খেলা

মেসির নৈপুণ্যে জিতল বার্সেলোনা

২৪টি শট নিলেন দলের খেলোয়াড়রা। তার মধ্যে সাতটি ছিল লক্ষ্যে। এমন পরিসংখ্যানে ধারণা হতেই পারে, শটগুলো হয়তো নিয়েছে বার্সেলোনার খেলোয়াড়রা। কিন্তু তা নয়। অপেক্ষাকৃত দুর্বল স্লাভিয়া প্রাগ এদিন কাঁপিয়ে দিয়েছিল কাতালান শিবিরকে। কিন্তু একের পর এক আক্রমণ করে বার্সা রক্ষণকে ব্যস্ত রেখেও তারা গোল আদায় করে নিতে পারে মাত্র একটি। উল্টো আত্মঘাতী গোল খেয়ে হেরেই যায় তারা।
ছবি: এএফপি

২৪টি শট নিলেন দলের খেলোয়াড়রা। তার মধ্যে সাতটি ছিল লক্ষ্যে। এমন পরিসংখ্যানে ধারণা হতেই পারে, শটগুলো হয়তো নিয়েছে বার্সেলোনার খেলোয়াড়রা। কিন্তু তা নয়। অপেক্ষাকৃত দুর্বল স্লাভিয়া প্রাগ এদিন কাঁপিয়ে দিয়েছিল কাতালান শিবিরকে। কিন্তু একের পর এক আক্রমণ করে বার্সা রক্ষণকে ব্যস্ত রেখেও তারা গোল আদায় করে নিতে পারে মাত্র একটি। উল্টো আত্মঘাতী গোল খেয়ে হেরেই যায় তারা।

বুধবার রাতে (২৪ অক্টোবর) ‘এফ’ গ্রুপের ম্যাচে ঘরের মাঠে বার্সেলোনার কাছে ২-১ গোলের ব্যবধানে হার মানে চেক রিপাবলিকের ক্লাব স্লাভিয়া।

মূলত বার্সেলোনা অধিনায়ক লিওনেল মেসির কাছেই হারে প্রাগ। ম্যাচের শুরুতেই অতিথিদের এগিয়ে দেন এ আর্জেন্টাইন। আত্মঘাতী গোলটি আদায় করে নেওয়ার পেছনেও ছিল তার দারুণ অবদান। আরও কিছু দারুণ সুযোগ তৈরি করেছিলেন তিনি। কিন্তু সতীর্থরা তা থেকে গোল আদায় করে নিতে ব্যর্থ হন।

এদিন ম্যাচের তৃতীয় মিনিটেই এগিয়ে যায় বার্সেলোনা। আর্থুর মেলোর সঙ্গে বল দেওয়া নেওয়া করে নিখুঁত শটে লক্ষ্যভেদ করেন মেসি। চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ইতিহাসে প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে টানা ১৫ আসরে গোল করার কীর্তি গড়েন বার্সা অধিনায়ক। পাশাপাশি ছুঁয়েছেন ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো ও রাউল গঞ্জালেজের রেকর্ডও। এই আসরে তাদের সমান সর্বাধিক ৩৩টি দলের বিপক্ষে গোল করার রেকর্ডের মালিক এখন মেসিও।

এগিয়ে গিয়ে মাঝ মাঠের নিয়ন্ত্রণ রেখেই খেলতে থাকে বার্সা। তবে ভালো কোনো আক্রমণ করতে পারছিল না তারা। ২০তম মিনিটে তো গোল হজম করতে পারত তারা। ইয়ারোস্লাভ জেলেনির শট দারুণ দক্ষতায় পা দিয়ে ঠেকিয়ে দেন গোলরক্ষক মার্ক-আন্দ্রে টের স্টেগেন। নয় মিনিট পর ব্যবধান বাড়ানোর সুযোগ ছিল লুইস সুয়ারেজের। কিন্তু তার শট লক্ষ্যে থাকেনি।

৩৫তম মিনিটে বার্সেলোনাকে রক্ষা করেন স্টেগেন। জেলেনির পাস থেকে দারুণ এক জোরালো শট নিয়েছিলেন লুকাস মাসোপাস্ট। তবে ঝাঁপিয়ে পড়ে তা ঠেকিয়ে দেন বার্সা গোলরক্ষক। পরের মিনিটে তো অবিশ্বাস্যভাবে দলকে বাঁচান স্টেগেন। পিটার ওলাইয়াঙ্কার শট দারুণ ক্ষিপ্রতায় বাঁ দিকে ঝাঁপিয়ে কর্নারের বিনিময়ে ফিরিয়ে দলকে রক্ষা করেন বার্সা গোলরক্ষক।

৪০তম মিনিটে প্রাগ গোলরক্ষক ওন্দ্রেই কোলারও দারুণ সেভ করেন। সুয়ারেজের পাস থেকে ফ্রাঙ্কি ডি ইয়ংয়ের কোণাকুণি শট ঠেকিয়ে দেন তিনি। বিরতির পর পঞ্চম মিনিটেই সমতায় ফেরে প্রাগ। মাসোপাস্টের পাস থেকে ডি বক্সে ঢুকে দারুণ শটে স্টেগেনকে পরাস্ত করেন ডিফেন্ডার ইয়ান বোরিল। সমতায় ফিরে আক্রমণের ধার আরও বেড়ে যায় স্বাগতিকদের।

৫৪তম মিনিটে নিকোলে স্টাঞ্চুর শট অল্পের জন্য বারপোস্ট ঘেঁষে বাইরে চলে যায়। তবে তিন মিনিট পর স্লাভিয়ার খেলোয়াড়দের ভুলে ফের এগিয়ে যায় বার্সেলোনা। মেসির ফ্রি কিক প্রাগের এক ডিফেন্ডার ঠিকভাবে ফেরাতে না পারলে ফাঁকায় বল পেয়ে যান সুয়ারেজ। প্রায় শূন্য ডিগ্রি অ্যাঙ্গেল থেকে তার নেওয়া শট ওলাইয়াঙ্কার পায়ে লেগে দিক বদলে জালে জড়ালে আবার পিছিয়ে পড়ে স্বাগতিকরা।

৫৯তম মিনিটে সমতায় ফিরতে পারত প্রাগ। কর্নার থেকে টমাস সাউচেকের নেওয়া হেড অল্পের জন্য লক্ষ্যে থাকেনি। আট মিনিট পর ব্যবধান বাড়াতে পারত বার্সেলোনাও। জর্দি আলবার সঙ্গে বল দেওয়া নেওয়া করে দারুণ এক কোণাকুণি শট নিয়েছিলেন মেসি। তবে ঝাঁপিয়ে কর্নারের বিনিময়ে ঠেকান প্রাগ গোলরক্ষক কোলার।

৭০তম মিনিটে ম্যাচের সেরা সুযোগটি হাতছাড়া করেন সুয়ারেজ। মেসির বাড়ানো বল একেবারে ফাঁকায় পেয়ে গিয়েছিলেন সুয়ারেজ। কিন্তু সময় পেয়েও পোস্টের বাইরে মারেন এ উরুগুইয়ান তারকা। পাঁচ মিনিট পর ফাঁকা গোলবার পেয়েও লক্ষ্যভেদ করতে পারেননি মেসি। এক সতীর্থের ক্রস পেয়ে আলতো টোকায় গোলমুখে বল ঠেলে দিয়েছিলেন আলবা। ফাঁকায় দাঁড়িয়ে থাকা মেসি ঠিকভাবে বলে সংযোগ করতে না পারায় নষ্ট হয় সে সুযোগ।

৮২তম মিনিটে আবারো দারুণ সেভ করেন প্রাগ গোলরক্ষক কোলার। ওসমান দেম্বেলের পাস থেকে দারুণ শট নিয়েছিলেন সুয়ারেজ। তবে ঝাঁপিয়ে পড়ে তা ঠেকিয়ে দেন তিনি। সাত মিনিট পর মেসির আরও একটি প্রচেষ্টা ফিরিয়ে দেন প্রাগ গোলরক্ষক।

ম্যাচের যোগ করা সময়ে আবারও বার্সার ত্রাতা স্টেগেন। কর্নার থেকে ভালো হেড নিয়েছিলেন ওলাইয়াঙ্কা। ঝাঁপিয়ে পড়ে স্টেগেন তা ঠেকিয়ে দিলে সে যাত্রা রক্ষা পায় অতিথিরা। শেষ মুহূর্তে সমতায় ফেরার সুবর্ণ সুযোগ ছিল স্লাভিয়ার। ভালো শট নিয়েছিলেন বোরিল। কিন্তু বার্সার এক ডিফেন্ডারের পায়ে লেগে বল পোস্ট ঘেঁষে লক্ষ্যভ্রষ্ট হলে রক্ষা পায় তারা, স্প্যানিশ লা লিগা চ্যাম্পিয়নরা মাঠ ছাড়ে স্বস্তির জয় নিয়ে।

তিন ম্যাচে ৭ পয়েন্ট নিয়ে ‘এফ’ গ্রুপের পয়েন্ট তালিকার শীর্ষে রয়েছে বার্সেলোনা। গ্রুপের আরেক ম্যাচে জার্মানির বরুসিয়া ডর্টমুন্ডকে নিজেদের মাঠে ২-০ গোলে হারিয়েছে ইতালিয়ান ক্লাব ইন্টার মিলান। তিন ম্যাচে ৪ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপের দুইয়ে ইন্টার। মুখোমুখি লড়াইয়ে পিছিয়ে থেকে সমান পয়েন্ট নিয়ে তিন নম্বরে ডর্টমুন্ড। সবার নিচে থাকা স্লাভিয়ার অর্জন ১ পয়েন্ট।

Comments

The Daily Star  | English

Faridpur bus-pickup collision: The law violations that led to 13 deaths

Thirteen people died in Faridpur this morning in a head-on collision that would not have happened if operators of the vehicles involved had followed existing laws and rules

6m ago