লাবুশেনের সেঞ্চুরিতে প্রথম দিন অস্ট্রেলিয়ার

চোট ও অসুস্থতার কারণে নিউজিল্যান্ড একাদশে নেই নিয়মিত তারকাদের অনেকে। তাই মাঠে নামার আগে থেকেই চাপে দলটি। তাদের দুর্দশা আরও বাড়িয়েছেন দুর্দান্ত ছন্দে থাকা মারনাস লাবুশেন। স্টিভেন স্মিথকে সঙ্গে নিয়ে বড় জুটি গড়ার পাশাপাশি সেঞ্চুরি তুলে নিয়েছেন এই তরুণ অস্ট্রেলিয়ান ব্যাটসম্যান। সিডনি টেস্টের প্রথম দিনে কিউইদের উপহার দিয়েছেন কঠিন সময়।
marnus labuschagne
ছবি: এএফপি

চোট ও অসুস্থতার কারণে নিউজিল্যান্ড একাদশে নেই নিয়মিতদের অনেকে। তাই মাঠে নামার আগে থেকেই চাপে দলটি। তাদের দুর্দশা আরও বাড়িয়েছেন দুর্দান্ত ছন্দে থাকা মারনাস লাবুশেন। স্টিভেন স্মিথকে সঙ্গে নিয়ে বড় জুটি গড়ার পাশাপাশি সেঞ্চুরি তুলে নিয়েছেন এই তরুণ অস্ট্রেলিয়ান ব্যাটসম্যান। সিডনি টেস্টের প্রথম দিনে কিউইদের উপহার দিয়েছেন কঠিন সময়।

শুক্রবার (৩ জানুয়ারি) টস জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে ৩ উইকেটে ২৮৩ রান তুলে দিনের খেলা শেষ করেছে স্বাগতিক অস্ট্রেলিয়া। লাবুশেন অপরাজিত আছেন ১৩০ রানে। সঙ্গী ম্যাথু ওয়েড খেলছেন ২২ রান নিয়ে।

সবশেষ সাত ইনিংসে এটি লাবুশেনের চতুর্থ সেঞ্চুরি। আইসিসি টেস্ট ব্যাটসম্যানদের র‍্যাঙ্কিংয়ে চতুর্থ স্থানে থাকা এই ক্রিকেটার এদিন ফিফটি পান ৯৭ বলে। এরপর চালিয়ে খেলে তিন অঙ্কে পৌঁছান ১৬৩ বলে। তার ২১০ বলে ১৩০ রানের ইনিংসটি ১২টি চার ও একটি ছয়ে সাজানো।

চোটের কারণে কয়েক দিন আগেই ছিটকে গেছেন নিউজিল্যান্ডের বাঁহাতি পেসার ট্রেন্ট বোল্ট। শারীরিক অসুস্থতায় নেই নিয়মিত অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন, ব্যাটসম্যান হেনরি নিকোলস, স্পিন অলরাউন্ডার মিচেল স্যান্টনার। বিশ্রাম দেওয়া হয়েছে অভিজ্ঞ পেসার টিম সাউদিকেও।

অনভিজ্ঞ বোলিং আক্রমণ নিয়ে নিউজিল্যান্ডের শুরুটা একদম খারাপ ছিল না। দলীয় ৩৯ রানে অজিদের উদ্বোধনী ভাঙেন কলিন ডি গ্র্যান্ডহোম। ম্যাট হেনরির সঙ্গে নতুন বল ভাগ করে নেওয়া এই পেস অলরাউন্ডার ফেরান জো বার্নসকে। মধ্যাহ্ন বিরতির পর তৃতীয় বলে আরেক ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নার হন নিল ওয়াগনারের শিকার। তার ব্যাট থেকে আসে ৮০ বলে ৪৫ রান। সিরিজে এই নিয়ে চতুর্থবার ওয়াগনারের বলে কুপোকাত হলেন ওয়ার্নার।

এরপর ১৫৬ রানের জুটি গড়েন লাবুশেন ও স্মিথ। একপ্রান্তে লাবুশেন ছিলেন সহজাত মেজাজে, অন্যপ্রান্তে স্মিথ ছিলেন ধীর-স্থির। প্রথম ঘণ্টা কেবল বল ঠেকিয়ে যান স্মিথ। রানের খাতা খোলেন ৩৯তম বলে। এরপর ফিফটি পূরণ করেন ১৪৩ বলে।

এই জুটিও ভাঙেন ডি গ্র্যান্ডহোম। দ্বিতীয় নতুন বলে স্মিথ প্রথম স্লিপে রস টেইলরের তালুবন্দি হন। তার ব্যাট থেকে আসে ৬৩ রান। তার ১৮২ বলের ইনিংসে ছিল ৪টি বাউন্ডারি। ডি গ্র্যান্ডহোম ৬৩ রানে ২ উইকেট নিয়ে প্রথম দিনে নিউজিল্যান্ডের সবচেয়ে সফল বোলার।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

(প্রথম দিন শেষে)

নিউজিল্যান্ড প্রথম ইনিংস: ২৮৩/৩ (ওয়ার্নার ৪৫, বার্নস ১৮, লাবুশেন ১৩০*, স্মিথ ৬৩, ওয়েড ২২*; হেনরি ০/৬৮, ডি গ্র্যান্ডহোম ২/৬৩, ওয়াগনার ১/৪৮, সমারভিল ০/৫২, অ্যাস্টল ০/৪৯)।

Comments

The Daily Star  | English
biman flyers

Biman does a 180 to buy Airbus planes

In January this year, Biman found that it would be making massive losses if it bought two Airbus A350 planes.

6h ago