রেকর্ড রান তাড়ায় ইংল্যান্ডের দারুণ ব্যাটিংয়ে রোমাঞ্চের আভাস

পেস বান্ধব উইকেটে দুই দলের প্রথম তিন ইনিংসের কোনটিতেই আসেনি তিনশো রান। চতুর্থ ইনিংসে ম্যাচ জিততে সেখানে ইংল্যান্ডের লক্ষ্য চারশো ছুঁইছুঁই। সে রান তাড়াতে নেমে ওপেনার ররি বার্নসের নৈপুণ্যে দারুণভাবে ছুটছে ইংল্যান্ড।
Rory Burns
ছবি: এএফপি

পেস বান্ধব উইকেটে দুই দলের প্রথম তিন ইনিংসের কোনটিতেই আসেনি তিনশো রান। চতুর্থ ইনিংসে ম্যাচ জিততে সেখানে ইংল্যান্ডের লক্ষ্য চারশো ছুঁইছুঁই। সে রান তাড়াতে নেমে ওপেনার ররি বার্নসের নৈপুণ্যে দারুণভাবে ছুটছে ইংল্যান্ড। 

সেঞ্চুরিয়নে দক্ষিণ আফ্রিকা দ্বিতীয় ইনিংসে ২৭২ রান করলে ইংল্যান্ডের লক্ষ্য দাঁড়ায় ৩৭৬ রান। টেস্টে এত রান তাড়া করে এর আগে জেতেনি ইংলিশরা। সেই কঠিন লক্ষ্যে নেমে ১ উইকেটে ১২১ রান তুলে চতুর্থ দিনের জন্য দারুণ কিছুর ইঙ্গিত দিয়ে রেখেছে জো রুটের দল। 

হাতে আছে দুদিন, ইংল্যান্ডের জিততে চাই ২৫৫ রান, প্রোটিয়াদের ৯ উইকেট। এই ম্যাচের ফল অবধারিত। সেই ফল বেরুতে অপেক্ষা রোমাঞ্চের।  

ডম শিবলিকে নিয়ে রান তাড়ায় নেমে দারুণ শুরু আনেন বার্নস। কাগিসো রাবাদা, ভারনন ফিল্যান্ডারদের সামলে টিকে থাকেন ২৭ ওভার। উদ্বোধনী জুটিতে ৯২ রান তোলার পর কেসব মহারাজের বাঁহাতি স্পিনে থামে ৯০ বলে ২৯ করা শিবলির ইনিংস।

এরপর জো ডেনলিকে নিয়ে দিনের বাকিটা সময় অনায়াসে কাটিয়ে দিয়েছেন বার্নস। ১১৭ বলে ১১ চারে ৭৭ রানে অপরাজিত আছেন ইংলিশ ওপেনার। ১০ রান নিয়ে খেলছেন ডেনলি।

এর আগে ৪ উইকেটে ৭২ রান নিয়ে নামা দক্ষিণ আফ্রিকা ফন ডার ডুসেনের ৫১, আনরিক নরকিয়ার ৪০ আর ফিল্যান্ডারের ৪৬ রানে ২৭২ রান করে ইংল্যান্ডকে দেয় কঠিন লক্ষ্য। 

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

দক্ষিণ আফ্রিকা প্রথম ইনিংস: ২৮৪

ইংল্যান্ড প্রথম ইনিংস: ১৮১

দক্ষিণ আফ্রিকা দ্বিতীয় ইনিংস: ৬১.৪ ওভারে ২৭২ (আগের দিন ৭২/৪) (মারক্রাম ২, এলগার ২২, জুবাইর ৪, দু প্লেসি ২০, ফন ডার ডাসেন ৫১, নরকিয়া ৪০, ডি কক ৩৪, প্রিটোরিয়াস ৭, ফিল্যান্ডার ৪৬, মহারাজ ১১, রাবাদা ১৬*; অ্যান্ডারসন ১/৪৭, ব্রড ১/৪২, আর্চার ৫/১০২, কারান ১/৫১, স্টোকস ২/২২)

ইংল্যান্ড দ্বিতীয় ইনিংস: ৪১ ওভারে ১২১/১ (বার্নস ৭৭*, সিবলি ২৯, ডেনলি ১০*; রাবাদা ০/৪৮, ফিল্যান্ডার ০/২০, নরকিয়া ০/২০, প্রিটোরিয়াস ০/১২, মহারাজ ০/১৬)





 

Comments

The Daily Star  | English

Create right conditions for Rohingya repatriation: G7

Foreign ministers from the Group of Seven (G7) countries have stressed the need to create conditions for the voluntary, safe, dignified, and sustainable return of all Rohingya refugees and displaced persons to Myanmar

58m ago