ওয়ার্নারের সেঞ্চুরি, শ্রীলঙ্কাকে গুঁড়িয়ে অস্ট্রেলিয়ার রেকর্ড জয়

ঘরের মাঠে প্রত্যাবর্তনটা স্মরণীয় করে রাখলেন ডেভিড ওয়ার্নার। তুলে নিলেন আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরি। তার কীর্তির দিনে ঝড়ো ইনিংস খেললেন অ্যারন ফিঞ্চ আর গ্লেন ম্যাক্সওয়েলও। ব্যাটসম্যানরা রানের পাহাড় গড়ার পর তাল মিলিয়ে অস্ট্রেলিয়ার বোলাররাও দেখালেন দুর্দান্ত পারফরম্যান্স। তাতে শ্রীলঙ্কাকে গুঁড়িয়ে দিয়ে টি-টোয়েন্টিতে নিজেদের সবচেয়ে বড় জয়ের রেকর্ড গড়ল দলটি।
david warner
ডেভিড ওয়ার্নার। ছবি: ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া টুইটার

ঘরের মাঠে প্রত্যাবর্তনটা স্মরণীয় করে রাখলেন ডেভিড ওয়ার্নার। তুলে নিলেন আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরি। তার কীর্তির দিনে ঝড়ো ইনিংস খেললেন অ্যারন ফিঞ্চ আর গ্লেন ম্যাক্সওয়েলও। ব্যাটসম্যানরা রানের পাহাড় গড়ার পর তাল মিলিয়ে অস্ট্রেলিয়ার বোলাররাও দেখালেন দুর্দান্ত পারফরম্যান্স। তাতে শ্রীলঙ্কাকে গুঁড়িয়ে দিয়ে টি-টোয়েন্টিতে নিজেদের সবচেয়ে বড় জয়ের রেকর্ড গড়ল দলটি।

রবিবার (২৭ অক্টোবর) তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টিতে ১৩৪ রানের বিশাল ব্যবধানে জিতেছে অস্ট্রেলিয়া। রানের হিসাবে এই সংস্করণে কোনো দলের বিপক্ষে এটিই অজিদের সবচেয়ে বড় জয়। উল্টোদিকে, রান ব্যবধানে টি-টোয়েন্টিতে লঙ্কানদের সবচেয়ে বড় হার এটি।

অ্যাডিলেডে টস হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ২ উইকেটে ২৩৩ রান তোলে অস্ট্রেলিয়া। জবাবে পুরো ওভার খেললেও ব্যাটিং ব্যর্থতায় ৯ উইকেট হারিয়ে মাত্র ৯৯ রান করতে পারে শ্রীলঙ্কা।

বল টেম্পারিংয়ের কারণে পাওয়া নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ শেষ করে কয়েক মাস আগে ক্রিকেটে ফিরলেও অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে এটিই ছিল ওয়ার্নারের প্রথম ম্যাচ। আর প্রত্যাবর্তনে বাজিমাত করলেন তিনি। ইনিংসের শেষ বলে সিঙ্গেল নিয়ে টি-টোয়েন্টিতে অভিষেক সেঞ্চুরির স্বাদ নেন তিনি। আগ্রাসী ব্যাটিংয়ে ৫৬ বলে ১০ চার ও ৪ ছয়ে ১০০ রান করে অপরাজিত থাকেন এই বাঁহাতি।

ওপেনিংয়ে নেমে অধিনায়ক ফিঞ্চের সঙ্গে ১০.৫ ওভারে ১২২ রানের জুটি গড়েন ওয়ার্নার। তাতে বড় সংগ্রহের ভিত পেয়ে যায় স্বাগতিকরা। ফিঞ্চ ৩৬ বলে ৮ চার ও ৩ ছয়ে করেন ৬৪ রান। এরপর গ্লেন ম্যাক্সওয়েলকে নিয়ে ৫২ বলে ১০৭ রানের আরেকটি দারুণ জুটি গড়েন ওয়ার্নার। দুইশোর ওপরে স্ট্রাইক রেটে ২৮ বলে ৬২ রান করেন ম্যাক্সওয়েল। তার ইনিংসে ছিল ৭ চার ও ৩ ছয়।

নুয়ান প্রদীপ ছাড়া শ্রীলঙ্কার বাকি সব বোলারই অজি ব্যাটসম্যানদের বেদম পিটুনির শিকার হন। সবচেয়ে বড় ঝড়টা গিয়েছে কাসুন রাজিথার ওপর দিয়ে। ৪ ওভারে ৭৫ রান দিয়ে আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে সবচেয়ে খরুচে বোলিংয়ের নতুন রেকর্ড গড়েন ২৬ বছর বয়সী এই পেসার।

kasun rajitha
কাসুন রাজিথা। ছবি: এএফপি

লক্ষ্য তাড়ায় ইনিংসের প্রথম ওভারেই কুশল মেন্ডিসের উইকেট হারায় লঙ্কানরা। তাকে সাজঘরে পাঠান মিচেল স্টার্ক। এরপর চতুর্থ ওভারে পরপর দুই বলে দানুস্কা গুনাথিলাকা ও ভানুকা রাজাপাকসেকে ফেরান প্যাট কামিন্স। দুই অজি পেসারের তোপে ১৩ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে ফেলা শ্রীলঙ্কা আর ম্যাচে ফিরতে পারেনি। দলটির কোনো ব্যাটসম্যানই ধরতে পারেননি হাল। গড়ে ওঠেনি কোনো জুটিও।

পেসারদের পর লঙ্কান ব্যাটসম্যানদের চেপে ধরেন অজি স্পিনাররাও। অ্যাডাম জ্যাম্পা ৩ উইকেট নেন ১৪ রানে। অ্যাস্টন অ্যাগার ১ উইকেট দখল করেন ১৩ রানে। স্টার্ক ও কামিন্স ২টি করে উইকেট পান। শ্রীলঙ্কার পক্ষে সর্বোচ্চ ১৭ রান করেন দাসুন শানাকা।

আগামী ৩০ অক্টোবর ব্রিসবেনে সিরিজের দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে মুখোমুখি হবে দুদল।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

অস্ট্রেলিয়া: ২৩৩/২ (২০ ওভারে) (ফিঞ্চ ৬৪, ওয়ার্নার ১০০*, ম্যাক্সওয়েল ৬২, টার্নার ১*; মালিঙ্গা ০/৩৭, রাজিথা ০/৭৫, প্রদীপ ০/২৮, সান্দাকান ১/৪১, হাসারাঙ্গা ০/৪২, শানাকা ১/১০)

শ্রীলঙ্কা: ৯৯/৯ (২০ ওভারে) (গুনাথিলাকা ১১, কুশল মেন্ডিস ০, রাজাপাকসে ২, কুশল পেরেরা ১৬, ওশাদা ১৩, শানাকা ১৭, হাসারাঙ্গা ৫, সান্দাকান ৬, মালিঙ্গা ১৩*, রাজিথা ০, প্রদীপ ৮*; স্টার্ক ২/১৮, রিচার্ডসন ০/২১, কামিন্স ২/২৭, জ্যাম্পা ৩/১৪, অ্যাগার ১/১৩)

ফল: অস্ট্রেলিয়া ১৩৪ রানে জয়ী।

সিরিজ: তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে অস্ট্রেলিয়া।

Comments

The Daily Star  | English

‘Will implement Teesta project with help from India’

Prime Minister Sheikh Hasina has said her government will implement the Teesta project with assistance from India and it has got assurances from the neighbouring country in this regard.

3h ago