নিউজিল্যান্ডকে সহজেই হারাল ইংল্যান্ড

বোলাররা মাঝারি সংগ্রহে নিউজিল্যান্ডকে আটকে দেওয়ার পর বাকি কাজটা সহজেই সেরেছেন ইংল্যান্ডের ব্যাটসম্যানরা। জেমস ভিন্সের হাফসেঞ্চুরি এবং জনি বেয়ারস্টো ও ইয়ন মর্গানের কার্যকর ইনিংসে পাঁচ ম্যাচ সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টিতে ৭ উইকেটের বড় ব্যবধানে জিতেছে সফরকারীরা।
james vince
ছবি: এএফপি

বোলাররা মাঝারি সংগ্রহে নিউজিল্যান্ডকে আটকে দেওয়ার পর বাকি কাজটা সহজেই সেরেছেন ইংল্যান্ডের ব্যাটসম্যানরা। জেমস ভিন্সের হাফসেঞ্চুরি এবং জনি বেয়ারস্টো ও ইয়ন মর্গানের কার্যকর ইনিংসে পাঁচ ম্যাচ সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টিতে ৭ উইকেটের বড় ব্যবধানে জিতেছে সফরকারীরা।

শুক্রবার (১ নভেম্বর) ক্রাইস্টচার্চে টস হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৫ উইকেটে ১৫৩ রান করে নিউজিল্যান্ড। লক্ষ্য তাড়ায় ৯ বল হাতে রেখে মাত্র ৩ উইকেট হারিয়ে জয় তুলে নেয় ইংল্যান্ড।

সবশেষ বিশ্বকাপের ফাইনালের পর এদিনই প্রথমবারের মতো মুখোমুখি হয় দুদল। ঘটনাবহুল ও চরম নাটকীয় ওই লড়াইয়ের মতো এবারও শেষ হাসি হেসেছে ইংলিশরা। তাতে দলটির নতুন কোচ ক্রিস সিলভারউড যাত্রা শুরু করেছেন জয় দিয়ে।

চোটের কারণে কিউই দলে ছিলেন না নিয়মিত অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন। তার অভাবটা ব্যাটিংয়ে বেশ ভালোভাবে টের পেয়েছে স্বাগতিকরা। অন্যদিকে, ইংল্যান্ড দলে টি-টোয়েন্টি অভিষেক হয়েছে পেসার প্যাট ব্রাউন ও দুই অলরাউন্ডার লুইস গ্রেগরি ও স্যাম কারানের। 

শুরুতেই মার্টিন গাপটিল বিদায় নেওয়ার পর জুটি বাঁধেন কলিন মুনরো ও টিম সেইফার্ট। কিন্তু কেউ রানের গতি বাড়াতে পারেননি। কলিন ডি গ্র্যান্ডহোমও বিদায় নেন থিতু হয়ে। পঞ্চম উইকেটে রস টেইলর ও ড্যারিল মিচেল ৩৮ বলে ৫৬ রানের জুটি গড়েন। তাদের কল্যাণে দেড়শো পেরিয়ে যায় নিউজিল্যান্ড।

দলটির পক্ষে ৩৫ বলে সর্বোচ্চ ৪৪ রান করেন টেইলর। মিচেল অপরাজিত থাকেন ১৭ বলে ৩০ রানে। ইংল্যান্ডের পক্ষে ক্রিস জর্ডান ৪ ওভারে ২৮ রানে নেন ২ উইকেট।

জবাব দিতে নামা ইংলিশরা ভালো শুরু পায় বেয়ারস্টোর ব্যাটিংয়ে। দলটির ৩৭ রানের উদ্বোধনী জুটি ভাঙে ডাভিড মালানের বিদায়ে। তিনে নামা ভিন্স তুলে নেন আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে নিজের প্রথম ফিফটি। তৃতীয় উইকেটে অধিনায়ক মর্গানের সঙ্গে মাত্র ৩৩ বলে ৫৪ রানের জুটি গড়েন তিনি।

বেয়ারস্টো ২৮ বলে ৩৫ রান করেন। ৩৩ বলে হাফসেঞ্চুরি পূরণ করা ভিন্স ৩৮ বলে ৭ চার ও ২ ছয়ে ৫৯ রানে আউট হন। তিনি হন ম্যাচসেরা। মর্গান অপরাজিত থাকেন ২১ বলে ৩৪ রানে। নিউজিল্যান্ডের হয়ে ৪ ওভারে ২৩ রানে ৩ উইকেটই পান মিচেল স্যান্টনার।

আগামী রবিবার ওয়েলিংটনে সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে মুখোমুখি হবে দুই দল।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

নিউজিল্যান্ড: ১৫৩/৫ (২০ ওভারে) (গাপটিল ২, মুনরো ২১, সেইফার্ট ৩২, ডি গ্র্যান্ডহোম ১৯, টেইলর ৪৪, মিচেল ৩০*, স্যান্টনার ১*; স্যাম কারান ১/৩৩, টম কারান ০/২৫, জর্ডান ২/২৮, রশিদ ১/৩১, ব্রাউন ১/৩৩)

ইংল্যান্ড: ১৫৪/৩ (১৮.৩ ওভারে) (বেয়ারস্টো ৩৫, মালান ১১, ভিন্স ৫৯, মর্গান ৩৪*, বিলিংস ১৪*; সাউদি ০/৩০, ফার্গুসন ০/২৮, কাগেলেইন ০/৩৫, স্যান্টনার ৩/২৩, সোধি ০/৩৮)

Comments

The Daily Star  | English

New School Curriculum: Implementation limps along

One and a half years after it was launched, implementation of the new curriculum at schools is still in a shambles as the authorities are yet to finalise a method of evaluating the students.

5h ago