শীর্ষ খবর

স্থানীয় সরকার নির্বাচনে ব্যবসায়ীদের অংশগ্রহণ বাড়ছে: সুজন

স্থানীয় সরকার নির্বাচনে আশঙ্কাজনক হারে ব্যবসায়ীদের অংশগ্রহণ বাড়ছে বলে জানিয়েছে সুশানের জন্য নাগরিক (সুজন)।

স্থানীয় সরকার নির্বাচনে আশঙ্কাজনক হারে ব্যবসায়ীদের অংশগ্রহণ বাড়ছে বলে জানিয়েছে সুশানের জন্য নাগরিক (সুজন)।

আজ শনিবার (২৫ জানুয়ারি) রাজধানীতে জাতীয় প্রেসক্লাবে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে সংগঠনের পক্ষ থেকে জানানো হয়, আসন্ন ঢাকা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে বেশিরভাগ প্রার্থীই ব্যবসায়ী।

নির্বাচনে এতো ব্যবসায়ীর অংশগ্রহণ ‘রাজনীতিকে ব্যবসায় পরিণত’ করছে বলেও জানিয়েছে সুজন।

ঢাকার দুই সিটি নির্বাচনে অংশ নেয়া ৭৪০ প্রার্থীর হলফনামার তথ্য বিশ্লেষণ করে এই প্রতিবেদন তৈরি করা হয়েছে বলে জানিয়েছে সংগঠনটি।

তথ্য বিশ্লেষণ করে দেখা যায়, ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি) এর প্রার্থীদের ৭৩ শতাংশ এবং ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন (ডিএসসিসি) এর ৭৪ শতাংশ প্রার্থী ব্যবসায়ী।

২০১৫ সালের সিটি নির্বাচনে ডিএনসিসিতে এ হার ছিল ৬৭ শংতাশ এবং ডিএসসিসিতে ৭১ শতাংশ।

রাজনীতিতে এতো ব্যবসায়ীর সংশ্লিষ্টতা নিয়ে সুজন জানায়, এতে করে নাগরিকদের সুযোগ সুবিধা নিশ্চিত করার চেয়ে ব্যবসায়ীরা নিজেদের ব্যবসা বাড়ানোর দিকে বেশি মনোযোগী হবেন।

সুজনের সম্পাদক বদিউল আলম মজুমদার বলেন, “জাতীয় নির্বাচনে অনেক ব্যবসায়ী অংশ নিচ্ছেন আর এখন স্থানীয় নির্বাচনেও তাদের অংশগ্রহণ বেড়েই চলেছে”।

এসময় নির্বাচন কমিশনের সমালোচনা করে তিনি অভিযোগ করেন, প্রার্থীদের তথ্য পেতে কোনো সহায়তা করছে না এবং নির্বাচনী আচরণবিধি যারা লঙ্ঘন করছেন তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নিচ্ছে না কমিশন।

সুজনের প্রতিবেদনে প্রার্থীদের শিক্ষাগত যোগ্যতার বিষয়টিও তুলে ধরা হয়।

দুই তৃতীয়াংশ প্রার্থী, বিশেষ করে যারা কাউন্সিলর পদে লড়ছেন তারা এসএসসি পাশ করেছেন। তবে বেশিরভাগ মেয়র প্রার্থীই উচ্চ শিক্ষিত।

প্রতিবেদনে আরো বলা হয়, বেশিরভাগ কাউন্সিলর প্রার্থী নিম্ন থেকে নিম্ন-মধ্যবিত্ত পরিবার থেকে এসেছেন। কয়েকজনের নামে দুই বা তার বেশি মামলা রয়েছে।

নির্বাচনে লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড নিশ্চিতে নির্বাচন কমিশনের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে সুজন।

 

 

Comments