স্রোতের কারণে পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া ফেরি চলাচল ব্যাহত

পদ্মা নদীতে অব্যাহত পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌপথে ফেরি চলাচল ব্যাহত হচ্ছে। পানি বেড়ে যাওয়ার সঙ্গে স্রোত বেড়ে যাওয়ায় ১৬টি ফেরির মধ্যে সচল রয়েছে মাত্র সাতটি।
পদ্মা নদীতে স্রোত বেড়ে যাওয়ায় পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া ঘাট দিয়ে ফেরি চলাচল ব্যাহত হচ্ছে। ছবি: জাহাঙ্গীর শাহ

পদ্মা নদীতে অব্যাহত পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌপথে ফেরি চলাচল ব্যাহত হচ্ছে। পানি বেড়ে যাওয়ার সঙ্গে স্রোত বেড়ে যাওয়ায় ১৬টি ফেরির মধ্যে সচল রয়েছে মাত্র সাতটি।

স্রোতের বিপরীতে ফেরি চালাতে গিয়ে এই সাতটিরও যান্ত্রিক ত্রুটি দেখা দেওয়ার আশংকা প্রকাশ করেছেন সংশ্লিষ্টরা।

ফেরি চলাচল ব্যাহত হওয়ায়, পাটুরিয়া ও দৌলতদিয়া ঘাটে ঘণ্টার পর ঘণ্টা অপেক্ষায় আটকা পড়ে থাকছে শতশত পণ্যবাহী ট্রাক ও যানবাহন।

আজ (বৃহস্পতিবার) বেলা ৩টার দিকে পাটুরিয়া ঘাট এলাকায় দেড় শতাধিক যাত্রীবাহী বাস ও প্রায় ৩০০ পণ্যবাহী ট্রাক ফেরি পারের অপেক্ষায় থাকতে দেখা গেছে।

একই অবস্থা দৌলতদিয়া ঘাটেও।

সোহাগ পরিবহনের একটি বাসের যাত্রী আলমগীর হোসেন বলেন, তিনি পরিবার পরিজন নিয়ে ঢাকা থেকে যশোর যাচ্ছেন। বুধবার রাত ১২টার দিকে তার বাসটি পাটুরিয়া ঘাটে আসে। বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টায়ও বাসটি ফেরিতে উঠতে পারেনি।

গ্রীন লাইন পরিবহনের যাত্রী আসমা আক্তার বলেন, তার বাস পাটুরিয়া ঘাটে আসে গত রাত সাড়ে ১২টায়। বাসটি বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টা পর্যন্ত ঘাটেই আটকা পড়ে ছিল।

এদিকে কয়েকজন ট্রাক চালক অভিযোগ করে বলেন, গত তিনদিন ধরে তারা পাটুরিয়া ঘাটে এসে আটকে রয়েছেন। বাসগুলোকে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে পার করানোয় তারা ফেরিতে উঠতে পারছেন না। পাঁচটি বাসের সঙ্গে একটি করে ট্রাক পার করানো হলেও সমস্যা অনেকটা কমবে বলে জানান তারা।

আরিচা ফেরি সেক্টরে ভারপ্রাপ্ত ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার মো. জিল্লুর রহমান জানান, গত এক সপ্তাহ ধরে পদ্মা নদীতে পানি বৃদ্ধি পাচ্ছে। এর সঙ্গে স্রোতের গতিও বেড়ে গেছে। নির্ধারিত চ্যানেলে ফেরিগুলো চালানো সম্ভব হচ্ছে না। ফেরিগুলো ঘুরপথে যেতে হচ্ছে। এ কারণে ফেরির ট্রিপ সংখ্যা কমে গেছে। সময় লাগছে প্রায় দ্বিগুণ।

এ কারণে পাটুরিয়া ঘাটের পরিস্থিতি ক্রমান্বয়ে খারাপের দিকে যাচ্ছে। ভোগান্তি এড়াতে পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌপথের গাড়িগুলোকে বিকল্প পথে চলার পরামর্শ দেন তিনি।

বিআইডব্লিউটিসির আরিচা কার্যালয়ের মধুমতি ভাসমান কারখানার নির্বাহী প্রকৌশলী স্বদেশ প্রসাদ মণ্ডল জানান, এই নৌপথে ১৬টি ফেরির মধ্যে বর্তমানে মাত্র সাতটি ফেরি চালাতে হচ্ছে। এরমধ্যে চারটি রো-রো, দুইটি ইউটিলিটি ফেরি ও একটি কেটাইপ ফেরি চলাচল করছে। বাকি ফেরিগুলো স্রোতের বিপরীতে চলতে পারছে না।

অপর দিকে ফেরি সেক্টরের এজিএম (মেরিন) আব্দুস সোবহান জানান, দৌলতদিয়া ঘাট এলাকায় স্রোতের কারণে ফেরি ঘাটে নোঙর করতে হিমশিম খাচ্ছে। সেখানকার ছয়টি ঘাটের দুইটি ঘাট স্রোতের কারণে ভেঙে গেছে।

Comments

The Daily Star  | English

Change Maker: A carpenter’s literary paradise

Right in the heart of Jhalakathi lies a library stocked with over 8,000 books of various genres -- history, culture, poetry, and more.

3h ago