ফিফপ্রো বর্ষসেরা একাদশের ৫৫ জনের তালিকায় বার্সার ১১

২০১৯ সালের ফিফা ফিফপ্রো বর্ষসেরা একাদশের জন্য ঘোষিত ৫৫ জনের সংক্ষিপ্ত তালিকায় জায়গা করে নিয়েছেন বার্সেলোনার ১১ ফুটবলার। একক ক্লাব হিসেবে কাতালানরা আধিপত্য দেখালেও গেল ১০ বছরের মধ্যে এবারই প্রথম ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ টেক্কা দিয়েছে লা লিগাকে। ইংলিশ লিগ থেকে মনোনয়ন পেয়েছেন সর্বোচ্চ ২১ জন খেলোয়াড়। এবারের তালিকায় চমক রয়েছে আরও বেশ কয়েকটি।
barcelona fifa fifpro
ছবি: এফসি বার্সেলোনার টুইটার পেজ থেকে সংগৃহীত

২০১৯ সালের ফিফা ফিফপ্রো বর্ষসেরা একাদশের জন্য ঘোষিত ৫৫ জনের সংক্ষিপ্ত তালিকায় জায়গা করে নিয়েছেন বার্সেলোনার ১১ ফুটবলার। একক ক্লাব হিসেবে কাতালানরা আধিপত্য দেখালেও গেল ১০ বছরের মধ্যে এবারই প্রথম ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ টেক্কা দিয়েছে লা লিগাকে। ইংলিশ লিগ থেকে মনোনয়ন পেয়েছেন সর্বোচ্চ ২১ জন খেলোয়াড়। এবারের তালিকায় চমক রয়েছে আরও বেশ কয়েকটি।

বৃহস্পতিবার (৫ সেপ্টেম্বর) ফুটবলের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা (ফিফা) ও পেশাদার ফুটবলারদের আন্তর্জাতিক সংস্থা (ফিফপ্রো) মিলে এই সংক্ষিপ্ত তালিকা প্রকাশ করেছে। বর্ষসেরা একাদশের জন্য মনোনীত ৫৫ জনকে বেছে নেওয়া হয়েছে সারা বিশ্বের ২৩ হাজার ফুটবলারের ভোটে।

তালিকায় লা লিগার বর্তমান চ্যাম্পিয়ন বার্সার যে ১১ ফুটবলার আছেন, তাদের নয়জন গেল মৌসুমে ক্লাবটির হয়ে মাঠ মাতিয়েছেন। তারা হলেন- মার্ক-আন্দ্রে টের স্টেগেন, জর্দি আলবা, জেরার্ড পিকে, সার্জিও বুসকেটস, আর্থার মেলো, ইভান রাকিতিচ, আর্তুরো ভিদাল, লুইস সুয়ারেজ ও লিওনেল মেসি। চলতি মৌসুমে অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদ থেকে যোগ দেওয়া আঁতোয়া গ্রিজমান ও আয়াক্স আমস্টারডাম থেকে আসা ফ্রাঙ্কি ডি ইয়ংও জায়গা করে নিয়েছেন।

বার্সার পরেই আছে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী রিয়াল মাদ্রিদ। তাদের নয় ফুটবলার রয়েছেন তালিকায়। উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শিরোপাধারী লিভারপুলের সাত খেলোয়াড়ের নাম রয়েছে তালিকায়। তবে অলরেডরা নয়, ইংলিশ ক্লাবগুলোর মধ্যে শীর্ষে রয়েছে ম্যানচেস্টার সিটি। তাদের আট খেলোয়াড় জায়গা পেয়েছেন।

সবশেষ ২০০৯ সালে ইংলিশ লিগ থেকে সর্বোচ্চ সংখ্যক ফুটবলার মনোনয়ন পেয়েছিলেন। এক দশক পর আবার ইংলিশ দলগুলো প্রাধান্য দেখিয়েছে। তাদের ২১ ফুটবলারের বিপরীতে লা লিগার ক্লাবগুলো থেকে জায়গা পেয়েছেন ২০ জন।

২০০৫ সাল থেকে বর্ষসেরা একাদশ নির্বাচনের প্রচলন হওয়ার পর এবারই প্রথম সংক্ষিপ্ত তালিকায় নেই জুভেন্টাসের গোলরক্ষক জিয়ানলুইজি বুফনের নাম। ফলে একমাত্র খেলোয়াড় হিসেবে সবগুলো (১৫টি) তালিকায় স্থান করে নেওয়ার রেকর্ডটা দখলে নিয়েছেন বুফনেরই ক্লাব সতীর্থ ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো।

দেশ হিসেবে সবচেয়ে বেশি সংখ্যক খেলোয়াড় আছেন ব্রাজিল থেকে। সেলেসাওরা জোগান দিয়েছে ১০ ফুটবলারের। ডেনমার্ক ও স্কটল্যান্ড থেকে প্রথমবারের মতো জায়গা পেয়ে ইতিহাস গড়েছেন যথাক্রমে ক্রিস্টিয়ান এরিকসেন ও অ্যান্ডি রবার্টসন।

চমকের শেষ নয় এখানেই। দক্ষিণ কোরিয়া ও এশিয়ার প্রথম ফুটবলার হিসেবে ফিফা ফিফপ্রো বর্ষসেরা একাদশের সংক্ষিপ্ত তালিকায় নাম লিখিয়েছেন সন হিউং-মিন। ইংলিশ ক্লাব টটেনহ্যাম হটস্পারের জার্সিতে গেল বছরটা দুর্দান্ত কেটেছে এই ফরোয়ার্ডের।

আগামী ২৩ সেপ্টেম্বর ইতালির মিলানে ‘দ্য বেস্ট ফিফা ফুটবল অ্যাওয়ার্ড’ অনুষ্ঠানে বর্ষসেরা একাদশ ঘোষণা করা হবে। একাদশ সাজানো হবে ৪-৩-৩ ফরমেশনে, অর্থাৎ একজন গোলকিপার, চারজন ডিফেন্ডার এবং তিনজন করে মিডফিল্ডার ও ফরোয়ার্ড থাকবে। একই অনুষ্ঠানে বর্ষসেরা ফুটবলারের নাম জানানো হবে এবং বছরের সেরা গোলের পুরস্কারও দেওয়া হবে।

ফিফা ফিফপ্রো বর্ষসেরা একাদশের জন্য ঘোষিত ৫৫ জনের সংক্ষিপ্ত তালিকা:

গোলকিপার (৫): অ্যালিসন (লিভারপুল), ডেভিড ডে গিয়া (ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড), এডারসন (ম্যানচেস্টার সিটি), ইয়ান ওবলাক (অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদ), মার্ক-আন্দ্রে টের স্টেগেন (বার্সেলোনা)।

ডিফেন্ডার (২০): জর্দি আলবা (বার্সেলোনা), ট্রেন্ট আলেকজান্ডার-আর্নল্ড (লিভারপুল), দানি আলভেস (পিএসজি/সাও পাওলো), হোয়াও কানসেলো (জুভেন্টাস/ম্যানচেস্টার সিটি), দানি কারভাহাল (রিয়াল মাদ্রিদ), জর্জিও কিয়েলিনি (জুভেন্টাস), ভার্জিল ভ্যান ডাইক (লিভারপুল), দিয়েগো গডিন (অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদ/ইন্টার মিলান), জশুয়া কিমিচ (বায়ার্ন মিউনিখ), কালিদু কৌলিবালি (নাপোলি), আইমেরিক লাপোর্ত (ম্যানচেস্টার সিটি), মাথিস দি লিট (আয়াক্স আমস্টারডাম/জুভেন্টাস), জেরার্ড পিকে (বার্সেলোনা), সার্জিও রামোস (রিয়াল মাদ্রিদ), অ্যান্ডি রবার্টসন (লিভারপুল), অ্যালেক্স সান্দ্রো (জুভেন্টাস), থিয়াগো সিলভা (পিএসজি), রাফায়েল ভারান (রিয়াল মাদ্রিদ), মার্সেলো (রিয়াল মাদ্রিদ), কাইল ওয়াকার (ম্যানচেস্টার সিটি)।

মিডফিল্ডার (১৫): সার্জিও বুসকেটস (বার্সেলোনা), কাসেমিরো (রিয়াল মাদ্রিদ), কেভিন ডে ব্রুইন (ম্যানচেস্টার সিটি), ক্রিস্টিয়ান এরিকসেন (টটেনহ্যাম হটস্পার), ফ্রাঙ্কি ডি ইয়ং (আয়াক্স আমস্টারডাম/বার্সেলোনা), এডেন হ্যাজার্ড (চেলসি/রিয়াল মাদ্রিদ), এনগোলো কান্তে (চেলসি), টনি ক্রুস (রিয়াল মাদ্রিদ), আর্থার মেলো (বার্সেলোনা), লুকা মদ্রিচ (রিয়াল মাদ্রিদ), পল পগবা (ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড), ইভান রাকিতিচ (বার্সেলোনা), বার্নার্দো সিলভা (ম্যানচেস্টার সিটি), দুসান তাদিচ (আয়াক্স আমস্টারডাম), আর্তুরো ভিদাল (বার্সেলোনা)।

ফরোয়ার্ড (১৫): সার্জিও আগুয়েরো (ম্যানচেস্টার সিটি), করিম বেনজেমা (রিয়াল মাদ্রিদ), রবার্তো ফিরমিনো (লিভারপুল), আঁতোয়া গ্রিজমান (বার্সেলোনা), হ্যারি কেন (টটেনহ্যাম হটস্পার), রবার্ট লেওয়ানডস্কি (বায়ার্ন মিউনিখ), সাদিও মানে (লিভারপুল), কিলিয়ান এমবাপে (পিএসজি), লিওনেল মেসি (বার্সেলোনা), নেইমার (পিএসজি), ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো (জুভেন্টাস), মোহামেদ সালাহ (লিভারপুল), সন হিউং-মিন (টটেনহ্যাম হটস্পার), রহিম স্টার্লিং (ম্যানচেস্টার সিটি), লুইস সুয়ারেজ (বার্সেলোনা)।

Comments

The Daily Star  | English

PM opens Police Week 2024

Prime Minister Sheikh Hasina opened Police Week 2024 at the Rajarbagh Police Lines in Dhaka this morning

33m ago