মার্কিন ঘাঁটিতে ক্ষেপণাস্ত্র হামলার পর যা বললো ইরান

ইরাকে দুটি মার্কিন ঘাঁটিতে ইরানের ক্ষেপণাস্ত্র হামলাকে ‘প্রস্তুতিমূলক ব্যবস্থা মাত্র’ বলে মন্তব্য করেছেন ইরানের বিপ্লবী গার্ডের এক শীর্ষ কমান্ডার বিগ্রেডিয়ার জেনারেল ইসমাইল কোসারি।
ইরানের বিপ্লবী গার্ডের শীর্ষ কমান্ডার বিগ্রেডিয়ার জেনারেল ইসমাইল কোসারি (বামে), পররাষ্ট্রমন্ত্রী জাভেদ জারিফ (মাঝে) এবং পার্লামেন্ট স্পিকার আলি লারিজানি। ছবি: সংগৃহীত

ইরাকে দুটি মার্কিন ঘাঁটিতে ইরানের ক্ষেপণাস্ত্র হামলাকে ‘প্রস্তুতিমূলক ব্যবস্থা মাত্র’ বলে মন্তব্য করেছেন ইরানের বিপ্লবী গার্ডের এক শীর্ষ কমান্ডার বিগ্রেডিয়ার জেনারেল ইসমাইল কোসারি।

আজ (৮ জানুয়ারি) তেহরান টাইমসে প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মার্কিন সেনাদের ওপর আজ যে হামলা চালানো হয়েছে তা ইরানের ‘প্রস্তুতিমূলক ব্যবস্থা মাত্র’। একইসঙ্গে তিনি মার্কিন কর্মকর্তাদের তাদের ‘জুয়ারি রাষ্ট্রপতি’কে থামানোর পরামর্শ দিয়েছেন।

ব্রিগেডিয়ার জেনারেল কোসারি আমেরিকানদের সতর্ক করে বলেন, তারা যদি তাদের রাষ্ট্রপতিকে থামাতে না পারেন, তাহলে উপসাগরীয় অঞ্চলে তাদের সেনারা ক্ষতিগ্রস্ত হবে।

তিনি বলেন, আমেরিকার প্রতিটি হামলার সমুচিত জবাব দেওয়া হবে।

ইরাকে মার্কিন হামলায় নিহত ইরানের শীর্ষ সামরিক কর্মকর্তা লেফটেনেন্ট জেনারেল কাশেম সোলাইমানির ইচ্ছার কথা উল্লেখ করে বিপ্লবী গার্ডের শীর্ষ কমান্ডার কোসারি বলেন, উপসাগরীয় অঞ্চল থেকে মার্কিন সেনাদের অবশ্যই সরে যেতে হবে।

‘জাতিসংঘের সনদ মেনেই আত্মরক্ষার ব্যবস্থা নিচ্ছে ইরান’

জাতিসংঘের সনদ মেনেই ইরান আত্মরক্ষার ব্যবস্থা নিচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী জাভেদ জারিফ। ইরাকে মার্কিন ঘাঁটিতে ইরানের প্রতিশোধমূলক ক্ষেপণাস্ত্র হামলা সম্পর্কে তিনি এই মন্তব্য করেন।

এক টুইটার বার্তায় জারিফ লিখেছেন, “জাতিসংঘ সনদের আর্টিকেল ৫১ মেনেই ইরান আত্মরক্ষামূলক সমানুপাতিক ব্যবস্থা নিয়েছে। (ইরাকে) ঘাঁটিতে হামলার কারণ হচ্ছে তারা (আমেরিকা) আমাদের নাগরিক ও জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে কাপুরুষোচিত হামলা চালিয়েছে।”

“আমরা চাই না যুদ্ধ ছড়িয়ে পড়ুক। কিন্তু, যেকোনো আগ্রাসনের বিরুদ্ধে আমরা নিজেদের রক্ষা করবো,” বলেও মন্তব্য করছেন ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

‘মার্কিন সেনাদের অবশ্যই উপসাগরীয় অঞ্চল ছাড়তে হবে’

মধ্যপ্রাচ্য তথা উপসাগরীয় দেশগুলো অবস্থানরত মার্কিন সেনাদের অবশ্যই সেই অঞ্চল ছাড়তে হবে বলে হুমকি দিয়েছেন ইরানের পার্লামেন্ট স্পিকার আলি লারিজানি।

মার্কিন সেনাবাহিনীকে সন্ত্রাসী সংগঠন আখ্যা দিয়ে ইরানের পার্লামেন্টে গতকাল (৭ জানুয়ারি) একটি প্রস্তাব পাশ করা হয়। সে প্রসঙ্গে লারিজানি বলেন, “আমার মনে পড়ে না যে আমরা এর আগে পার্লামেন্টে কখনোই এতো জরুরি ব্যবস্থা নেওয়ার প্রস্তাব পাশ করেছি।”

আরও পড়ুন:

মার্কিন ঘাঁটিতে ইরানের ক্ষেপণাস্ত্র হামলা, উপসাগরীয় অঞ্চলে উড়োজাহাজ চলাচল নিষিদ্ধ

১৮০ জন যাত্রী নিয়ে ইউক্রেনের উড়োজাহাজ তেহরানে বিধ্বস্ত

সোলাইমানির দাফনে পদদলিত হয়ে ৩৫ জনের মৃত্যু

পেন্টাগন-ট্রাম্প পরস্পরবিরোধী বক্তব্য

ইরানের সাংস্কৃতিক স্থাপনায় হামলার হুমকিতে অনড় ট্রাম্প

সেনা প্রত্যাহারের চিঠি ‘ভুল’ ইরাক ছাড়ার পরিকল্পনা নেই: পেন্টাগন প্রধান

ইরান কখনোই পারমাণবিক অস্ত্র বানাতে পারবে না: ট্রাম্প

৭০ ডলার ছাড়িয়েছে প্রতি ব্যারেল তেল

Comments

The Daily Star  | English
biman flyers

Biman does a 180 to buy Airbus planes

In January this year, Biman found that it would be making massive losses if it bought two Airbus A350 planes.

6h ago