ফাইনালে যেতে বাংলাদেশের সামনে সহজ লক্ষ্য

তিন স্পিনার বল করলেন আটসাট, ফেললেন উইকেট, দুই পেসার থাকলেন আগের মতই তেতে। বিশেষ করে শরিফুল ইসলাম ছড়ালেন আতঙ্ক। সবার দারুণ নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে কিউইদের সারাক্ষণ চেপে রাখল বাংলাদেশের যুবারা। তবে স্রোতের বিপরীতে দাঁড়িয়ে বেকহাম হুইলার গ্রেনালের ব্যাটে দুইশো পার করে তারা।
ছবি: আইসিসি

তিন স্পিনার বল করলেন আঁটসাঁট, ফেললেন উইকেট। দুই পেসার থাকলেন আগের মতই তেতে। বিশেষ করে শরিফুল ইসলাম ছড়ালেন আতঙ্ক। সবার দারুণ নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে কিউইদের সারাক্ষণ চেপে রাখল বাংলাদেশের যুবারা। তবে স্রোতের বিপরীতে দাঁড়িয়ে বেকহাম হুইলার গ্রেনালের ব্যাটে দুইশো পার করে কিউইরা।

দক্ষিণ আফ্রিকার পচেফস্ট্রুমে যুব বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে নিউজিল্যান্ডকে ২১১ রানে আটকে দিয়েছে বাংলাদেশ। প্রথমবারের মতো এই বিশ্ব আসরের ফাইনালে যেতে তাই বাংলাদেশের সামনে সহজ লক্ষ্য।

বৃষ্টিভেজা আবহাওয়া দেখে টস জিতে আগে ফিল্ডিং নেন অধিনায়ক আকবর আলি। বল করতে নেমেই তার এই সিদ্ধান্ত দ্রুত কার্যকর করেন বোলাররা। দ্বিতীয় ওভারেই সাফল্য পায় বাংলাদেশ। অফ স্পিনার শামীম হোসেনের বলে স্লিপে সহজ ক্যাচ দিয়ে ফেরেন রাইস মাইরু। আরেক ওপেনার ওলি হোয়াইট আর তিনে নামা ফার্গুস লেমেন জুটি বেধে টিকেছিলেন আরও ১০ ওভার। কিন্তু সারাক্ষণই তারা বাংলাদেশের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে হাঁসফাঁস করেছেন।

দ্বাদশ ওভারে বাঁহাতি স্পিনার রকিবুল হাসানের অফ স্টাম্পের বাইরের বল ঘুরাতে গিয়ে উইকেটের পেছনে ক্যাচ দেন হোয়াইট। তখন তাদের দলের রান কেবল ৩১। শম্ভুক গতিতে এগুতে থাকা কিউই যুবাদের পরের উইকেট পড়েছে ২১তম ওভারে। দলের রান তখন মাত্র ৫৯।

শামীমের বলে এই উইকেটের বড় কৃতিত্ব অবশ্য দাবি করতে পারেন মাহমুদুল হাসান জয়। মিড অনে লেমেনের ক্যাচ বাঁদিকে ঝাঁপিয়ে লুফে নেন জয়।

চরম বিপর্যস্ত পরিস্থিতিতে পালটা আক্রমণের মেজাজ নিয়ে নেমেছিলেন অধিনায়ক জেসি টেশকফ। বাঁহাতি স্পিনার হাসান মুরাদের ফ্লাইটে ধোঁকা খেয়ে বোল্ড হয়ে যান তিনি।

ইনিংসের অর্ধেক পথে কেবল ৭৪ রান তুলে নিউজিল্যান্ড হারিয়ে বসে ৪ উইকেট। এরপর প্রতিরোধ গড়েন লিডস্টোন আর গ্রেনাল। ৯০ বলে ৬৭ রানের জুটি আসে দুজনের কাছ থেকে। ৪১তম ওভারে আক্রমণে ফিরে ৪৪ করা লিডস্টোনকে ফিরিয়ে জুটি ভাঙেন শরিফুল। এই পেসার পরে ফেরান জয়ি ফিল্ডকেও।

তবে শেষ পর্যন্ত টিকে দলকে জুতসই পূঁজির দিকে নিতে চেষ্টা চালান গ্রেনাল। দলের সংগ্রহ পার করান দুইশো। ৮৩ বলে ৫ চার ২ ছক্কায় ৭৫ করে অপরাজিত থাকেন তিনি।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

নিউজিল্যান্ড: ৫০ ওভারে ২১১/৮ (মাইরু ১, হোয়াইট ১৮, লেমেন ২৪, লিডস্টোন ৪৪, টেশকফ ১০, হুইলার গ্রেনাল ৭৫*, সুন্ডে ১, ক্লার্ক ৭, ফিল্ড ১২, অশোক ৫*; শরিফুল ৩/৪৫, শামিম ২/৩১, রকিবুল ১/৩৫, সাকিব ১/৪৪, মুরাদ ২/৩৪, হৃদয় ০/১৮)

Comments

The Daily Star  | English

Small businesses, daily earners scorched by heatwave

After parking his motorcycle and removing his helmet, a young biker opened a red umbrella and stood on the footpath.

1h ago