শ্যামনগরে আওয়ামী লীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষে পাঁচ জন গুলিবিদ্ধ

সাতক্ষীরার শ্যামনগরে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগের দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষে পাঁচজন গুলিবিদ্ধসহ অন্তত ৩০জন আহত হয়েছে। প্রায় দুই ঘণ্টা ধরে চলা সংঘর্ষের এক পর্যায়ে পুলিশ রাবার বুলেট নিক্ষেপ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

সাতক্ষীরার শ্যামনগরে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগের দুই পক্ষের মধ্যে  সংঘর্ষে পাঁচজন গুলিবিদ্ধসহ অন্তত ৩০জন আহত হয়েছে। প্রায় দুই ঘণ্টা ধরে চলা সংঘর্ষের এক পর্যায়ে পুলিশ রাবার বুলেট নিক্ষেপ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

রোববার দুপুর দেড়টার দিকে বংশীপুর বাসস্ট্যান্ডে ঈশ্বরীপুর ইউপি চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি শোকর আলী এবং উপজেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও সদ্য আওয়ামী লীগে যোগদানকারী নেতা সাদেকুর রহমান সাদেমের সমর্থকদের মধ্যে থেমে থেমে এ সংঘর্ষ চলে।

আহতদের মধ্যে আক্তার আলী, আব্দুস সালাম, আব্দুল আলিম, আবু সাইদ, নুর মোহাম্মদ, আবদুল বারেক, আওসাফুর, সফিকুল ও শাহ আলমের নাম জানা গেছে। এদের মধ্যে গুলিবিদ্ধ আফসার আলী (৩০), আব্দুস সালাম (৩৮), সফিকুল ইসলাম (৪০), আবু জাহিদ (৩০), নুর মোহাম্মদ আলীকে (২৫) প্রথমে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাদেরকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শী জানান, দুপুরে আওয়ামী লীগের সভাপতি শোকর আলীর সমর্থক আব্দুল আলিমের নেতৃত্বে সাদেকুর রহমানের সমর্থক শহীদুল ইসলামকে মারধর করা হয়। এ ঘটনার জেরে দুপক্ষের সমর্থকরা লাঠিসোটা নিয়ে বংশীপুর বাসস্ট্যান্ডে সংঘর্ষে জড়ায়।

ঈশ্বরীপুর ইউপি চেয়ারম্যান শোকর আলীর দাবি, সাদেকুর রহমান বিএনপি থেকে সদ্য আওয়ামীলীগে যোগদান করে তাদের কর্মীদের নানাভাবে হয়রানি করছেন। তার সমর্থক উপজেলা শ্রমিক দলের সাধারণ সম্পাদক আসমত সরদার ও জাসাসের সভাপতি আব্দুল ওহাব গাজী তাদের কর্মী আব্দুল হালিমকে মারপিট করে। এছাড়া ১৫ আগস্ট শোক দিবস পালনে নানা বিঘ্ন সৃষ্টি করে। এসব নিয়ে প্রতিবাদ করায় সাদেকুর রহমানের সমর্থকরা তাদের উপর হামলা চালায়। এতে তাদের পাঁচজন আহত হয়। পরে পুলিশ রবার বুলেট ছুঁড়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ নিয়ে আসে। তিনি বলেন এ ব্যাপারে তিনি থানায় অভিযোগ দিয়েছেন।

তবে সাদেকুর রহমানের দাবি, শহীদুল নামের তার এক কর্মীকে মারপিট করে শোকর আলীর লোকজন। তারা এর প্রতিবাদ করায় ঢাল, সড়কি ও লাঠি নিয়ে তাদের ওপর হামলা চালানো হয়। এ সময় তাদের দিকে গুলিও করা হয়। এতে সাতজন গুলিবিদ্ধসহ ২৫ জন আহত হন। আহতদের শ্যামনগর, সাতক্ষীরা ও খুলনার বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তিনি আরও বলেন, ঘটনাটি নিয়ে থানায় অভিযোগ দেওয়া হবে।

শ্যামনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আনিসুর রহমান জানান, পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়েন আছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ রাখতে ২৯ রাউন্ড রবার বুলেট ছোঁড়া হয়েছে। রবার বুলেটে কেউ কেউ আহত হতে পারে।

Comments

The Daily Star  | English

Govt may go for quota reforms

The government is considering a logical reform in the existing quota system in public service, but it will not take any initiative to that effect or give any assurances until the matter is resolved by the Supreme Court, where the issue is now pending.

1d ago