অযৌক্তিক দাবিতে পদত্যাগ করব না: জাবি উপাচার্য

নৈতিক স্খলন ও অর্থ কেলেঙ্কারির জন্য জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. ফারজানা ইসলামকে দায়ী করে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের একাংশ তার পদত্যাগের দাবিতে আন্দোলন চালিয়ে গেলেও তিনি ‘অযৌক্তিক’ দাবিতে পদত্যাগ করবেন না বলে জানিয়েছেন।
১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের সংবাদ সম্মেলনে (মাঝে) উপাচার্য অধ্যাপক ফারজানা ইসলাম। তার বামে ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার রহিমা কানিজ এবং ডানে সহকারী প্রক্টর মহিবুর রৌফ শৈবাল। স্টার ফাইল ছবি

নৈতিক স্খলন ও অর্থ কেলেঙ্কারির জন্য জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. ফারজানা ইসলামকে দায়ী করে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের একাংশ তার পদত্যাগের দাবিতে আন্দোলন চালিয়ে গেলেও তিনি ‘অযৌক্তিক’ দাবিতে পদত্যাগ করবেন না বলে জানিয়েছেন।

মঙ্গলবার দুপুর ২টার দিকে অধ্যাপক ফারজানা নিজ কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে বলেন, “বিচার বিভাগীয় তদন্তের যে দায়-দায়িত্ব আমাকে ওরা দিয়েছে, সেটি অযৌক্তিক। আমি এটা চাইতেও পারিনা, করতেও পারিনা। এটি সরকারের থেকে উদ্যোগ নিবে অথবা বিচার বিভাগ চিন্তা করবে। শুধু এখানে আমাকে একটা চাপ সৃষ্টি করার অর্থই হচ্ছে একটা অযৌক্তিক দাবি নিয়ে আমাকে স্বেচ্ছায় পদত্যাগের জন্য আহ্বান করা। যেহেতু যুক্তি নেই, সেখানে পদত্যাগের ইচ্ছা আমি প্রকাশ করছি না।”

এর আগে দুপুর ১টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ মিনারের পাদদেশে অধ্যাপক ফারজানার পদত্যাগের দাবিতে তার উদ্দেশে লাল কার্ড প্রদর্শন করেন আন্দোলনরত শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। ‘দুর্নীতির বিরুদ্ধে জাহাঙ্গীরনগর’ ব্যানারে উপাচার্যের পদত্যাগের জন্য বেঁধে দেওয়া সময়ের শেষ দিনে এ কর্মসূচি পালন করা হয়।

মঙ্গলবারের মধ্যে উপাচার্য পদত্যাগ না করলে বুধ ও বৃহস্পতিবার সর্বাত্মক ধর্মঘট পালনের ডাক দিয়েছেন আন্দোলনকারীরা।

দুর্নীতির বিরুদ্ধে জাহাঙ্গীরনগর- এর অন্যতম সংগঠক আরিফুল ইসলামকে উদ্ধৃত করে ইউএনবির খবরে বলা হয়, “এ উপাচার্য একজন দুর্নীতিবাজ, যৌন নিপীড়কের আশ্রয়দাতা ও মিথ্যাবাদী। ছাত্রলীগের সাথে তিনি প্রকল্পের টাকা সরাসরি লেনদেনে জড়িত। তিনি প্রকল্পে কমিশন বাণিজ্য করে এবং অযোগ্য প্রক্টরকে দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের শৃঙ্খলা রক্ষায় ব্যর্থ হয়ে উপাচার্যের পদকে কলঙ্কিত করেছেন। জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের সুনাম ও ভাবমূর্তি ফিরিয়ে আনার জন্য তার অপসারণে আমরা বদ্ধপরিকর।”

অন্যদিকে, উপাচার্যের বিরুদ্ধে ‘মিথ্যা অভিযোগকারী’ ও ‘চিহ্নিত দুর্নীতিবাজদের’ শাস্তির দাবিতে উপাচার্যপন্থী শিক্ষকদের সংগঠন ‘বঙ্গবন্ধু শিক্ষক পরিষদ’ বুধবার শহীদ মিনারের সামনে মানববন্ধন ও বৃহস্পতিবার দিনব্যাপী জনসংযোগ কর্মসূচি ঘোষণা করেছে।

 

আরও পড়ুন: 

জাবি উপাচার্যকে কালো পতাকা প্রদর্শন

মিথ্যা বলেছে ছাত্রলীগ, ‘চ্যালেঞ্জ’ ছুড়লেন জাবি উপাচার্য

আমরা ‘ন্যায্য পাওনা’ দাবি করেছিলাম: রাব্বানী

শিক্ষা নয়, জাবির আলোচনার বিষয় ‘২ কোটি টাকা’র ভাগ-বাটোয়ারা

‘২ কোটি টাকা ভাগের সংবাদে শিক্ষক হিসেবে খুব বিব্রত বোধ করি’

জাবি উপাচার্যের সঙ্গে ছাত্রলীগের ‘প্রশ্নবিদ্ধ বৈঠক’, টিআইবির উদ্বেগ

জাবি ছাত্রলীগের দলীয় কোন্দল ও সংঘর্ষের নেপথ্যে ৪৫০ কোটি টাকার নির্মাণ কাজ

জাবিতে চলমান উন্নয়ন পরিকল্পনার ‘মাস্টারপ্ল্যানে’ গোড়ায় গলদ!

Comments

The Daily Star  | English

Death came draped in smoke

Around 11:30, there were murmurs of one death. By then, the fire, which had begun at 9:50, had been burning for over an hour.

43m ago