকিৎসা নিয়ে যে যার গন্তব্যে চলে গেছেন।

Comments

The Daily Star  | English

AL to go tough to quell infighting

Over the first six months of this year, there were on average more than two incidents of infighting every day in Awami League. These conflicts accounted for 94 percent of the total 440 incidents of political violence during the same period.

5h ago