১০০ বলের ক্রিকেটে বাংলাদেশের কেউই সুযোগ পাননি

ড্রাফটের বিদেশি খেলোয়াড়দের তালিকায় নাম ছিল বাংলাদেশের ১১ ক্রিকেটারের। কিন্তু কাউকেই ডাকেনি ‘দা হানড্রেড’-এ খেলতে যাওয়া আট দল। অর্থাৎ ইংল্যান্ডের মাটিতে ১০০ বলের ক্রিকেটের অভিষেক আসরে থাকছেন না কোনো বাংলাদেশি ক্রিকেটার।
shakib-tamim
ফাইল ছবি

ড্রাফটের বিদেশি খেলোয়াড়দের তালিকায় নাম ছিল বাংলাদেশের ১১ ক্রিকেটারের। কিন্তু কাউকেই ডাকেনি ‘দা হানড্রেড’-এ খেলতে যাওয়া আট দল। অর্থাৎ ইংল্যান্ডের মাটিতে ১০০ বলের ক্রিকেটের অভিষেক আসরে থাকছেন না কোনো বাংলাদেশি ক্রিকেটার।

রবিবার রাতে অনুষ্ঠিত হয়েছে ‘দা হানড্রেড’-এর ড্রাফট। শুরুতে ড্রাফটের তালিকায় নাম ছিল ছয় টাইগারের। তারা হলেন- সাকিব আল হাসান, তামিম ইকবাল, মুশফিকুর রহিম, মোহাম্মদ মিঠুন, মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন ও মোস্তাফিজুর রহমান। পরে যুক্ত করা হয় আরও পাঁচজনকে। অন্তর্ভুক্ত হন লিটন দাস, ইমরুল কায়েস, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, আবু হায়দার রনি ও তাসকিন আহমেদ।

কিন্তু ১১ ক্রিকেটারের কেউই সুযোগ পাননি। দল পাননি ওয়েস্ট ইন্ডিজের ক্রিস গেইল, শ্রীলঙ্কার লাসিথ মালিঙ্গার মতো অভিজ্ঞ ক্রিকেটাররা। আইসিসির টি-টোয়েন্টি র‌্যাঙ্কিংয়ের এক নম্বর ব্যাটসম্যান পাকিস্তানের বাবর আজমও হয়েছেন উপেক্ষিত। তবে আফগানিস্তান ও নেপালের খেলোয়াড়রা দল পেয়েছেন।

সাকিব ও তামিম ইকবাল ছিলেন একই ভিত্তি মূল্য ক্যাটাগরিতে। তাদের মূল্যমান ১ লাখ পাউন্ড, বাংলাদেশি টাকায় যা ১ কোটি ৭ লাখ টাকারও বেশি। পেসার মোস্তাফিজুর রহমানের ভিত্তি মূল্য ছিল ৬০ হাজার পাউন্ড (প্রায় ৬৫ লাখ টাকা)। মুশফিক, লিটন, ইমরুলের ভিত্তি মূল্য ছিল ৪০ হাজার পাউন্ড (৪৩ লাখ টাকা)। তাসকিন, আবু হায়দার, মিঠুন, মাহমুদউল্লাহ ও সাইফউদ্দিনের কোনো ভিত্তি মূল্য ছিল না।

ড্রাফটে সবার আগে ডাকা হয় আফগানিস্তানের লেগ স্পিনার রশিদের নাম। তাকে নিয়েছে ট্রেন্ট রকেটস। ওয়েস্ট ইন্ডিজের অলরাউন্ডার আন্দ্রে রাসেলকে দলে নিয়েছে সাউদার্ন ব্রেভ। তৃতীয় ডাকে অস্ট্রেলিয়ার ব্যাটসম্যান অ্যারন ফিঞ্চকে টেনেছে নর্দান সুপারচার্জার্স। তার স্বদেশী পেসার মিচেল স্টার্ককে নিয়েছে ওয়েলশ ফায়ার। বিদেশি খেলোয়াড়দের মধ্যে অস্ট্রেলিয়ানদের চাহিদা ছিল রমরমা। সর্বোচ্চ ভিত্তি মূল্য ক্যাটাগরি (১ লাখ ২৫ হাজার পাউন্ড) থেকে দল পেয়েছেন স্টিভ স্মিথ, গ্লেন ম্যাক্সওয়েল ও ডি’আর্চি শর্ট।

স্থানীয়-বিদেশি মিলে মোট ১২ জন করে ক্রিকেটার চূড়ান্ত ড্রাফট থেকে নিতে পেরেছে দলগুলো। প্রতিটি দলের স্কোয়াড ১৫ সদস্যের। আগেই একজন ইংলিশ টেস্ট ক্রিকেটারসহ তিনজন করে স্থানীয় ক্রিকেটার বেছে নিতে পেরেছিল তারা।

Comments