টেস্ট খেলতে পাকিস্তানে শ্রীলংকা

বছর ১০ আগে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট দলের উপর সন্ত্রাসী হামলার কারণে ঘরের মাঠে ক্রিকেট আয়োজন থেকে প্রায় নির্বাসিত ছিল পাকিস্তান। সংক্ষিপ্ত সংস্করণে কিছু ম্যাচ আয়োজন করতে পারলেও টেস্ট ম্যাচ দেশটির মাটিতে গড়ায়নি। এক দশক পর আবার দেশটিতে ফিরছে টেস্ট ক্রিকেট। সফর করছে সেই শ্রীলঙ্কাই। এরমধ্যেই পাকিস্তান পৌঁছেছে তারা। কঠোর নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে ইসলামাবাদে অবতরণ করে শ্রীলংকা দল।
ছবি: টুইটার

বছর ১০ আগে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট দলের উপর সন্ত্রাসী হামলার কারণে ঘরের মাঠে ক্রিকেট আয়োজন থেকে প্রায় নির্বাসিত ছিল পাকিস্তান। সংক্ষিপ্ত সংস্করণে কিছু ম্যাচ আয়োজন করতে পারলেও টেস্ট ম্যাচ দেশটির মাটিতে গড়ায়নি। এক দশক পর আবার দেশটিতে ফিরছে টেস্ট ক্রিকেট। সফর করছে সেই শ্রীলঙ্কাই। এরমধ্যেই পাকিস্তান পৌঁছেছে তারা। কঠোর নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে ইসলামাবাদে অবতরণ করে শ্রীলংকা দল।

আর লম্বা সময় পর পাকিস্তানে টেস্ট ক্রিকেট ফেরাতে পেরে দারুণ উচ্ছ্বসিত পিসিবি। সামাজিক মাধ্যমে বহনকারী বিমানের একটি ছবি পোস্ট করে ‘টাচডাউন ইসলামাবাদ’। সেখানে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) প্রধান নির্বাহী ওয়াসিম খান এটাকে ‘ঐতিহাসিক মুহূর্ত’ হিসেবে অভিহিত করেছেন। পিসিবিও সামাজিক মাধ্যমে শ্রীলঙ্কা দলের ছবি আপলোড করে।

আর প্রথমবারের মতো পাকিস্তানে খেলতে এসে বিশেষ নিরাপত্তা আশা করছেন লঙ্কান অধিনায়ক দিমুথ কারুনারাত্নে, ‘পাকিস্তানে এটা আমার প্রথম সফর। ২০০৯ সালের ঘটনার পর খেলোয়াড়রা পাকিস্তান সফরের বিষয়ে ভীত ছিল। তবে গত দুই বছরে শ্রীলংকা এবং আরো কয়েকটি দল পাকিস্তান সফর করেছে। আমরা পাকিস্তানের ভাল ক্রিকেট খেলতে চাই এবং আশা করছি তারা আমাদের পূর্ণ নিরাপত্তা দেবে।’

পাকিস্তানে সবশেষ টেস্ট ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়েছিল ২০০৯ সালের মার্চে। লাহোর টেস্টের তৃতীয় দিনে হোটেল থেকে মাঠে যাওয়ার পথে শ্রীলঙ্কা দল বহনকারী বাসে সন্ত্রাসী হামলা হয়। তাতে আহত হয়েছিলেন বেশ কয়েক জন লঙ্কান ক্রিকেটার। এরপর জরুরী ভিত্তিতে দেশ ছেড়েছিল লঙ্কান দলটি। সেই থেকে নিজদের হোম ভেন্যু হিসেবে সংযুক্ত আরব আমিরাতকে বেছে নিয়েছিল পাকিস্তান। এরপর টানা ছয় বছর তো কোন ধরণের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটই হয়নি দেশটিতে।

গত সেপ্টেম্বর-অক্টোবরেই পাকিস্তানে তিনটি করে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলে এসেছে শ্রীলঙ্কা। তাতে প্রথম সারির খেলোয়াড় ছিল ১০ জন। সে সফর শেষে অবশ্য তারা জানিয়েছিল এখনও টেস্ট খেলার মতো উপযুক্ত নয় পাকিস্তান। তারাই সবার আগে টেস্ট খেলতে এলো দেশটিতে। রাওয়ালপিন্ডিতে আগামী বুধবার (১১ ডিসেম্বর) শুরু হবে প্রথম টেস্ট। দ্বিতীয় টেস্টটি অনুষ্ঠিত হবে করাচিতে। শুরু হবে ১৯ ডিসেম্বর।

কিছু দিন আগেই বাংলাদেশের একটি বয়স ভিত্তিক দল ও নারী দলও সফর করেছে পাকিস্তানে। এরপর আইসিসির ভবিষ্যৎ সফর সূচি অনুযায়ী, আগামী জানুয়ারিতে পাকিস্তান সফরে যাওয়ার কথা রয়েছে টাইগারদের। বাংলাদেশের একটি নিরাপত্তা পরিদর্শক দলও সফর করে এসেছে পাকিস্তানে। লঙ্কানদের সফরে তাই পাকিস্তানে যাওয়ার জন্য চাপও বাড়ছে বাংলাদেশের উপরও। সফর তো বটেই সেখানে দিবা-রাত্রির টেস্ট খেলারও প্রস্তাব দিয়েছে পিসিবি।

Comments

The Daily Star  | English

New School Curriculum: Implementation limps along

One and a half years after it was launched, implementation of the new curriculum at schools is still in a shambles as the authorities are yet to finalise a method of evaluating the students.

6h ago