কলকাতা টেস্টে প্রধানমন্ত্রীকে আমন্ত্রণ সৌরভ গাঙ্গুলির

ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের নতুন সভাপতি হতে যাওয়া সৌরভ গাঙ্গুলি আসছে নভেম্বরে কলকাতা টেস্টে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন। একই মঞ্চে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, আমন্ত্রণ পাচ্ছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও। এমন খবরই দিয়েছে কলকাতার দৈনিক আনন্দবাজার।

ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের নতুন সভাপতি হতে যাওয়া সৌরভ গাঙ্গুলি আসছে নভেম্বরে কলকাতা টেস্টে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন। একই মঞ্চে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে, আমন্ত্রণ পাচ্ছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও। এমন খবরই দিয়েছে কলকাতার দৈনিক আনন্দবাজার।

নভেম্বরে তিন টি-টোয়েন্টি আর দুই টেস্টের সিরিজ খেলতে ভারতে যাবে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। সিরিজের দ্বিতীয় এবং শেষ টেস্ট হবে কলকাতার ঐতিহ্যবাহী ভেন্যু ইডেন গার্ডেন্সে। ইডেনে প্রথমবার বাংলাদেশ-ভারতের টেস্ট ম্যাচকে ‘ঐতিহাসিক’ তকমা দিয়ে পত্রিকাটি জানিয়েছে, বিসিসিআইর নতুন কর্তা চাইছেন নিজ শহরে এই টেস্ট ম্যাচকে উৎসবের আমেজ দিতে।

সে কারণে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীকে নিমন্ত্রণ জানিয়ে আনুষ্ঠানিক চিঠি পাঠিয়েছেন ‘প্রিন্স অব কলকাতা’। ২০০০ সালে টেস্ট মর্যাদা পাওয়ার পর ভারতের বিপক্ষেই ঢাকার বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে অভিষেক টেস্ট খেলেছিল বাংলাদেশ। কাকতালীয়ভাবে সে টেস্ট দিয়েই ভারতের টেস্ট অধিনায়ক হিসেবে যাত্রা শুরু হয় সৌরভের। বছর বিশেকের মধ্যে সেই সৌরভই এখন ভারতীয় ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় কর্তা।

এর মধ্যে ভারত বেশ কয়েকবার দ্বিপাক্ষিক সফরে বাংলাদেশে এলেও ভারতের মাঠে বাংলাদেশ টেস্ট খেলেছে মাত্র একটি। ২০১৭ সালে হায়দরবাদে হয়েছিল সে টেস্ট।

২০১৬ সালে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে কলকাতার মাঠে দুই ম্যাচ খেললেও ঐতিহ্যবাহী এই ভেন্যুতে প্রতিপক্ষ হিসেবে স্বাগতিকদের কখনো পায়নি বাংলাদেশ। এবার তাই উপলক্ষকে রাঙাতে বাঙালি সৌরভ নিচ্ছেন বিশেষ উদ্যোগ। আর তাই ২২ নভেম্বর ইডেনে শুরু হতে যাওয়া টেস্ট ম্যাচের আগে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীকে চান তিনি। 

আনন্দবাজার জানিয়েছে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সৌরভের আমন্ত্রণ গ্রহণ করলে ইডেনে একসঙ্গে দেখা যেতে পারে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকেও।

Comments

The Daily Star  | English

11 years on, cries for justice remain unheeded

Marking the 11th anniversary of the Rana Plaza collapse, Bangladesh's deadliest industrial disaster, survivors and relatives of the victims today gathered at the site in Savar demanding adequate compensation and maximum punishment for the culprits

50m ago