‘দিল্লির অবস্থা ভয়াবহ, আমরা এনআরসি করবো’

ভারতের ক্ষমতাসীন দল বিজেপির দিল্লির শাখার সভাপতি মনোজ তিওয়ারির মতে দেশটির রাজধানী দিল্লির অবস্থা ভয়াবহ। সেখানে নাগরিকপঞ্জি (এনআরসি) করার ইচ্ছাও প্রকাশ করেছেন তিনি।
Assam NRC
আসামের কামরূপ জেলার একটি কেন্দ্রে নাগরিকপঞ্জির তালিকায় নিজেদের নাম খুঁজছেন লোকজন। ছবি: সংগৃহীত

ভারতের ক্ষমতাসীন দল বিজেপির দিল্লির শাখার সভাপতি মনোজ তিওয়ারির মতে দেশটির রাজধানী দিল্লির অবস্থা ভয়াবহ। সেখানে নাগরিকপঞ্জি (এনআরসি) করার ইচ্ছাও প্রকাশ করেছেন তিনি।

তার মতে, “অবৈধ অভিবাসীরা দীর্ঘদিন ধরে এখানে (দিল্লি) বসবাস করে পরিস্থিতি ভয়ানক করে তুলেছে। আমরা এখানে এনআরসি প্রয়োগ করবো।”

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির এক প্রতিবেদনে বলা হয়, গতকাল (৩১ আগস্ট) আসামে এনআরসির চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশিত হওয়ার পর দিল্লিতে নাগরিকপঞ্জি করার দাবি তুলেছেন বিজেপি সাংসদ ও দিল্লি বিজেপির সভাপতি মনোজ তিওয়ারি।

তিনি বলেন, “ভারতের রাজধানী দিল্লির অবস্থা ‘ভয়াবহ’। অবৈধ অভিবাসীতে ভরে গিয়েছে দিল্লি। তাই তাদের চিহ্নিত করতে দিল্লিতেও প্রয়োগ করা হোক এনআরসি।”

আগামী ২০২০ সালে দিল্লিতে বিধানসভা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। সেই প্রেক্ষিতে মনোজের বক্তব্যকে বেশ ইঙ্গিতপূর্ণ বলে মনে করছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা।

চলতি বছর অনুষ্ঠিত হওয়া লোকসভা ভোটের প্রচারে বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ আশ্বাস দিয়েছিলেন যে ভারত থেকে অনুপ্রবেশকারীদের বের করে দেওয়া হবে। অনুপ্রবেশকারীদের ‘আগাছা’ বলে তিরস্কার করেছিলেন তিনি। তাই ধরে নেওয়া হচ্ছে, মনোজ তিওয়ারি দলের অবস্থান মেনেই কথা বলছেন।

তবে, দলের অবস্থানের বিরুদ্ধে মুখ খুলেছেন আসামের বিজেপি নেতা হেমন্ত বিশ্বশর্মা। এনআরসি করে অনুপ্রবেশসহ নানা সমস্যা বন্ধ করা যাবে না বলে মন্তব্য করেছেন তিনি।

সাংবাদিকদের হেমন্ত বলেন. “আমরা খসড়া তালিকার ঠিক পরেই এনআরসির বর্তমান রূপ নিয়ে আশা হারিয়ে ফেলেছি। যখন এতো সংখ্যক প্রকৃত ভারতীয়রাই তালিকার বাইরে থাকেন, তখন আপনি কীভাবে দাবি করতে পারেন যে এই নাগরিক তালিকা অসমিয়া সমাজের জন্যে মঙ্গলময় হবে।”

আসামে এনআরসির ফলে বহু হিন্দু ভোটারের নাম বাদ পড়েছে। আর এতেই উদ্বিগ্ন বিজেপি নেতারা। তাই সমস্যা সমাধানে এখন কেন্দ্র ও আসামের বিজেপি সরকার নতুন কোনো পরিকল্পনা আঁটছে বলেও মনে করেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা।

Comments

The Daily Star  | English

At least 6 killed in quota protest clashes

Border Guard Bangladesh was deployed in Dhaka, Chattogram, Rajshahi, Rangpur and Bogura to maintain law and order

6h ago