মেসিকে নকল করেছেন গ্রিজমান?

শুরুতে পিছিয়ে পড়ার পর গোল শোধ তো করেছেনই, এরপর দলকে এগিয়েও দিলেন আতোঁয়া গ্রিজমান। তাই দ্বিতীয় গোলের পর তার উচ্ছ্বাসটা বাঁধভাঙ্গা হওয়ারই কথা। হয়েছেও তাই। সতীর্থদের সঙ্গে উদযাপন করার পর মাঠের এক কোণায় গিয়ে আরও একবার চকচকে কাগজ উড়িয়ে আবারো উদযাপন করেন চলতি মৌসুমেই বার্সেলোনায় যোগ দেওয়া আতোঁয়া গ্রিজমান। আর এরপরই আলোচনা এমন উদযাপন করলেন কেন এ ফরাসী?
ছবি: এএফপি

শুরুতে পিছিয়ে পড়ার পর গোল শোধ তো করেছেনই, এরপর দলকে এগিয়েও দিলেন আতোঁয়া গ্রিজমান। তাই দ্বিতীয় গোলের পর তার উচ্ছ্বাসটা বাঁধভাঙ্গা হওয়ারই কথা। হয়েছেও তাই। সতীর্থদের সঙ্গে উদযাপন করার পর মাঠের এক কোণায় গিয়ে আরও একবার চকচকে কাগজ উড়িয়ে উদযাপন করেন চলতি মৌসুমেই বার্সেলোনায় যোগ দেওয়া আতোঁয়া গ্রিজমান। আর এরপরই আলোচনা এমন উদযাপন করলেন কেন এ ফরাসী?

ফুটবলার হলেও বাস্কেটবল খেলার দারুণ ভক্ত গ্রিজমান। লস অ্যাঞ্জেলস লেকারস তারকা লিব্রন জেমসও তার পছন্দের একজন খেলোয়াড়। স্কোর করার পর প্রায়ই রঙিন কাগজের টুকরো উড়িয়ে উদযাপন করেন এ তারকা। গ্রিজমানও তেমনটাই করার চেষ্টা করেন। তবে গোল দেওয়ার পর প্রায় সময়ই দুই হাত প্রসারিত করে মাথা এলিয়ে উদযাপন করেন মেসি। অনুশীলনেও এমনটা করে থাকেন। গ্রিজমান অনুকরণ করেছেন সেটাও।

ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে এমন উদযাপনের কারণ জানতে চাওয়া হয় গ্রিজমানের কাছে। অনুশীলনে মেসিকে দেখেই অনুপ্রাণিত হয়ে নিজেও করেছেন বলে জানালেন এ ফরাসী, 'অনুশীলনে আমি লিওকে এটা করতে দেখেছি। তাই আমি এটা নকল করার চেষ্টা করেছি। আর উদযাপন (রঙিন কাগজ উড়ানো)? আমি লিব্রনের উদযাপন অনেক পছন্দ করি, তাই চেষ্টা করেছি।'

ম্যাচের ৫০তম মিনিটে দ্বিতীয় গোলটি করেন গ্রিজমান। এরপর এক পর্যায়ে মাঠের কোণে দাঁড়িয়ে থাকা এক ব্যক্তির কাছে দৌড়ে যান তিনি। একটি গ্লাসে রাখা কিছু চকচকে কাগজের টুকরো গ্রিজমানের হাতে তুলে দেন সে ব্যক্তি। এরপর মাথার উপর উড়িয়ে দুই হাত প্রসারিত করে কয়েক মুহূর্ত দাঁড়িয়ে থাকেন গ্রিজমান।

গ্রিজমানের সে গোলের পরই বদলে যায় বার্সেলোনা। এরপর ২৭ মিনিটে আরও তিনটি গোল আদায় করে নেয় দলটি। অথচ ম্যাচের ১৫ মিনিটেই পিছিয়ে পড়েছিল তারা। তখন শঙ্কা জেগেছিল, অ্যাথলেটিক বিলবাও ম্যাচের পুনরাবৃত্তিই না হয় আবার। তবে গ্রিজমান তা হতে দেননি। দলের প্রাণ ভোমরা অধিনায়ক লিওনেল মেসি, তার উপর লুইস সুয়ারেজ ও উসমান দেম্বেলের অনুপস্থিতিতে নেতার মতোই দলকে টেনে নিয়েছেন। জোড়া গোলের পাশাপাশি আরও একটি গোল করিয়েছেন তিনি। ম্যাচ শেষে তাই ব্যবধানটাও বড়।

বিলবাওর বিপক্ষে হারের পর ব্যাপক সমালোচনায় পড়েছিল বার্সেলোনা। পড়েছিলেন গ্রিজমানও। ১২০ মিলিয়ন ইউরো দিয়ে কেনা এ খেলোয়াড়কে অনেকেই লস প্রজেক্ট বলে আখ্যা দিয়েছিলেন। তবে এক ম্যাচ যেতেই চিত্র বদলে দিয়েছেন এ ফরাসী। সমালোচকরাই এখন তার বন্দনায় মেতেছেন।

'সে ম্যাচে হারের পর অনেক কিছুই শুনতে হয়েছে। আমাদের এ সপ্তাহে কাজটা করতেই হতো। তাদের গোলের পর আমরা জেগে উঠেছি এবং পরে ভালো খেলে অনেক সুযোগ তৈরি করেছি। আমরা উপভোগ করেছি এবং আশা করি এটা নিয়মিত হবে।'- বেতিসের বিপক্ষে জয় নিয়েই এমনটাই বলেন গ্রিজমান।

Comments

The Daily Star  | English

No power cuts during Tarabi prayers, Sehri: PM

Sheikh Hasina also said prices of essentials will be stable during Ramadan

33m ago