কী করবেন আসামের ১৯ লাখ মানুষ?

আসামের নাগরিকপঞ্জির চূড়ান্ত তালিকায় নাম না থাকা ১৯ লাখ মানুষ এখন কী করবেন? সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন ভারতের সর্বত্র।
NRC-whats next
৩০ আগস্ট ২০১৯, এনআরসির চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশের প্রাক্কালে আসামের হোজাই জেলার কাচারি পাড়ায় ভারতীয় নিরাপত্তা বাহিনীর টহল। ছবি: রয়টার্স

আসামের নাগরিকপঞ্জির চূড়ান্ত তালিকায় নাম না থাকা ১৯ লাখ মানুষ এখন কী করবেন? সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন ভারতের সর্বত্র।

ভারতীয় গণমাধ্যমে বিশ্লেষণ চলছে। চলছে তর্ক-বিতর্ক।

গণমাধ্যম এবং সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ার পর ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার এবং আসাম রাজ্য সরকার নিশ্চয়তা দিয়ে বলেছে যে, যাদের নাম চূড়ান্ত তালিকায় নেই তাদেরকে বিদেশি বলে গণ্য করা হবে না। তারা নিজেদের ভারতীয় নাগরিক হিসেবে প্রমাণ করার সুযোগ পাবেন। আদালতে যাওয়ার সুযোগ পাবেন। কেন্দ্রীয় সরকার এক্ষেত্রে সহায়তা করবে।

সরকার নিশ্চিত করে বলছে, তালিকায় না থাকা ব্যক্তিদের কোনো বন্দিশিবিরে আটকে রাখা হবে না।

যদিও এতে আসামে স্বস্তি ফিরছে না। সাধারণ, দরিদ্র মানুষের আদালতে দৌড়াদৌড়ি করাটাই বড় ঝামেলার ব্যাপার।

আদালতে গিয়ে প্রমাণ করা যাবে যে তারা ভারতীয় নাগরিক- এই ভরসাও করতে পারছেন না ১৯ লাখ মানুষ। যদি আদালতও বলে দেয় যে তারা ভারতীয় নাগরিক নন, তখন কী হবে? বন্দী শিবিরে আটকে রাখা হবে, না অনুপ্রবেশকারী বলে বাংলাদেশে ফেরত পাঠানো হবে? নাকি নাগরিকত্বহীনভাবে সুযোগ-সুবিধা ছাড়া আসামে বসবাস করতে হবে?- এসব প্রশ্নের উত্তর মিলছে না। ফলে আতঙ্ক না কমে, বাড়ছে। ধারণা করা হচ্ছে, নাগরিকপঞ্জি নিয়ে ভারতের রাজনীতি অনেক বছর পর্যন্ত ঘুরপাক খাবে।

উল্লেখ্য, আজ সকালে আসামের নাগরিকপঞ্জি চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশিত হওয়ার পর প্রায় ১৯ লাখের বেশি মানুষের নাম সেই তালিকায় স্থান পায়নি।

আরো পড়ুন:

আসামের নাগরিক তালিকা থেকে বাদ ১৯ লাখ

কারগিল যুদ্ধের সৈনিকও ভারতীয় নাগরিক নন!

ভারতের ‘অভ্যন্তরীণ’-‘বাংলাদেশি’ ইস্যু!

তালিকায় নেই বিরোধীদলের বিধায়কের নাম

এনআরসি কোনো বাংলাদেশিকে বহিষ্কারের কোয়ার্টার ফাইনাল, সেমিফাইনাল বা ফাইনাল নয়: আসামের মন্ত্রী

কী করবেন আসামের ১৯ লাখ মানুষ?

নাগরিকপঞ্জিকে ত্রুটিপূর্ণ বললো আসামের ছাত্র সংগঠন

Comments

The Daily Star  | English
Dhaka Airport Third Terminal: 3rd terminal to open partially in October

Dhaka airport's terminal-3 to open in Oct

The much anticipated third terminal of the Dhaka airport is likely to be fully open in October, multiplying the passenger and cargo handling capacity.

2h ago