বিপিএলের সেরা ব্যাটসম্যান: মুশফিক, রুশো, মালিক না-কি অন্য কেউ?

বঙ্গবন্ধু বিপিএলে এখন পর্যন্ত সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহকদের তালিকার শীর্ষ তিনে যে ব্যাটসম্যানরা আছেন, তারা সবাই খেলবেন ফাইনাল ম্যাচে। খুলনা টাইগার্সের হয়ে মাঠে নামবেন মুশফিকুর রহিম ও রাইলি রুশো। আর রাজশাহী রয়্যালসের জার্সিতে দেখা যাবে শোয়েব মালিককে।
mushfiq
ছবি: ফিরোজ আহমেদ

বঙ্গবন্ধু বিপিএলে এখন পর্যন্ত সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহকদের তালিকার শীর্ষ তিনে যে ব্যাটসম্যানরা আছেন, তারা সবাই খেলবেন ফাইনাল ম্যাচে। খুলনা টাইগার্সের হয়ে মাঠে নামবেন মুশফিকুর রহিম ও রাইলি রুশো। আর রাজশাহী রয়্যালসের জার্সিতে দেখা যাবে শোয়েব মালিককে।

রান সংগ্রাহকদের তালিকায় পরের দুটি স্থানে থাকা ডেভিড মালানের কুমিল্লা ওয়ারিয়র্স ও ইমরুল কায়সের চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স বিদায় নিয়েছে আসর থেকে। তাই মুশফিক, রুশো কিংবা মালিককে টপকে যাওয়ার সুযোগ নেই তাদের।

এই পাঁচ ব্যাটসম্যানের পাশাপাশি এবারের আসরে চারশর বেশি রান করেছেন লিটন দাসও। ফলে তিনিও বেশ ভালোভাবে টিকে আছেন বঙ্গবন্ধু বিপিএলের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক হওয়ার দৌড়ে। অর্থাৎ খুলনা-রাজশাহীর মধ্যকার শিরোপার লড়াইয়ের মাঝে আছে ব্যক্তিগত লড়াইও।

শুক্রবার (১৭ জানুয়ারি) বিপিএলের সপ্তম আসরের ফাইনালে মুখোমুখি হবে খুলনা ও রাজশাহী। মিরপুর শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে খেলা শুরু সন্ধ্যা ৭টায়।

শেষ হতে যাওয়া আসরের রান সংগ্রাহকদের চূড়ায় এখন আছেন মুশফিক। ১৩ ইনিংসে তার সংগ্রহ ৪৭০ রান। গড় ৭৮.৩৩ ও স্ট্রাইক রেট ১৪৭.৩৩। হাফসেঞ্চুরি করেছেন চারটি। বিপিএলের সব আসর মিলিয়ে নিজের সর্বোচ্চ রানের ইনিংসটি এবারই খেলেছেন বাংলাদেশ জাতীয় দলের উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান। ঢাকায় কুমিল্লা ওয়ারিয়র্সের বিপক্ষে সেঞ্চুরির সুবাস জাগিয়ে অপরাজিত ছিলেন ৯৮ রানে।

বিপিএলের এক আসরে বাংলাদেশি ব্যাটসম্যান হিসেবে সর্বোচ্চ রানের মাইলফলক গড়ার হাতছানিও রয়েছে মুশির সামনে। সেজন্য ফাইনালে তার চাই মাত্র ৭ রান। ২০১৬ বিপিএলে তামিম ইকবাল ৪৭৬ রান করেছিলেন চিটাগং ভাইকিংসের হয়ে। মুশফিক অবশ্য এরই মধ্যে ছাড়িয়ে গেছেন নিজেকে। ২০১৩ আসরে তার ব্যাট থেকে এসেছিল ৪৪০ রান।

দক্ষিণ আফ্রিকান রুশো ছিলেন গেল আসরের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক, প্রতিযোগিতার ইতিহাসের একমাত্র ব্যাটসম্যান হিসেবে পাঁচশ রানের মাইলফলক ছুঁয়েছিলেন তিনি। গেলবার ৫৫৮ রান করা রুশোর সামনে টানা দুই আসরে পাঁচশ রান করার সুযোগ। এবার ১৩ ইনিংসে ৪৫.৮০ গড়ে ও ১৫৬.৩১ স্ট্রাইক রেটে এই বাঁহাতি করেছেন ৪৫৮ রান। সতীর্থ অধিনায়ক মুশফিকের মতো তারও ফিফটি চারটি।

তৃতীয় স্থানে আছেন পাকিস্তানের মালিক। ১৪ ইনিংসে ৪০.৫৪ গড়ে তিনি করেছেন ৪৪৬ রান। হাফসেঞ্চুরির স্বাদ নিয়েছেন তিনবার। স্ট্রাইক রেট ১৩২.৩৪। ৪৪৪ রান নিয়ে এই অলরাউন্ডারের পরেই আছেন ইংল্যান্ডের বাঁহাতি ব্যাটসম্যান মালান। ব্যাট হাতে দুর্দান্ত আসর কাটানো বাঁহাতি ইমরুল ৪৪২ রান নিয়ে আছেন পাঁচ নম্বরে।

ষষ্ঠ স্থানে থাকা লিটন দাস এবার পারফরম্যান্সে দেখিয়েছেন ধারাবাহিকতা। ১৪ ইনিংসে ৩৩.০৭ গড়ে ও ১৩৮.২৬ স্ট্রাইক রেটে ৪৩০ রান রয়েছে তার নামের পাশে। হাফসেঞ্চুরি তিনটি। এবারের আসরের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৪৬টি চার মেরেছেন ডানহাতি লিটন। ৪৯টি চার নিয়ে শীর্ষে মুশফিক।

৩৯৬ রান নিয়ে সাত নম্বরে থাকা তামিম ইকবালের দল ঢাকা প্লাটুন বিদায় নিয়েছে আসর থেকে। আটে আছেন লিটনের সঙ্গে জুটি বেঁধে রাজশাহীর হয়ে ওপেন করতে নামা আফিফ হোসেন। ১৩ ইনিংসে তার রান ৩৬০। গড় ২৭.৬৯ ও স্ট্রাইক রেট ১৩১.৩৮। আফিফ পঞ্চাশ পেরিয়েছেন একবার।

Comments

The Daily Star  | English

Quota protest updates: RU students break out of dorms 'locked by BCL'; start procession

Several thousand students of Rajshahi University (RU) brought out a protest procession inside the campus, breaking locks at their dormitories

3h ago