চট্টগ্রাম টেস্টে ‘পার্থক্য গড়বেন’ যারা

উইকেট যদি টার্নিং হয় দুই দলের স্পিনাররাই নেবেন মুখ্য ভূমিকা। সহজ করে ভাবলে, ঘূর্ণি বলে মুন্সিয়ানায় যারা এগিয়ে থাকবে, তাদের পক্ষেই ফল যাওয়ার সম্ভাবনা বেশি। কিন্তু বাংলাদেশ অধিনায়ক সাকিব আল হাসান ভাবছেন ভিন্নভাবে। স্পিনাররা যেমনই করুন, তাদের বিপক্ষে যে দলের ব্যাটসম্যানরা দেখাতে পারবেন দক্ষতা, তারাই না-কি গড়বেন তফাৎ।
Shakib Al Hasan & Mominul Haque
নেট সেশনে শেষে বিশ্রাম নিচ্ছেন সাকিব আল হাসান ও মুমিনুল হক, ছবি: ফিরোজ আহমেদ

উইকেট যদি টার্নিং হয় দুই দলের স্পিনাররাই নেবেন মুখ্য ভূমিকা। সহজ করে ভাবলে, ঘূর্ণি বলে মুন্সিয়ানায় যারা এগিয়ে থাকবে, তাদের পক্ষেই ফল যাওয়ার সম্ভাবনা বেশি। কিন্তু বাংলাদেশ অধিনায়ক সাকিব আল হাসান ভাবছেন ভিন্নভাবে। স্পিনাররা যেমনই করুন, তাদের বিপক্ষে যে দলের ব্যাটসম্যানরা দেখাতে পারবেন দক্ষতা, তারাই না-কি গড়বেন তফাৎ।

চট্টগ্রাম টেস্ট মাঠে গড়ানোর আগের দিন বুধবার (৪ সেপ্টেম্বর) পাশাপাশি নেটে ব্যাট করছিলেন মাহমুদউল্লাহ ও সাকিব। প্রান্ত বদলে মুমিনুল হক ও মোহাম্মদ মিঠুনও ঝালিয়ে নিচ্ছিলেন নিজেদের। তার আগে মুশফিকুর রহিম সেরেছেন লম্বা সেশন। সৌম্য সরকার, সাদমান ইসলামরাও নিজেদের প্রস্তুত রেখেছেন শতভাগ।

নামগুলো বলে দেয় যে, টেস্টে বাংলাদেশের ব্যাটিং লাইনআপ আফগানদের চেয়ে বেশ পোক্ত। রশিদ খান, মোহাম্মদ নবীদের মতো বোলার থাকায় বোলিংয়ে যেখানে নিজেদের চট করে এগিয়ে রাখা যাচ্ছে না, ব্যাটিংয়ে অন্তত সহজেই বাংলাদেশ নিজেদের এগিয়ে রাখার সুযোগ পাচ্ছে। অধিনায়ক সাকিব তাই দুদলের স্পিনারদের কার্যকারিতা চিন্তা করেই বললেন, আসলে তফাৎ হবে ব্যাটিংয়ে, ‘দেখুন, দেশে আমরা তো ভালোই বোলিং করছি। আমাদের স্পিনাররা যখনই সুযোগ পেয়েছে, তাদের পছন্দমতো উইকেট যখন পেয়েছে, সবসময়ই ভালো করেছে। তবে সেটি বলার পরও, ওদেরও মানসম্পন্ন স্পিনার আছে। আমার মনে হয়, পার্থক্য গড়ে দিতে পারে এখানে দুই দলের ব্যাটিংটাই।’

Soumya Sarkar & Russell Domingo

আফগানদের ব্যাটিংকে অবশ্য একেবারেই সাদামাটা ভাবারও সুযোগ নেই। কদিন আগেও ওদের ‘এ’ দল দেখিয়ে গেছে নিজেদের সামর্থ্য। হারিয়ে গেছে বাংলাদেশ ‘এ’ দলকে। চট্টগ্রামে এসে দুইদিনের প্রস্তুতি ম্যাচে ওদের দুই ওপেনার ইহসানুল্লাহ আর ইব্রাহিম জাদরান দেখিয়েছেন দৃঢ়তা। সব মাথায় রেখেই ফল নিজের দিকে আনতে চান সাকিব, ‘আমাদের এটা চিন্তা করতে হবে যে ওরা যখন ‘এ’ দলের হয়ে এখানে খেলেছে বা এই দুই দিনের প্রস্তুতি ম্যাচটিও খেলেছে, ওদের ওপেনাররা ওরকম ধৈর্যের পরিচয় দিয়েছে। সবকিছুই এখানে বিবেচনার বিষয় আছে। আমাদের যেটা করতে হবে, মৌলিক কাজগুলো ঠিকঠাক করতে হবে। আমরা আমাদের মৌলিক কাজগুলো ঠিক করতে পারলে ও মনোযোগ ধরে রাখতে পারলে, আমার মনে হয়, আমরা ভালো কিছু করব।’

গত দিন পনেরো ধরেই এই টেস্টের জন্য প্রস্তুত হচ্ছেন বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরা। আফগানদের বৈচিত্র্যপূর্ণ বোলিং আক্রমণ থাকলেও তাই সে চ্যালেঞ্জটা সামলাতে ব্যাটসম্যানদের ওপর আস্থা সাকিবের, ‘হ্যাঁ, চ্যালেঞ্জ অবশ্যই থাকবে ব্যাটসম্যানদের পারফর্ম করার। কারণ ওদের যারা ফাস্ট বোলার আছে তারাও বেশ ভালো মানের। স্পিনাররা তো খুবই ভালো। স্বাভাবিকভাবেই আমাদের ব্যাটসম্যানদের জন্য অনেক বড় চ্যালেঞ্জ অপেক্ষা করছে। কিন্তু আমি আমার ব্যাটসম্যানদের ওপর পুরোপুরি আস্থা রাখছি। আসলে গত দুই সপ্তাহে যতটা প্রস্তুতি নিয়েছে, এর চেয়ে বেশি কিছু করা আমার কাছে উচিত বলে মনে করি না। সবাই যার যার জায়গা থেকে সর্বোচ্চটা দিয়েছে। এখন শুধু মাঠে ওই অনুশীলনের প্রতিফলন ফেলতে পারলে আমরা ভালো কিছু করতে পারব।'

Comments

The Daily Star  | English

Dozens injured in midnight mayhem at JU

Police fire tear gas, pellets at quota reform protesters after BCL attack on sit-in; journalists, teacher among ‘critically injured’

2h ago